Scores

বিপিএল নিয়ে তামিম-মুশফিকের আক্ষেপ ও চাওয়া

আইপিএল থেকে যেসব ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের জন্ম, তাদের একটি বিপিএল বা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। জনপ্রিয়তার বিচারে আইপিএলের পর বাকি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগগুলোর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে। তবে বিশ্ব ক্রিকেটে বিপিএলের আবেদন মোটেও কম নয়। তবে এই বিপিএল নিয়েই কিছুটা আক্ষেপ আছে তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের।

সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক তামিমের, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মুশফিক

আইপিএলে আইকনিক ক্রিকেটারদের দলবদলের দৃশ্য দেখা যায় না বললেই চলে। গৌতম গম্ভীর দীর্ঘদিন খেলেছেন কলকাতা নাইট রাইডার্সে। মহেন্দ্র সিং ধোনি মানেই যেন চেন্নাই সুপার কিংস। দল সাফল্য পাক বা না পাক, বিরাট কোহলির জন্য কোহলি-ভক্তরা সমর্থন করেন রয়্যালস চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে। রোহিত শর্মা তেমনি জড়িয়ে আছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সাথে।

Also Read - পেসার থেকে কিপার হওয়ার গল্প শোনালেন মুশফিক






তবে বিপিএলে এমনটি দেখা যায় না। তার মূল কারণ, আইকনিক খেলোয়াড়দের বার বার দলবদল। তামিম-মুশফিকের আক্ষেপ এখানেই। ইনস্টাগ্রাম লাইভে আলাপচারিতায় দুই সিনিয়র ক্রিকেটার এ নিয়ে নিজেদের ভাবনা তুলে ধরেন।

তামিম বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় বিপিএল দারুণ একটি টুর্নামেন্ট। এখান থেকে আমরা অনেক কিছু শিখতে পারি, অনেক খেলোয়াড় উঠে আসে। আইপিএলে চেন্নাই মানেই ধোনি। মুম্বাই মানেই রোহিত শর্মা। একটা দলে ৪-৫ বছর খেলতে পারলে ঐ দলটাকে আরও আপন করে নিতে পারতাম। আমাদের সমর্থক যারা তারা ঐ দলের সমর্থক হত।  বিপিএলে আমি এই জিনিস সবচেয়ে বেশি মিস করি।’






তামিম তাই এমন কোনো নিয়ম চান- যাতে আইকনিক ক্রিকেটাররা কোনো দলে অন্তত ৩ বছর একটানা খেলতে পারবেন। এতে দলের ব্যবস্থাপনাও হবে ভালো। তিনি জানান, ‘আমরা ৫ জন (পঞ্চপাণ্ডবকে ইঙ্গিত করে) যদি নিজেদের দল পছন্দ করতে পারি, আর এমন নিয়ম হত যে অন্তত ৩ বছর এই দলে খেলবো; তাহলে ভালো হত। যদি দল ছেড়ে দেয় সেটা আলাদা ব্যাপার। কিন্তু আজ এই দল, কাল ঐ দল, টাকা বেশি পেলে অন্য দল- এমন না। একটা দলে টানা খেললে আমরা ফ্যানবেজও গড়তে পারব দলকেও আপন করে নিতে পারব, ঐ ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্যও ভালো হবে।’

দলবদলের এই অভিজ্ঞতা বা ভোগান্তি মুশফিকের চেয়ে ভালো কেউ জানার কথা নয়। বিপিএলের সাতটি আসরে সাতটি অঞ্চলের দলকে তিনি প্রতিনিধিত্ব করেছেন! তামিমের দাবির সাথে সম্মতি জানিয়ে মুশফিক বলেন, ‘বিশাল ফ্যানবেজ হতে পারে। আমাদের হোম-অ্যাওয়ে পদ্ধতি এখনো যদিও সেভাবে গড়ে ওঠেনি। তবে সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী তো আমিই। প্রত্যেক বছরই নতুন দলে খেলি। এটা অনেক চ্যালেঞ্জিং। কোচ থেকে ফ্র্যাঞ্চাইজি সবার সাথে আমার নতুন করে সম্পর্ক গড়তে হয়। এটা যেকোনো খেলোয়াড়ের জন্য কঠিন।’

মুশফিক আরও বলেন, ‘প্রত্যেক দলে যারা আইকনের মত খেলেন, তাদের দল বাছাইয়ের ঐ সুযোগ দেওয়া যায়, আর অন্তত তিন বছরের জন্য দলে রাখা যায়। তাহলে দলের মালিকরাও দল কেমন হবে না হবে এ নিয়ে আলোচনা ও পরিকল্পনা করতে পারবে। বিপিএল এখন অনেক বড় এক প্লাটফর্ম। বিশ্বের সবাই দেখে, নামীদামী খেলোয়াড় এসে খেলে।’

মুশফিকের সুরে সুর মেলান তামিমও। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে দুই আসর খেলেছেন এই ওপেনার। দ্বিতীয়বার খেলার সময় অনেকটাই আপন করে নিয়েছিলেন দলকে। তামিম বলেন, ‘কুমিল্লার হয়ে আমি দুই বছর খেলেছি। দ্বিতীয়বার গিয়ে মনে হয়েছে কুমিল্লাকে আমি ধারণ করি। একটা দলে অনেকদিন খেলার সুযোগ পেলে আমাদের জন্যও, দলের জন্যও ভালো হয়।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

তামিমকে তাঁদেরও স্যালুট

“তামিমের জন্য ধারাভাষ্য কক্ষ আদর্শ জায়গা”

বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক : উইলিয়ামসন

তামিম-মুশফিকের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা উপভোগ করেন সাকিব

জাহানারার কণ্ঠে তামিমের সুর