বিডিক্রিকটাইমের বর্ষসেরা টেস্ট একাদশ

২০১৬ সালে  এক ব্যস্ত মৌসুম কাটিয়েছে ক্রিকেট দুনিয়ার খেলোয়াড়রা। সেখান থেকেই ২০১৬ সালের সেরা টেস্ট একাদশ বাছাই করেছে বিডিক্রিকটাইম।

দলে জায়গা পেয়েছেন সর্বোচ্চ পাঁচজন ইংলিশ ক্রিকেটার। এছাড়া দুইজন ভারতীয় এর সাথে আছেন একজন করে পাকিস্তানি, শ্রীলংকান, দক্ষিন আফ্রিকান, অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার।

১. অ্যালেস্টার কুক-ইংল্যান্ডঃ  এ বছর দারুণ ফর্মে ছিলেন ইংলিশ অধিনায়ক অ্যালেস্টার কুক। ১৭ ম্যাচে ৪২.৩৩ গড়ে করেছেন ১২৭০ রান। দুই শতকের সাথে ছিল সাত অর্ধশতক। ২০১৬ সালে ১৩০ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেন এই ব্যাটসম্যান। ২০১৬ সালের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি।

Also Read - ব্ল্যাকক্যাপসদের ২৩৭ রানের টার্গেট ছুড়ে দিল বাংলাদেশ


২. আজহার আলি-পাকিস্তানঃ পাকিস্তানের আজহার আলির জন্য ২০১৬ সালটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।  ২১ ইনিংস ব্যাট করে এই পাকিস্তানি করেছেন ১১৫৫ রান। ঝুলিতে আছে একটি ট্রিপল সেঞ্চুরিও। গড় ৬৪.১৬, হাঁকিয়েছেন তিনটি শতক।

৩. ভিরাট কোহলি-ভারতঃ  যে নামটি না থাকলেই নয় সেটি ভিরাট কোহলি। অনবদ্য ব্যাটিং নৈপূণ্যে মুগ্ধ করা এই ব্যাটসম্যান এ বছর ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। ১২ ম্যাচে মাত্র ১৮ ইনিংস খেলে ১২১৫ রান করেন এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান। সর্বোচ্চ করেন ২৩৫ রান। চোখ ধাঁধানো সব ইনিংস খেলেছেন কোহলি। ৭৫.৯৩ গড়ই বলে দেয় কতটা ধারাবাহিক ছিলেন ভারতীয় অধিনায়ক। ভারতকে দারুণভাবে নেতৃত্বও দিয়েছেন তিনি।

৪. জো রুট- ইংল্যান্ডঃ ২০১৬ সাকে সাদা পোশাকে সবচেয়ে বেশি রান জো রুটের। তিন শতক আর ১০ অর্ধশতক আছে রুটের। সর্বোচ্চ ২৫৪ রানের ইনিংস আসে তার ব্যাট থেকে। ইংলিশদের ব্যাটিং স্তম্ভ হয়ে ছিলেন পুরো বছর।

৫. মঈন আলি-ইংল্যান্ডঃ ব্যাট হাতে ১০৭৮ রানের সাথে বল হাতে আছে ৩৭ উইকেট। পাঁচটি অর্ধশতকের সাথে আছে একটি কম শতক। ৫ উইকেট পেয়েছেন একবার। এ বছর দারুণ অলরাউন্ডিং নৈপুণ্য দেখিয়েছেন মঈন।

৬. জনি বেয়ারস্টো-ইংল্যান্ডঃ কিপিং গ্লাভস হাতে বিশ্বস্ত ছিলেন বেয়ারস্টো। ১৪৭০ রান করেছেন ৫৮ গড়ে। সর্বোচ্চ ১৬৭ রান করে অপরাজিত ছিলেন এই কিপার ব্যাটসম্যান। তিন শতকের সাথে ৫০ পার করেছেন আটবার। বছরের সর্বোচ্চ ৭০ টি ডিসমিসালও রয়েছে তার।

৭. বেন স্টোকস-ইংল্যান্ডঃ  ১২ ম্যাচে ৪৫.২০ গড়ে ৯০৪ রান করেছেন তিনি। নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছেন বল হাতেও। দলের প্রয়োজনে এনে দিয়েছেন ব্রেক থ্রু, শিকার করেছেন ৩৩ উইকেট।

৮. রবিচন্দ্রন অশ্বিন-ভারতঃ  ২০১৬ সালে সবচেয়ে বেশি উইকেট পান আশ্বিন। ১২ ম্যাচে ৭২ উইকেট নিয়েছেন এই বোলার। ৮ বার পাঁচ উইকেট পেয়েছেন তিনি। এছাড়া ১২ ম্যাচে ৬১২ রানের উপরে আসে তার ব্যাট থেকে।

৯. রঙ্গনা হেরাথ-শ্রীলঙ্কাঃ আরেক স্পিনার হিসেবে দলে জায়গা পেয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ। ৯ ম্যাচে ৫৭ উইকেট শিকার করেছেন এই লংকান। ইকোনমি ছিল মাত্র ২.৬১। সেরা বোলিং ফিগার ৬৩/৮।

১০. মিশেল স্টার্ক- অস্ট্রেলিয়াঃ অজি ফাস্ট বোলার স্টার্ক এবার দারুণ বোলিং করেছেন। মাত্র ৯ টেস্ট খেলে তিনি শিকার করেছেন ৫০ উইকেট। পাঁচ উইকেটও নিয়েছেন তিনবার।

১১. কাগিসো রাবাদা-দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ৯ ম্যাচে দক্ষিন আফ্রিকার তরুণ ফাস্ট বোলার রাবাদা শিকার করেছেন ৪৬ টি উইকেট। ৪ বার পাঁচ উইকেট শিকারের কীর্তি গড়েছেন এ পেসার।

অধিনায়ক- ভিরাট কোহলি

-রাইয়ান কবির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম ডট কম

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন