Scores

বাংলাদেশের বিজয় দিবসে বাংলাদেশকেই উপেক্ষা করলেন শেবাগ!

১৬ ডিসেম্বর (রবিবার) উদযাপিত হয়েছে বাংলাদেশের ৪৮তম মহান বিজয় দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের ভূখণ্ড থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নেয় দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ব্যাপক নির্যাতন ও হত্যাযজ্ঞ চালানো পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী।মুক্তিযুদ্ধে পাক-সেনাদের সমর্পণ ভারতীয় আর্মির ‘ঐতিহাসিক দিন’ আখ্যা শেবাগের

বিজয় অর্জনের দিনে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী বাংলাদেশের কাছে পরাজয় স্বীকার করে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বা তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে আত্মসমর্পণ করেছিল। ঐদিন বিকাল ৪.৩১ মিনিটে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণ দলিলে সই করেন জেনারেল আমির আবদুল্লাহ খান নিয়াজী।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী সেদিন আত্মসমর্পণ করেছিল ভারতীয় ও বাংলাদেশ বাহিনীর জেনারেল অফিসার কমান্ডিং ইন চিফ, লেফটেন্যান্ট-জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরার কাছে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান অনস্বীকার্য। ভারতীয় সেনাবাহিনীর সহায়তা বাংলাদেশের বিজয় অর্জনের পথকে করেছিল সুগম। আর তাই বাংলাদেশের বিজয় দিবসে ভারতেও কাজ করে বিশেষ উদ্দীপনা।

বাংলাদেশের ৪৮তম বিজয় দিবসের প্রাক্বালে এ নিয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে একটি পোস্ট করেন ভারত জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার বীরেন্দর শেবাগ। পোস্টে শেবাগ দিনটিকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য ঐতিহাসিক দিন হিসেবে আখ্যায়িত করেন। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণের ঐতিহাসিক ছবি সংযুক্ত করে ক্যাপশনে তিনি লিখেন, ’৪৭ বছর আগে আজকের এই দিনে, ১৯৭১ সালে; আমাদের আর্মড ফোর্সের একটি ঐতিহাসিক দিন।’

Also Read - ১২তম আইপিএলের প্লেয়ার ড্রাফট মঙ্গলবার


যদিও শেবাগের এই পোস্ট নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। পোস্টে ‘বিজয় দিবস’ হ্যাশট্যাগ উল্লেখ করলেও শেবাগ সেটি কোন দেশের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করেছেন তা পরিস্কার নয়। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিজয়কে ইতিপূর্বে অনেক ভারতীয়ই নিজেদের বিজয় বা নিজেদের অর্জন কিংবা ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ বলে আখ্যা দিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন। টুইটারে শেবাগের এই পোস্ট তেমন কিছুর ইঙ্গিত কি না, এমন প্রশ্নও উঠছে।

মোহাম্মদ নাজমুল হক নামের এক বাংলাদেশি শেবাগের টুইটে মন্তব্য করেছেন, ‘আপনার উচিত বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানানো, কারণ তারাই আপনাদের এই দিনটিকে ঐতিহাসিক করে তোলার সুযোগ করে দিয়েছে।’ সাদাফ উসমান নামের আরেক বাংলাদেশি শেবাগের বিজয় দিবস উদযাপনের পোস্ট দেখে প্রশ্ন ছুঁড়েছেন- শেবাগ বাংলাদেশের লোক কি না। আরিয়ান নামের এক ভারতীয় শেবাগের সুরে সুর মিলিয়ে বলেছেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের আর্মড ফোর্সেসের জন্য এটি ঐতিহাসিক এক দিন।’ নামোরাজ নামের এক ভারতীয় টুইটার ব্যবহারকারী মুক্তিযুদ্ধে হত্যাযজ্ঞ ও নির্যাতন চালানো পাকিস্তানের সেনাবাহিনীকে ত্রাস আখ্যা দিয়ে মন্তব্য করেছেন, তারা ভারতের কাছেই পরাজিত হয়েছিল। এরকম বেশিরভাগ মন্তব্যেই ভারতীয়রা ঐতিহাসিক এই দিনের জন্য ভারতকেই কৃতিত্ব দিচ্ছেন, নেই বাংলাদেশের নামগন্ধও।

১৫ ডিসেম্বর রাতে পোস্ট করা এই টুইটে ইতোমধ্যে মন্তব্য জমা পড়েছে ২০৬টি, এসেছে প্রায় ২ হাজার ফিরতি টুইটবার্তা। সেখানে অনেকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্বীকার করে নিলেও বেশিরভাগই বাংলাদেশের কথা উল্লেখ না করেই ভারতীয় আর্মির গুণকীর্তন করছেন, আর এই টুইটার ব্যবহারকারীদের সিংহভাগই ভারতের অধিবাসী। বাংলাদেশের বিজয় অর্জনের দিনে বাংলাদেশকে কৃতিত্ব না দিয়ে, এমনকি বাংলাদেশের প্রসঙ্গই উপেক্ষা করে ভারতের সেনাবাহিনীর প্রশংসাসূচক মন্তব্য স্বভাবতই ঠেকছে বেমানান। একাধিকবার বাংলাদেশকে নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করা শেবাগ বিতর্ক উসকে দিতেই এই টুইট করেছেন কি না, এমন প্রশ্ন তাই উঠতেই পারে!

একনজরে দেখে নিন শেবাগের সেই টুইট-

আরও পড়ুন: যে কারণে স্যালুট দিচ্ছিলেন কটরেল

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

৭৫-৮০টি ওয়ানডে শতক পাবেন কোহলি!

বাবা হচ্ছেন রুবেল হোসেন

ইন্টারনেটে রেকর্ড গড়লো বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর

আইসিসির ভুল ধরিয়ে দিল বিসিবি

ইমামের পর নারী কেলেঙ্কারিতে আফ্রিদিও!