বাংলাদেশে ‘ভয়ডরহীন ক্রিকেট’ খেলতে চান কুশল

0
611

বাংলাদেশ সফরে ভালো করার জন্য শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক কুশল পেরেরার টোটকা ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলা। তিনি নিজে কীভাবে চেষ্টা করেন এবং বাকিদের কীভাবে চেষ্টা করতে দেখতে চান সবই বলেছেন কুশল। বাংলাদেশ সফরে নির্ভীক ক্রিকেট খেলারই এক হুংকার দিয়ে রাখলেন তিনি।

বাংলাদেশে 'ভয়ডরহীন ক্রিকেট' খেলতে চান কুশল

Advertisment

তরুণ এক স্কোয়াড নিয়ে বাংলাদেশ সফরে আসবে শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে দল। তবে এই দলকে নিয়েই কীভাবে ভালো করা যাবে যুক্তি দেখিয়ে দিয়েছেন কুশল। ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে দলের সবাইকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সেই সাথে সবার ভেতরে আত্মবিশ্বাস সঞ্চার করানোর কাজ করে যাচ্ছেন নতুন অধিনায়ক কুশল।

তিনি বলেন, ‘জিততে হলে আমাদের ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতেই হবে। হেরে গেলেও ভীত হওয়া যাবে না। যদি আপনি আপনার জায়গা নিয়ে চিন্তা করেন, তাহলে শতভাগ দিতে পারবেন না। আমি খেলোয়াড়দের বলেছি, যাও এবং নিজেদের সবটা নিংড়ে দিয়ে খেলো। যদি আমরা অনুশীলনেও নির্ভীক থাকতে পারি, তাহলে ম্যাচেও সেভাবে খেলতে পারব। আমি দলকে এটাই বলেছি। যদি আমরা ভয় পাই, তাহলে আরও পিছিয়ে পড়ব। খেলোয়াড়দের মধ্যে অনেক আত্মবিশ্বাস সঞ্চার করানোর চেষ্টা করছি আমি।’

নিজের খেলা সম্পর্কে কুশল বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতেই পছন্দ করি এবং এই কারণেই আমি সাফল্য পাই। যখনই আমি ভয় নিয়ে খেলি, আমি সফল হতে পারি না। আমি চাই, সবাই এভাবেই খেলুক। আপনি নিশ্চয়তা দিতে পারবেন না যে এভাবে খেলতে সফল হবেই, তবে এটুকু বলতে পারবেন যে ভালো করার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।’

কীভাবে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে হবে সেই দিকনির্দেশনাও বাতলে দিয়েছেন কুশল, ‘এই নির্ভীক চিন্তাভাবনা পাওয়ার জন্য অনুশীলনে সেভাবে কাজ করতে হবে। কারণ আপনি যদি জানেন আসলে আপনি কোন শট খেলবেন তাহলেই আপনি সেটা নির্ভয়ে খেলতে পারবেন। নিজের দুর্বলতা ও শক্তির জায়গা বুঝতে হবে। আমি মারলে বলটি কোথায় যাবে, আমার শটটি নিতে সমস্যা হবে কিনা- এসব আপনাকে বুঝতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনি যদি বোলার হন তাহলে বুঝতে হবে কোন বলে উইকেট পাবেন এবং কোন বলটি করলে ডট দিতে পারবেন। এসব জিনিসই আপনাকে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে সাহায্য করবে। ফিল্ডিংয়েও আমাদের একই কাজ করতে হবে। বাংলাদেশ সিরিজে আমাদের ফিল্ডিং ইউনিট নিয়ে আমি খুবই আশাবাদী।’