বাংলাদেশের তরুণদের শেখার মানসিকতায় মুগ্ধ ডোনাল্ড

জাতীয় দলের কোচ হিসেবে অ্যালান ডোনাল্ডের দায়িত্ব জাতীয় দলের পুলে থাকা পেসারদের নিয়ে। মাঝেমাঝে এইচপি দল নিয়েও হয়ত বসা হয়। তবে চোখের সামনে যখন এমন একজন কিংবদন্তি, তখন নেট বোলাররাই বা বসে থাকবেন কেন! 

বাংলাদেশের তরুণদের শেখার মানসিকতায় মুগ্ধ ডোনাল্ড
গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে অ্যালান ডোনাল্ড।

জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচের মুখোমুখি তাই এক ঝাঁক নেট বোলার। সাবেক প্রোটিয়া পেসারকে পেয়ে বাংলাদেশ দলের নেটে বল করা পেসাররা নানান খুঁটিনাটি জানতে চাইলেন। আর তাদের এই আগ্রহ আর শেখার প্রয়াস দেখে মুগ্ধ খোদ ডোনাল্ড। সেই সাথে তার মুগ্ধতা ছড়াল জাতীয় দলের পেসারদের আগ্রহ আর শেখার মন-মানসিকতাও।

Advertisment

চট্টগ্রামে নেট বোলারদের সক্রিয়তা দেখে মুগ্ধ ডোনাল্ড বলেন, ‘এইচপি দল নিয়ে কিছু কাজ করা হয়েছে। জেমি সিডন্স ও শেন ম্যাকডারমট তাদের নিয়ে কাজ করেছে। আজ ছেলেরা আমাকে জিজ্ঞেস করছিল ফ্ল্যাট উইকেটে কীভাবে বল করতে হবে। তাদের সময় সময় কাটিয়ে ভালো লেগেছে।’

বাংলাদেশের তরুণদের শেখার মানসিকতাই সবচেয়ে বেশি মুগ্ধ করেছে তাকে, ‘তারা শিখতে চায়, এটাই সবচেয়ে বড় বিষয়। আমার কোচিংয়ের দর্শন হল মানসিকতা, মনোভাব আর সৃজনশীলতা। এই পর্যায়ে এসে এই বিষয়গুলো সমান্তরালে থাকে। প্রত্যেক ট্রেনিং সেশনে চাপ তৈরি করা হয়। তাসকিন দলে ফিরলে আমরা আরও ক্ষুধা দেখতে পাব।’

শিখতে হলে দীর্ঘদিন ধরে চর্চা করতে হয়, লেগে থাকতে হয়। তাই সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আগ্রহ। সে কথা মনে করিয়ে দিয়ে ডোনাল্ড আরও বলেন, ‘আমি রোমাঞ্চিত হওয়ার একটা কারণ হল এখানকার ছেলেরা সঠিক প্রশ্নটা করে, তারা শিখতে চায়। এটা শেখার একটা দীর্ঘমেয়াদী প্রক্রিয়া।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।