Score

বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠছে এশিয়া কাপের

শনিবার পর্দা উঠতে যাচ্ছে এশিয়া কাপের। ২৩ বছর পর সংযুক্ত আরব আমিরাতে ফিরে এসেছে এশিয়া কাপ। যদিও স্বাগতিকরা সুযোগ পায়নি এশিয়া কাপে। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গ্রুপ ‘বি’ এর দুই দল বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা মুখোমুখি হবে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে।  ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে পাঁচটায়।

Bangladesh-Sri Lanka face off in Asia Cup opener

র‍্যাঙ্কিংয়ের সাত নম্বর দল বাংলাদেশ আর আট নম্বর দল শ্রীলঙ্কা ২০১৭ সাল থেকে বেশ কয়েকবার মুখোমুখি হয়েছে। ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছি বাংলাদেশ। ঐ সিরিজ ১-১ এ সমতায় শেষ হয়। এরপর বাংলাদেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে আসে শ্রীলঙ্কা। ঐ সিরিজে লঙ্কানদের ১৬৩ রানে হারালেও শেষমেশ ট্রফি জিতে নেয় বাংলাদেশ। মার্চে শ্রীলঙ্কার মাটিতে নিদাহাস ট্রফিতে অংশ নেয় বাংলাদেশ। ঐ টুর্নামেন্টে শ্রীলঙ্কাকে দুই টি-টোয়েন্টিতে হারায় বাংলাদেশ।

Also Read - ভারতের টিভি অনুষ্ঠানে কিংবদন্তীদের সাথে বাশার

জয় দিয়ে এশিয়া কাপ শুরু করতে মরিয়া দুই দল। জিতলেই সুপার ফোরে ওঠার দৌড়ে এক ধাপ এগিয়ে যাবে।

শ্রীলঙ্কায় রয়েছে চোটের সমস্যা। চোটের কারণে ছিটকে গিয়েছেন দানুশকা গুনাথিলাকা এবং দীনেশ চান্দিমাল। এ দুজন না থাকায় শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং অর্ডার যেন একটু দুর্বল হয়ে গেল। এছাড়া প্রথম সন্তানের পিতা হতে যাওয়ায় স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়াও নেই। দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে দারুণ ফর্মে ছিলেন আকিলা ধনঞ্জয়া। তাই ছন্দে থাকা ও অভিজ্ঞ তিন ক্রিকেটারকে ছাড়াই নামতে হচ্ছে শ্রীলঙ্কা। তবে অভিজ্ঞ পেসার লাসিথ মালিঙ্গার প্রত্যবর্তন ঘটতে যাচ্ছে এ ম্যাচ দিয়ে।

মুস্তাফিজ-রুবেল-মাশরাফি এ তিন পেসার নিয়ে মাঠে নামতে পারে বাংলাদেশ। স্পিনার হিসেবে থাকছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। আঙুলের চোট নিয়েই খেলছেন সাকিব আল হাসান। তিন নম্বরেই দেখা যাবে তাকে। দলের হয়ে তামিম ইকবাল ও লিটন দাস করবেন ইনিংসের গোড়াপত্তন। সাত নম্বরে আরিফুল হক কিংবা মোহাম্মদ মিঠুনের যেকোনো একজনকে দেখা যেতে পারে।

বিদেশের মাটিতে উইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-২০ সিরিজ জিতে বেশ আত্মবিশ্বাসী ও ফুরফুরে মেজাজে রয়েছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে লঙ্কানরা ঘরের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ হেরেছে ৩-২ ব্যবধানে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাঠে খেলার অভিজ্ঞতা নেই টিম বাংলাদেশের। ১৯৯৫ সালের এপ্রিলে সর্বশেষ সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলেছিল বাংলাদেশ। বর্তমান স্কোয়াডের কিছু ক্রিকেটার পাকিস্তান সুপার লিগ খেলার সুবাদে খেললেও দল হিসেবে মাঠা নাম হয়নি বাংলাদেশের। তাই অচেনা কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জকেও মোকাবেলা করতে হবে মাশরাফিদের।

পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলার সুবাদে সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে শ্রীলঙ্কার। তবে সর্বশেষ স্মৃতিটা দুঃস্মৃতি। পাকিস্তানের কাছে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ধবলধোলাই হয়েছে লঙ্কানরা।

সম্ভাব্য একাদশঃ

শ্রীলঙ্কাঃ নিরোশান ডিকভেলা (উইকেটরক্ষক), উপল থারাঙ্গা, কুশল পেরেরা, কুশল মেন্ডিস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস (অধিনায়ক), ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, থিসারা পেরেরা, দাসুন শানাকা, দিলরুয়ান পেরেরা, সুরাঙ্গা লাকমল ও লাসিথ মালিঙ্গা।

বাংলাদেশঃ তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুন/আরিফুল হক, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মেহেদি হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন এবং মুস্তাফিজুর রহমান।


আরো পড়ুনঃ


 

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি