Scores

বাবাকে হারালেন চেতন সাকারিয়া

মাত্র ২২ বছর বয়সেই জীবনের অনেক কঠিন বাস্তবতার সম্মুখীন হয়ে গেলেন চেতন সাকারিয়া। কয়েক মাস আগেই চিরতরে ভাইকে হারানোর পর এবার বাবাকেও হারালেন রাজস্থান রয়্যালসের এই পেসার। তার বাবা করোনায় আক্রান্ত ছিলেন।

বাবা ও মায়ের সাথে চেতন সাকারিয়া

ভারতে করোনার নাজেহাল পরিস্থিতিতে সুচিকিৎসা পেতেই হিমশিম খাচ্ছে মানুষ। সাকারিয়ার বাবা আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। তার ওপরে আক্রান্ত হন করোনায়। শেষ রক্ষা আর হয়নি তার। গুজরাটের ভবনগরের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। একদিন আগেই হাসপাতালে বাবার সাথে দেখা করেছিলেন সাকারিয়া।

সাকারিয়ার বাবা পেশায় একজন টেম্পুচালক ছিলেন। তবে সাকারিয়া উপার্জনের পথ খুঁজে পাওয়ার পরে পরিবারের দায়িত্ব নিজের কাঁধেই তুলে নিয়েছিলেন।

Also Read - যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমাতে চান শতাধিক পাকিস্তানি ক্রিকেটার


করোনার থাবায় টুর্নামেন্টের মাঝপথেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ বন্ধ হয়ে গেলে সাকারিয়া তুলে ধরেছিলেন কঠিন বাস্তবতা। এই আইপিএল মাঠে গড়িয়েছিল বলেই যে তিনি উপার্জন করতে পেরেছিলেন এবং সেই টাকায় অসুস্থ বাবার চিকিৎসা করাচ্ছিলেন তা জানিয়েছিলেন। আইপিএল আয়োজন না হলে তাকে কত কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হতো তা অনুমান করাই যাচ্ছে।

সাকারিয়া যখন আইপিএল খেলছিলেন, তখনই তাকে জানানো হয়েছিল বাবার করোনায় আক্রান্তের খবর। রাজস্থান রয়্যালস ফ্র‍্যাঞ্চাইজিকে জানিয়ে কিছু অর্থ পেয়ে সাথেসাথেই বাবার চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

সাকারিয়া তার বাবাকে বাঁচাতে পারেননি ঠিকই কিন্তু মনকে সান্ত্বনা দিতে পারবেন অন্তত টাকার অভাবে তার বাবাকে চিকিৎসা বঞ্চিত হতে হয়নি। কারণ সাকারিয়ার ভাই যে টাকার অভাবে আত্মহত্যার মতো ভয়ঙ্কর পথ বেছে নিয়েছিলেন। ভাইয়ের মৃত্যু শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই বাবাকে হারালেন তিনি।

Related Articles

ভারতকে কটাক্ষ : শঙ্কায় ম্যাককালাম-মরগানের আইপিএল ভবিষ্যৎ

আইপিএলের পুরো টাকা পাবেন না সাকিব-মুস্তাফিজ

অবশেষে বাড়ি ফিরলেন স্মিথ-ওয়ার্নাররা

আইপিএলের অবশিষ্টাংশে খেলবেন না কামিন্স

মুরালির সঙ্গে মিল প্রসঙ্গে মুখ খুললেন মুস্তাফিজ