Scores

বিপিএলে ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ রেকর্ড সাদ্দামের

ষষ্ঠ বিপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন খুলনা টাইটান্সের তরুণ পেসার সাদ্দাম হোসেন। তবে এই যাত্রায় তার ‘প্রথম’ মোটেও সুখকর হয়নি।

বিপিএলে সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড এখন সাদ্দামের

এদিন বল হাতে সাদ্দাম খরচ করেন ৫৯ রান, যা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ইতিহাসে সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড।

ম্যাচের তথা কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে নামা সাদ্দাম এদিন পড়েছিলেন এভিন লুইসদের রোষানলে। পুরো ৪ ওভার বল করে তিনি বিলিয়েছেন ৫৯ রান, পাননি কোনো উইকেট! ইকোনোমি রেট ছিল ১৪.৭৫। বিপিএল এর আগে কখনও এত খরুচে বোলিং দেখেনি। তাই সাদ্দাম হোসেনই এখন বিপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে খরুচে বোলার।

Also Read - রেকর্ড গড়ে সেঞ্চুরি লুইসের


সাদ্দামের এই অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডে স্বস্তি পাবেন সিলেট সিক্সার্সের আল-আমিন হোসেন ও মেহেদী হাসান রানা, যারা ১৪.২৫ ইকোনোমি রেট নিয়ে এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত বিপিএলের সবচেয়ে খরুচে বোলার হিসেবে ছিলেন। চলতি আসরের ম্যাচে গত ৯ জানুয়ারি চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৫৭ রান দিয়েছিলেন আল-আমিন। এরপর রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে আরেক ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সের পেসার মেহেদী হাসান রানাও ৪ ওভার বল করে ৫৭ রান খরচ করেন।

চলতি আসরের আগে সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড ছিল ৫৪ রানের খরচায়। সেই তিক্ত রেকর্ড ছিল শ্রীলঙ্কার দিলশান মুনাবীরা ও বাংলাদেশের কামরুল ইসলাম রাব্বির। ২০১৫ সালে মুনাবীরা ও ২০১৭ সালে অনাকাঙ্ক্ষিত এ রেকর্ডের সম্মুখীন হন রাব্বি।

এই কজনের তিক্ত অভিজ্ঞতার ছাড়াও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে এক ইনিংসে ৫০ বা তার চেয়েও বেশি রান দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে মোট ১১ বার। সাকিব আল হাসানসহ মোট ১০ জন বোলার এখন পর্যন্ত সম্মুখীন হয়েছেন তিক্ত এই অভিজ্ঞতার। আর একমাত্র বোলার হিসেবে অনাকাঙ্ক্ষিত এই খরুচে বোলিংয়ের তালিকায় ২ বার নাম ওঠেছে দেশের প্রথম সারির পেসার আল-আমিন হোসেনের।

আরও পড়ুন: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রাইডুর বোলিং নিষিদ্ধ করলো ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল

Related Articles

‘ঘরের মাঠে’ বিপিএলের ম্যাচ চায় খুলনা টাইটান্স

বারবার বিপিএলের নিয়ম বদল: নাখোশ মাহেলা-মুডি

মুশফিক-তামিমদের চুক্তিও বৈধ নয়!

বাংলাদেশে খেলতে মুখিয়ে আছেন ওয়াটসন

বিপিএল মাতাতে আসছেন ওয়াটসন