বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন স্পন্সর ‘দারাজ’

দীর্ঘ সময়ের জন্য ই-কমার্স ওয়েবসাইট ভিত্তিক দারাজ বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আগামী ২০২৩ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের স্পন্সর হিসেবে থাকবে দারাজ এবং হাংরিনাকি।

২০১৯ সালে ইউনিলিভারের সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ার পর দীর্ঘমেয়াদি কোন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। জাতীয় দলের জার্সিতে কখনো ‘বেক্সিমকো’ আবার কখনো ‘আকাশ’ স্পন্সর হিসেবে দেখা গিয়েছে। তবে এবার দীর্ঘমেয়াদি চুক্তিতে গিয়েছে বিসিবি। স্পন্সর স্বত্ব চেয়ে কদিন আগেই একটি বিজ্ঞাপন দেয় বিসিবি।

Also Read - তসলিমা নাসরিনের বেফাঁস মন্তব্যের কড়া জবাব দিলেন মঈনের বাবা


আগামী দুই বছরের জন্য বিসিবির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ। বিসিবির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধর বিষয়টি নিজেদের ফেসবুক পেজে ঘোষণা দেয় এই ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটি। বিসিবির সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আন্দদিত দারাজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর। তিনি বলেন,

“আমরা গর্বের সঙ্গে জানাচ্ছি যে পরবর্তী ৩১ মাসের জন্য জাতীয় দলের স্পন্সর হিসেবে দারাজ এবং কিট স্পন্সর হিসেবে হাংরিনাকি থাকবে। আমরাই প্রথম ই-কমার্স সাইট যে বিসিবির সঙ্গে দীর্ঘ সময়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। আমি মনে করি এটি অবশ্যই গর্বের বিষয় দারাজের জন্য।”

বিসিবির সঙ্গে নতুন চুক্তি কার্যকর হয়েছে ৭ এপ্রিল হতে আগামী ৩০ নভেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত। এই সময়ে শুধু জাতীয় দলই নয়, বাংলাদেশ ‘এ’ দল এবং অনূর্ধ্ব-১৯ দলের স্পন্সর হয়েছে দারাজ। সেই সাথে কিট স্পন্সর হয়েছে দারাজেরই ডেলিভারি প্রতিষ্ঠান ‘হাংরিনাকি’। বিসিবির সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় দারাজকে ধন্যবাদ দিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী।

“বাংলাদশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে থাকার জন্য দারাজকে বোর্ডের পক্ষ থেকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনারা জানেন যে ২০২৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয় দল, অনূর্ধ্ব-১৯ দল এবং বাংলাদেশ ‘এ’ দলের স্পন্সর হিসেবে আমাদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। আমরা আশা করবো দারাজের সম্পৃক্ততা ভবিষ্যতেও থাকবে। আমরা মনে করি দারাজের সম্পৃক্ততা বাংলাদেশ দলকে ভালো করতে উদ্বুদ্ধ করবে।”