বিপিএলের স্বার্থেই শাস্তি কমানো হয়েছে শাহজাদের

৮০ রানের পথে শট খেলছেন মোহাম্মদ শাহজাদ।

গত বুধবার রাজশাহীর বিপক্ষে ম্যাচে রাজশাহীর ব্যাটিং চলাকালীন সাব্বিররের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ান রংপুর রাইডার্সের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ শাহজাদ। উইকেটের পেছন থেকে এসে সাব্বিরকে উস্কানি মূলক কথা বলেন। পরবর্তীতে রংপুরের ব্যাটিং চলাকালীন মোহাম্মদ সামির বলে আউট হওয়ার পর সাজঘরে ফেরার পথে সাব্বিরকে ব্যাট দিয়ে আঘাত করেন শাহজাদ।

Advertisment

যার কারণে এক নিষিদ্ধ হন শাহজাদ। তবে আইসিসির নতুন কোড অফ কন্ডাক্ট অনুযায়ী চার মেরিট পয়েন্ট পান শাহজাদ, যার কারণে পরবর্তীতে এক ম্যাচের জায়গায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তবে সবকিছু ছাপিয়ে নিষেধাজ্ঞা কাটার আগেই বরিশাল বুলসের বিপক্ষে ব্যাটিং করতে নামেন শাহজাদ। তাই প্রশ্ন উঠা স্বাভাবিক, দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ থাকার পরও কিভাবে বুলসদের বিপক্ষে মাঠে নামে শাহজাদ?

দুই ম্যাচ নিষিদ্ধর প্রথম ম্যাচ ছিল ঢাকা ডাইনামাইটসদের বিপক্ষে। দ্বিতীয় ম্যাচেই ব্যাট  করতে নামেন শাহজাদ। এর ব্যাখ্যা চেয়েছেন মিডিয়া কমিটি চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের কাছে। তিনি জানান, বিপিএলের স্বার্থেই নাকি শাস্তি কমানো হয়েছে মোহাম্মদ শাহজাদের। শাস্তি কমানোর জন্য নাকি ঢাকার বিপক্ষে ম্যাচের পরেই আবেদন করেছিলেন রংপুর।

“শাহজাদ দোষ স্বীকার করে শাস্তি কমানোর জন্য বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে ম্যাচের পর আবেদন করেছিলেন। সেই আবদেনের কারণেই তার শাস্তিটা কমানো হয়েছে। আমি মনে করি এখানে কোনও সম্যসা নেই। নিয়ম অনুযায়ী শাস্তি কমানো হয়েছে। দল গুলোকে আগেই জানানো হয়েছে শাস্তি কমানোর খবর।”

“‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখানে কারও চাপ ছিল না। টুর্নামেন্টে কমিটি যেভাবে সিদ্ধান্ত নেবে, সেভাবেই মেনে নিতে হয়। আর এখানে নিয়মের বাইরে গিয়ে কিছু করা হয়নি।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘টুর্নামেন্টের স্বার্থে ও বিশেষ বিবেচনায় শাহজাদের শাস্তি কমিয়েছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।’ দুই ডিমেরিট পয়েন্টও কমানো হয়েছে তার। ডিমেরিট পয়েন্ট কমানোয় এক ম্যাচের শাস্তি কমেছে শাহজাদের।”

-আফরিদ মাহমুদ রিফাত, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম