Scores

বাবার মৃত্যুবার্ষিকীতে ইমরুলের আবেগঘন বার্তা

সড়ক দুর্ঘটনায় বাবাকে হারানোর এক বছর পার করলেন ইমরুল কায়েস। ইমরুলের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার পেছনে সবচেয়ে বেশি অবদান ছিল বাবা বানি আমিন বিশ্বাসের। তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতেও যেন শোক কাটিয়ে উঠতে পারেননি ইমরুল।

পরিবারসহ কোয়ারেন্টিনে ইমরুল কায়েস
ইমরুল কায়েস। ফাইল ছবি

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক বার্তায় ইমরুল তার প্রয়াত বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

ইমরুল লিখেছেন, ‘ঠিক এক বছর হয়ে গেছে এবং এখনও আমি মেনে নিতে পারি না যে আমার সবচেয়ে বড় প্রেরণা, সবচেয়ে বড় সমর্থক, আমার বাবা আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। ছোটবেলা থেকে আমি তোমার মত হতে চেয়েছি বাবা, তোমার মত বিনয়ী ও সদয় হতে চেয়েছি। তোমার প্রয়াণ আমাদের গভীরভাবে আচ্ছন্ন করে রেখেছে। সবার প্রতি অনুরোধ করছি, তার বিদেহী আত্মার জন্য দোয়া করবেন।’

Also Read - লকুহেতিগেকে '৮' বছরের নিষেধাজ্ঞা দিল আইসিসি


গত বছরের ২৩ মার্চ মেহেরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন বানি আমিন বিশ্বাস। প্রায় এক মাস চিকিৎসাধীন থাকা পর ২০২০ সালের ১৯ এপ্রিল তিনি মৃত্যুবরণ করেন। দুর্ঘটনার পর থেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে আইসিইউতেও রাখা হয়।

Its been exactly a year now and i still can’t digest the fact that my biggest inspiration, my biggest supporter , my…

Posted by Imrul Kayes on Monday, April 19, 2021

 

দুর্ঘটনার সময় বানি আমিন বিশ্বাস সদর উপজেলার উজ্জলপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মেহেরপুর যাচ্ছিলেন। মেহেরপুর-কাথুলি সড়কের ছহিউদ্দীন ডিগ্রি কলেজের সামনে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পর গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা। সেখান থেকে তাকে পাঠানো হয় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে। সেদিনই উন্নত চিকিৎসার জন্য তড়িঘড়ি করে বিমানযোগে তাকে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। মৃত্যুর আগপর্যন্ত তিনি ঢাকায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেই দুর্ঘটনায় বানি আমিন বিশ্বাস কানে আঘাত পান ও তার একটি পা ভেঙে যায়।শেষপর্যন্ত হার মেনে নেন মৃত্যুর কাছে।

Related Articles

নতুন শুরুর জন্য বড় একটি সুযোগ দেখছেন ইমরুল

শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রাথমিক দল ঘোষণা, ফিরলেন ইমরুল

‘আমি আর তামিম বাংলাদেশের সেরা উদ্বোধনী জুটি’

আমি হয়ত কোচদের খুশি করতে পারি না : ইমরুল

সাইফের সেঞ্চুরির দিনে ইমরুলের আক্ষেপ ‘১০’ ও তুষারের ‘১’