বিগ ব্যাশে অভিনব তিন নিয়ম আনল অস্ট্রেলিয়া

আগে কখনো দেখা যায়নি- এমন অভিনব তিন নিয়ম রাখা হয়েছে এবারের বিগ ব্যাশ লিগে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিত্যনতুন স্বাদ এনে দিতে অবশ্য বিগ ব্যাশের জুড়ি নেই। টুর্নামেন্টটি এবার নতুন আঙ্গিকে ধরা দেবে ভক্তদের কাছে। 

বিগ ব্যাশে অভিনব তিন নিয়ম আনল অস্ট্রেলিয়া

Advertisment

বিশ্বের অন্যান্য টি-টোয়েন্টি লিগগুলো থেকে একটু স্বাতন্ত্র্য বজায় রেখেই চলেন বিগ ব্যাশের কর্তারা। অন্যান্য লিগের মত বিদেশিদের আধিক্য না থাকলেও টুর্নামেন্টটির দর্শকপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। এর অন্যতম কারণ ক্রিকেটীয় কৌশলে বিগ ব্যাশে অভিনব ভাবনা।

সেই অভিনব ভাবনা থেকে এবার নতুন তিন নিয়ম করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। পাওয়ার সার্জ, এক্স ফ্যাক্টর ও ব্যাশ বুস্ট নামের এই তিন নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

পাওয়ার সার্জ : টি-টোয়েন্টিতে ইনিংসে প্রথম ৬ ওভার ব্যাটিং পাওয়ারপ্লে থাকে। তবে বিগ ব্যাশে ৬ ওভারের পরিবর্তে একটানা পাওয়ারপ্লে থাকবে প্রথম ৪ ওভার। বাকি দুই ওভার নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যাটিং দল নিতে পারবে ১১তম ওভার পর্যন্ত।

এক্স ফ্যাক্টর : বদলি ক্রিকেটার মাঠে নামানোর দারুণ এক নিয়ম এটি। ম্যাচের প্রথম ইনিংসের ১০ম ওভার পর্যন্ত যে ক্রিকেটার ব্যাটিং করেননি বা এক ওভারের বেশি বোলিং করেননি, দল চাইলে তার বদলি হিসেবে অন্য কাউকে মাঠে নামাতে পারবে। সেক্ষেত্রে বদলি হিসেবে নামার সুযোগ পাবেন স্কোয়াডের দ্বাদশ বা ত্রয়োদশ সদস্য। তবে ১০ ওভারের আগে চোট পেলেও কোনো ক্রিকেটারের বদলি নেওয়া যাবে না।

ব্যাশ বুস্ট : প্রতি ম্যাচে জয়ের জন্য আগে ছিল ২ পয়েন্ট। এবার সেটি হচ্ছে ৩। সেই সাথে যুক্ত হবে এই ব্যাশ বুস্ট। ১০ ওভার শেষে যে দলের রান বেশি থাকবে, সেই দল এই বাড়তি ১ পয়েন্ট পাবে।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।