বিপিএলের গ্রাউন্ড ব্র্যান্ডিংয়ে বসুন্ধরা এলপিজি

ক্রিকেট এখন শুধুই একটি খেলা নয়। ‘ভদ্রলোকের খেলা’-টির বিশ্বায়নের ফলে এটি এখন হয়ে দাঁড়িয়েছেন গ্ল্যামার ও বিজ্ঞাপনেরও এক গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। আর এই কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের টি-২০ লিগগুলোতে চোখে পড়ার মতো থাকে বিজ্ঞাপনের বাহার।

মূল্য কমছে বিপিএল টিকিটের

এরই ধারাবাহিকতায় আসন্ন একেএস বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ২০১৭ এর গ্রাউন্ড ব্র্যান্ডিংয়ে স্পন্সর হয়েছে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস। স্পন্সর হওয়ার সুবাদে মাঠে পেরিমিটার বোর্ডের উল্লেখযোগ্য অংশ এবং স্ট্র্যাটেজিক টাইমআউটের সময় স্ক্রিনের পুরো অংশে প্রদর্শিত হবে প্রতিষ্ঠানটির নাম।

Also Read - 'মুস্তাফিজের গতি আইপিএলের চেয়ে বেড়েছে'


বৃহস্পতিবার ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বসুন্ধরা গ্রুপের ইন্ডাস্ট্রিয়াল হেড কোয়ার্টার-২ এ এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়, যেখানে স্পন্সরশিপের ব্যাপারে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের হেড অব মার্কেটিং এম এম জসীম উদ্দিন এবং কে-স্পোর্টসের সিইও ফাহাদ করিম। উল্লেখ্য, কে-স্পোর্টস বিসিবির অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান যারা বিপিএলের চুক্তি সম্বলিত কার্যাবলী সম্পাদন করবে।

এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  বসুন্ধরা এলপিজি লিমিটেডের হেড অব সাপ্লাই চেইন আব্দুস শুকুর, হেড অব অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড ফিন্যান্স মাহাবুব আলম, হেড অব সেলস মীর টি আই ফারুক রিজভী, হেড অব হিউম্যান রিসোর্স ডিভিশন আতিক উজ জামান খান, এলপি গ্যাস লিমিটেডের জিএম (বিজনেস অপারেশন অ্যান্ড প্ল্যানিং) প্রকৌশলী মো. জাকারিয়া জালাল, ইন্টারনাল অডিট ডিজিএম সেলিম রেজা, কে স্পোর্টসের ডিরেক্টর আশফাক আহমেদ প্রমুখ।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জসীম উদ্দিন বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ খেলাধুলার বিষয়ে সবসময় আন্তরিক। স্পন্সরশিপ বা পৃষ্ঠপোষকতায় আমরা সবসময়ই এগিয়ে আসি। ভবিষ্যতে আমরা আরও বড় পরিসরে ক্রিকেটে আমাদের নিজেদের সম্পৃক্ত করতে চাই। আমরা চাই বিপিএলে উত্তেজনাপূর্ণ ভালো খেলা হোক। এছাড়া খেলার সময়সূচীও যেন ঠিক থাকে। তাহলে স্পন্সর হিসেবে আমরা যেমন উপকৃত হবো, তেমনি দেশের ক্রিকেটের উন্নতিও হবে। কেননা বিপিএলে ভালোভাবে খেলা হলে ভালো ভালো নতুন ক্রিকেটার উঠে আসবে।’

ফাহাদ করিম বলেন, দেশের ক্রিকেটে বিপিএল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি আয়োজন। এমন একটি বড় আয়োজনে বসুন্ধরা এলপিজি লিমিটেডকে যুক্ত করতে পেরে আমরা সম্মানিতবোধ করছি। আমরা চাই বিপিএলে বড় বড় প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসুক। কারণ স্পন্সর ছাড়া এই সব গুরুত্বপূর্ণ আয়োজন সফল হবে না।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন