Scores

বিকেএসপির বিপক্ষে গাজী গ্রুপের শ্বাসরুদ্ধকর জয়

চলমান ডিপিএলের ১২তম ম্যাচে বিকেএসপিকে ৪ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। আগে ব্যাট করে গাজী গ্রুপের দেওয়া ২৫০ বলের লক্ষ্যমাত্রা ইনিংসের শেষ ওভারে এসে টপকে যায় দলটি।

শেষ ম্যাচ হাতে রেখেই শিরোপা নিশ্চিত গাজী গ্রুপেরফাইল ছবি।

ফতুল্লায় ভেজা পিচের কারণে আধা ঘন্টা দেরীতে বল মাঠে গড়ায়। বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর বিপক্ষে টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

Also Read - র‍্যাঙ্কিংয়ে রশিদ-জর্ডানদের রাজসিক উত্থান


শুভ সূচনা বিকেএসপির দুই ব্যাটসম্যান রাতুল খান ও মাহমুদুল হাসান জয়। কিন্তু দলীয় ৯৮ রানে আহত হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় রাতুলকে। মাঠ ছাড়ার আগে ৮৬ বলে ৩৪ রানের ধীর গতির ইনিংস খেলেন তিনি।

তারপরে দ্বিতীয় উইকেটে আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের সাথে ৫২ রানের জুটি গড়েন জয়। দলীয় ১৫০ রানে প্রথম উইকেট হারায় বিকেএসপি। ৯৩ বলে ৮৫ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন জয়।

তৃতীয় উইকেটে ৭৪ রানের জুটি গড়েন বিপ্লব ও শামীম। ২টি চার ও তিনটি ছয়ে ৩৯ বলে ৪৪ রান করে কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরেন শামীম। তখন দলীয় রান ছিল ২২৪।

টপ অর্ডারের সবাই রান পেলেও চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হয় বিকেএসপির মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। কেউই দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পারেনি। এই ছন্দপতনের ফলে ২৪৯ রানেই থেমে যায় বিকেএসপি। একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে সতীর্থদের আশা যাওয়া দেখা বিপ্লব অপরাজিত ছিলেন ৬৯ বলে ৬৩ রানে।

দুইটি করে উইকেট নিয়েছেন গাজী গ্রুপের দুই পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি ও আবু হায়দার রনি। কোনো উইকেট না পেলেও একটি করে মেডেন ওভার করেন মেহেদি হাসান ও পারভেজ রসুল।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। মাত্র ৪ রান করেই পেসার মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধের বলে আউট হয়ে ফেরেন ইমরুল কায়েস। দলীয় শত রান পূর্ণ হওয়ার আগেই ৪ উইকেট হারিয়ে সহজ টার্গেটাকেও কঠিন করে তুলে তারা।

তবে বিপর্যয়ের সামাল দেন মেহেদি হাসান ও তৌহিদ তারেক। ৭৩ বলে ৭০ রানের এক ঝলমলে ইনিংস খেলেন মেহেদি হাসান। তার ইনিংসটিতে ছিল ৯টি চার ও ১টি ছয়ের মার। দলীয় ১৪০ রানে হাসান মুরাদের বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

তৌহিদ তারেকও তুলে নেন অর্ধ শতক। সপ্তম উইকেটে আবু হায়দার রনির সাথে ৬৭ রানের জুটি গড়েন। তারেক করেন ৯৩ বলে অপরাজিত ৭৬ রান। আবু হায়দারও
৩২ রানে অপরাজিত থাকেন। তার ২৪ বলের ইনিংসটাতে ২টি করে চার ও ছয় ছিল।

মাঝারি মানের সংগ্রহেও শেষ ওভার পর্যন্ত গড়ায় ম্যাচ। বিকেএসপির তরুণ দলটিকে ৪ উইকেটে হারায় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বিকেএসপি: ২৪৯/৭ (জয় ৮৫, বিপ্লব ৬৩*, শামীম ৪৪, রাতুল ৩৪*; আবু হায়দার রনি ৪৬/২, কামরুল ইসলাম রাব্বি ২/৫২)

গাজী গ্রুপ: ২৫২/৬ (তৌহিদ তারেক ৭৬*, মেহেদি হাসান ৭১, আবু হায়দার রনি ৩২*, শামসুর রহমান ২৩, রনি তালুকদার ১৫, শামসুল ইসলাম ১৫, ইমরুল কায়েস ৪; মুরাদ ৩/৩২, মুকিদুল ২/৫৬)

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

প্রাইম ব্যাংকের কাছে হেরে বিদায় নিল গাজী গ্রুপ

দারুণ বোলিংয়ের পরও মুস্তাফিজদের হার

ভালো করছেন নাসুমরা, এবার একটু ‘সুযোগ’ চান

জয়ের নিকটে গিয়েও গাজীর কাছে ব্রাদার্সের হার

দৈর্ঘ্য কমার ম্যাচেও অলআউট হয়ে গাজীর কাছে হারলো উত্তরা