ফুলে ফেঁপে উঠল ভারতের কোষাগার

ক্রিকেট বিশ্বে আয়ের দিক থেকে সবচেয়ে ধনী ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। নতুন চুক্তিতে যেয়ে এবার তাদের আয়ের ভাগ আরও অনেক বৃদ্ধি পাচ্ছে। পেটিএমের সাথে নতুন ধারার চুক্তির মাধ্যমে প্রতি ম্যাচে আগের থেকে প্রায় ৫৮ শতাংশ বেশি করে আয় করবে কোহলি-রোহিতদের অভিভাবক।

ক্রিকেট খেলেড়ু দেশগুলোর মধ্যে ভারতেই খেলাটি সবচেয়ে জনপ্রিয় বলে মনে করা হয়। তেমনি বোর্ডের আর্থিক অবস্থার দিক দিয়েও ভারত শীর্ষে। নতুন চুক্তির ফলে আরও ভারী হচ্ছে বিসিসিআইয়ের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট। ডিজিটাল অর্থ পরিশোধ প্রতিষ্ঠান পেটিএমের সাথে টাইটেল স্পনসরশিপের নতুন চুক্তিতে গেছে ভারত। দেশটির আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের সব ম্যাচের টাইটেল স্পন্সরশিপ কিনে নিয়েছে পেটিএম।

Also Read - হেসন বাদ পড়ার কারণ তবে এই!


২০১৫ সালেও চার বছরের জন্য পেটিএমের সাথে চুক্তি করেছিল ভারত। ২০১৯ সালে ২০২৩ সাল পর্যন্ত চার বছরের নতুন করেছে বিসিসিআই ও পেটিএম। এই সময়কালে ভারতীয় বোর্ডকে ৩২৭ কোটি রুপি দেবে পেটিএম। বাংলাদেশি হিসাব মতে যেটা ৩৮৭ কোটি টাকা! আগের চার বছরে স্পন্সরশিপের খরচের পরিমাণ ছিল ২ কোটি ৪০ লাখ রুপি। বর্তমানে সেটা হয়েছে ৩ কোটি ৮০ লাখ!

জার্সির স্পন্সরশিপ থেকেও আয়ের পরিমাণ বাড়ছে ভারতের। ৫ বছর আগে ম্যাচ প্রতি ৪ কোটি ৬১ লাখ রুপিতে চুক্তি করেছিল অপ্পো। প্রতিষ্ঠানটি এখন এই চুক্তি হস্তান্তর করেছে বাইজুর কাছে। নিয়মানুযায়ী, চুক্তিবদ্ধ অর্থের সাথে সাথে অপ্পো বাইজুর কাছে থেকে যে অর্থ পাবে তার ৫ শতাংশও পাবে বিসিসিআই।

এছাড়া, গত বছর স্টার ইন্ডিয়ার কাছে সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি করে ম্যাচ প্রতি ভারতের আয় ৬০ কোটি রুপিরও অধিক। সবপ্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি মিলিয়ে ম্যাচ প্রতি ভারতের প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ প্রায় ৭০ কোটি রুপি। যা বাংলাদেশি হিসাবে ৮২ কোটি টাকা।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন