Scores

বাংলাদেশের মতো দলকে এত অনুরোধে নারাজ রাজ্জাক!

অনেক জল ঘোলার পর পাকিস্তান সফরের জন্য রাজি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। তারকা ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমকে ছাড়াই পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশ দলের আগমনকে স্বাগত জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড ও পাকিস্তানের সাবেক খেলোয়াড়রা।

বাংলাদেশের মত দলকে এত অনুরোধে নারাজ রাজ্জাক
বাংলাদেশের মত দলকে এত অনুরোধে নারাজ রাজ্জাক। ছবিতে রাজ্জাক, এএফপি

তবে এর মাঝেও অসন্তুষ্টি শোনা গেলো পাকিস্তানের সাবেক তারকা অলরাউন্ডার আব্দুল রাজ্জাকের কন্ঠে। ক্রিকেট ওয়েবসাইট পাক প্যাশন নেটের কাছে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর, দানেশ কানেরিয়া, বিরাট কোহলি ও পিএসএসল সহ নানান বিষয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন আব্দুল রাজ্জাক। সেখানে ” বাংলাদেশের মতো ” দলকে এত অনুরোধ পছন্দ হয়নি বলে সাফ জানিয়ে দেন আব্দুল রাজ্জাক।

শ্রীলঙ্কার সফর দিয়ে পাকিস্তানে টেস্ট ক্রিকেট ফিরে আসে। সেই সফর নিয়ে বলতে গিয়ে রাজ্জাক বলেন, “আমি খুশি শ্রীলঙ্কা পাকিস্তানে এসেছে সামনে বাংলাদেশও আসবে। তবে আপনি দেখেন শ্রীলঙ্কার তারকা খেলোয়াড়রা রঙ্গিন পোশাকের সিরিজ খেলতে এখানে আসেনি। টি টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে তারা নবীন ও অনভিজ্ঞ দল পাঠিয়েছে। অন্যদিকে আমরা টি টোয়েন্টি সিরিজ ৩-০ তে হেরেছিও। দেখে মনে হয়েছে শুধু বন্ধুত্ব রক্ষা করার জন্য তারা দল পাঠিয়েছে।

Also Read - অনায়াস জয়ে সুপার লিগে বাংলাদেশের এক পা


সিরিজটা এমন হওয়া উচিত ছিলো দুই দলের সেরা খেলোয়াড়রা খেলবে তাদের সেরা ক্রিকেট নৈপুণ্য প্রদর্শন করবে। কিন্তু তা হলোনা। এমনকি বাংলাদেশ সিরিজেও বাংলাদেশের তারকা খেলোয়াড় মুশফিকুর রহিম আসবেনা যা আমার মোটেও ভালো লাগেনি “।

বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তান সিরিজ আয়োজনের জন্য আলোচনায় কতটুকু সফল ছিলো এই প্রশ্নের উত্তরে রাজ্জাক বলেন ” তারা আসছে শ্রীলঙ্কার পর এটা ভালো ব্যাপার। তাদের এখানে আসাটা জরুরি ছিলো। তবে মিডিয়ায় যা শোনা যাচ্ছে এর জন্য পাকিস্তান তাদের এশিয়া কাপ আয়োজনের সুযোগ ছেড়ে দিয়েছে। এমনটা হলে তা ঠিক হয়নি। বাংলাদেশের মত দলের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজনে সবকিছু একটি সাধারণ সিরিজ আয়োজনে যেই প্রটোকল ও নিয়ম হওয়া উচিত তেমনই হওয়া উচিত ছিলো।

আগে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের মত দলগুলো আমাদের হোম সিরিজ আয়োজনের জন্য দল খোজার বিবেচনায় সবার শেষে থাকতো। এখন বাংলাদেশের মত দলের সাথে সিরিজ আয়োজনেই যদি কিছু ছেড়ে দিতে প্রয়োজন হয় তাহলে তা কতটুকু সঠিক হলো? আমার মনে হয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এই ব্যাপারে আইসিসির সাথে আরো ভালো করে আলোচনা করা উচিত। তাদের সবুজ সংকেত থাকলে বড় দলগুলো কোন দাবি ছাড়াই পাকিস্তান সফরে আসবে “।

উল্লেখ্য বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর শুরু হবে ২৪ই ফেব্রুয়ারি ৩ ম্যাচ টি টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। পরবর্তীতে ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশ একটি টেস্ট খেলবে। ২য় টেস্ট ও একটি ওয়ানডে খেলতে এপ্রিলে ৩য় দফা পাকিস্তানে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

 

Related Articles

বুমরাহকে ‘বাচ্চা বোলার’ বললেন রাজ্জাক

অনন্য উচ্চতায় সাকিব আল হাসান