Scores

বল ঘুরলেই সবাই কান্নাকাটি শুরু করে : লায়ন

আহমেদাবাদে স্বাগতিক ভারত ও সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার তৃতীয় টেস্টে রাজত্ব করেছেন স্পিনাররা। স্মরণকালের অন্যতম স্পিনবান্ধব ম্যাচে ভারত জিতে যায় মাত্র ৫ সেশনে। এমন ম্যাচ দেখে যারপরনাই খুশি নাথান লায়ন।

বল ঘুরলেই সবাই কান্নাকাটি শুরু করে লায়ন

অবশ্য অস্ট্রেলীয় এই স্পিনারের দলটা একটু ছোটই। আহমেদাবাদ টেস্ট দেখে বেশিরভাগই মনঃক্ষুণ্ণ। স্পিনারদের এমন দাপট যেন মেনে নিতে পারছেন না গ্রেটরা। কিন্তু লায়ন নিজে স্পিনার বলেই হয়ত, স্পিনারদের এই দাপট দেখে মুগ্ধ রীতিমত।

Also Read - ভারত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠলে এশিয়া কাপ হবে না : মানি


লায়ন এতই খুশি যে তার ইচ্ছা- আহমেদাবাদের কিউরেটর তথা পিচ কারিগরকে সিডনি ক্রিকেট মাঠে নিয়ে যাবেন।

লায়ন বলেন, ‘এই টেস্টের সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল ইংল্যান্ড ৪ জন পেসার নিয়ে খেলতে নেমেছিল। এটাই সব বলে দিচ্ছে। আমার আর কিছু বলার প্রয়োজন নেই।’

পরোক্ষভাবে লায়ন যেন প্রশ্ন তুললেন, স্পিন নির্ভর উইকেটেও কেন দলগুলোকে পেসের উপর নির্ভরশীল হতে হয়। লায়ন আরও বলেন, ‘এই পিচ দুর্দান্ত ছিল। আহমেদাবাদের এই কিউরেটরকে আমি সিডনিতে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি। বিশ্বজুড়ে পেস বান্ধব উইকেটে খেলে আমরা ৪৭ রানে, ৬০ রানে অলআউট হয়ে যাই। তখন কেউ কিছু বলে না।’

স্পিনের বিপক্ষে ব্যাটসম্যানরা ধরাশায়ী হলেই কেন এত হইচই, তা-ই প্রশ্ন লায়নের। তিনি বলেন, ‘যখনই বল ঘুরতে শুরু করে, বিশ্বের সবাই তখন কান্নাকাটি শুরু করে। কেন হয় আমি জানি না। সত্যি আহমেদাবাদ টেস্ট আমি উপভোগ করেছি।’

Related Articles

বাংলাদেশ সফরে আসবেন তো ওয়ার্নার-ম্যাক্সওয়েলরা?

হাত ফসকে পড়া বল ‘ক্যাচ’ দিয়ে দিলেন আম্পায়ার

তিন পরাশক্তির বিপক্ষে ‘হোম অ্যাডভান্টেজে’ চোখ রিয়াদের

মার্শের পর আইপিএল থেকে সরে গেলেন হ্যাজলউড

‘জায়গা খালি নেই’, স্মিথকে ল্যাঙ্গার