Scores

বাংলাদেশে কোচ হওয়া ‘ঝুঁকিপূর্ণ’, বলছেন পাইলট

ক্রিকেট অঙ্গনের অনেকেরই দীর্ঘদিনের আক্ষেপ, জাতীয় দলের কোচিং স্টাফে কেন দেশি কোচরা জায়গা পান না। বরাবরই কোচিং স্টাফে প্রাধান্য পেয়েছেন বিদেশিরা। যদিও ঘরোয়া ক্রিকেট ও বিপিএলে বাংলাদেশি কোচদের রয়েছে নজরকাড়া সাফল্য।

বাংলাদেশে কোচ হওয়া 'ঝুঁকিপূর্ণ', বলছেন পাইলট

তবুও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের কোচরা প্রাধান্য না দেওয়ায় বাংলাদেশিদের কোচ হওয়ার চেষ্টাকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বলে মনে করেন সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট।

Also Read - স্যামির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন ইশান্ত






দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে কোচিং করাচ্ছেন আরেক সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। জাতীয় দলের স্থায়ী কোচরা চলে গেলে বারবার দলের হাল ধরেছেন। তবে স্থায়ীভাবে কোচিং প্যানেলে সুযোগ পাননি ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও।

একইভাবে আসতে পারে মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, সারোয়ার ইমরানদের নামও। নাজমুল আবেদিন ফাহিমের মত প্রথিতযশা কোচিং ব্যক্তিত্বরা আদৌ কতটা মূল্যায়ন পেয়েছেন, আক্ষেপ নিয়ে সেই প্রশ্ন করেন ক্রিকেট অঙ্গনের অনেকেই। বয়সভিত্তিক বা ঘরোয়া ক্রিকেটে সফল কোচ হওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করেও ধাক্কা খেয়েছেন যারা, তাদের তালিকায় যোগ করা যেতে পারে পাইলটের নামও।






কখনো ফিল্ডিং কোচ বা অন্য কোনো ভূমিকায় বাংলাদেশ দলের কোচিং স্টাফে যুক্ত হতে চান কি না, বিডিক্রিকটাইম এর লাইভ অনুষ্ঠানে এমন প্রশ্নের জবাবে পাইলটের ভাষ্য, ‘মানুষের তো অনেক ইচ্ছাই থাকে। যারা খেলাধুলার সাথে থাকে, তারা খেলা ছাড়ার পর এই পথেই আসতে পছন্দ করে। তবে আমার মনে হয় না স্থানীয় কোচদের জাতীয় দলের কোচ হওয়ার পরিবেশ এখানে কখনো হবে।’

দেশের ক্রিকেটাররা যেভাবে গুরুত্ব পান, একইভাবে দেশের কোচদের প্রাধান্য প্রত্যাশা পাইলটের। তিনি বলেন, ‘আমরা হয়ত খেলোয়াড় যারা তামিম, সাকিব, মুশফিক তাদের নিয়েই বেশি গবেষণা করছি। জাতীয় দলকে অবশ্যই আমরা বেশি প্রাধান্য দিব। কিন্তু বাকি পদগুলোতেও স্থানীয় মানুষদের কীভাবে সুযোগ করে দিব, সেটা ভাবা উচিৎ। সেই সুযোগ খুবই ছোট। এই পথে যাওয়া আপনার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। ভালো কোচ হতে পারবেন সেই নিশ্চয়তা নেই। তবে আমার ভালো দল, ভালো ম্যানেজমেন্টের অধীনে কাজ করার ইচ্ছা অবশ্যই আছে।’ 

লাইভ অনুষ্ঠানে এক ভক্ত প্রশ্ন করেছিলেন, আইপিএলের মত আসরে কাজ করার ইচ্ছা আছে কি না পাইলটের। সেই প্রশ্নের উত্তরে বাস্তববাদী ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের উত্তর, ‘আমি বাস্তবতা খুব মানি। এই সৌভাগ্য হয়ত হবে না। আপনি নিজের দেশেই তো কাজ করার সুযোগ পান না, আইপিএলের মত জায়গা কেন প্রত্যাশা করবেন? আইপিএল বোকাদের জায়গা না। তারা সেরা কোচদেরই বেছে নেয়। আপনি যতই মেধাসম্পন্ন হন না কেন, মেধার প্রকাশ না করলে ভালো জায়গায় গিয়ে কাজ করতে পারবেন না।’ 

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ছোটবেলা থেকে পাইলটকে অনুসরণ করতেন সাব্বির

মাঠ থেকে অবসর নেওয়ার সংস্কৃতি চান পাইলট-আশরাফুল

‘যেকোনো সময় বিশ্বকাপ জিতবে বাংলাদেশ’

‘আমি চাই খেলা হবে পরিষ্কার’

মুশফিকের কাছে উইকেটকিপিং হারানোয় আক্ষেপ নেই পাইলটের