Scores

অপ্রতিরোধ্য ঢাকার টানা চতুর্থ জয়

চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ঢাকা ডায়নামাইটসের জয়ের ধারা যেন থামবার নয়। এখন পর্যন্ত আসরের একমাত্র অপরাজিত দলটি শনিবার (১২ জানুয়ারি) তুলে নিয়েছে টানা চতুর্থ জয়!

অপ্রতিরোধ্য ঢাকার টানা চতুর্থ জয়

‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন ঢাকা ডায়নামাইটস। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিক দল সংগ্রহ করে ১৭৩ রান।

দলের পক্ষে এদিন তাণ্ডব চালিয়েছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার রনি তালুকদার। ওয়ান ডাউনে নেমে ৩৪ বলের মোকাবেলায় ৫৮ রান আসে তার ব্যাট থেকে। দারুণ এই ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ৩টি ছক্কা।

Also Read - “চেষ্টা করবো সামনে শান্ত থাকার”

এছাড়া সুনীল নারাইন ও নাইম শেখ* ২৫ এবং অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ২৩ রান করেন।

সিলেট সিক্সার্সের পক্ষে তাসকিন আহমেদ শিকার করেন তিনটি উইকেট।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে ডেভিড ওয়ার্নারের নেতৃত্বাধীন দল সিলেট সিক্সার্স। দলীয় রান ৫০ পার হওয়ার আগেই দলটি হারায় পাঁচজন ব্যাটসম্যানকে। সেখান থেকে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন নিকোলাস পুরান।

অন্য প্রান্তে সতীর্থদের আসা যাওয়ার মাঝে ঢাকার বোলারদের সামনে পুরান একাই হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন দেয়াল। একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে ম্যাচ জেতানোর যথাসাধ্য চেষ্টাও করেছিলেন। যদিও যথাযোগ্য সমর্থন না পাওয়ায় ক্যারিবীয় এই ক্রিকেটারের সেই চেষ্টা সফল হয়নি। ১টি চার ও ৯টি ছক্কার সহায়তায় ৪৭ বলে ৭২ রান করে তিনি সাজঘরে ফিরলে ফিকে হয় সিলেটের জয়ের স্বপ্ন।

নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারানো সিলেট সিক্সার্সের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৪১ রান। এতে ৩২ রানের সহজ জয় পায় ঢাকা ডায়নামাইটস, যা আসরে দলটির টানা চতুর্থ জয়।

ঢাকার পক্ষে রুবেল হোসেন তিনটি ও সাকিব আল হাসান দুটি উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ঢাকা ডায়নামাইটস ১৭৩/৭ (২০ ওভার)
রনি ৫৮, নারাইন ২৫, নাইম ২৫*
তাসকিন ৩৮/৩, অলক ১৩/১

সিলেট সিক্সার্স ১৪১/৯ (২০ ওভার)
পুরান ৭২,তাসকিন ১৮*
রুবেল ২২/৩, সাকিব ৩৪/২

ফল: ঢাকা ডায়নামাইটস ৩২ রানে জয়ী।

Related Articles

ঢাকার ব্যাটিং নিয়ে হতাশ সাকিব

ঘরের মাঠে ঢাকার টানা দুই হার

বিপিএলে বল হাতে সাকিবের ১০০

বিপিএলে আজ মাঠে নামছে যারা

হেরেও সাকিব জানালেন— জয়ের বিশ্বাস ছিল