বিশ্বকাপের অধিনায়কদের মধ্যে সম্পদের শীর্ষে রোহিত, দুইয়ে সাকিব

এই তালিকায় অনেকটাই পিছিয়ে বাবর আজম। তার আগে আছেন নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন ও দক্ষিণ আফ্রিকার টেম্বা বাভুমা।

বিশ্বকাপের অধিনায়কদের মধ্যে সম্পদের শীর্ষে রোহিত, দুইয়ে সাকিব

বিডিক্রিকটাইম স্টাফ
বিডিক্রিকটাইম রিপোর্ট

প্রকাশিত হয়েছে -

আপডেট হয়েছে -

ক্রিকেট খেলে একেকজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার আয় করেন কাড়ি কাড়ি টাকা। তারকাখ্যাতি পেয়ে গেলে বাড়ে আয়ের খাত। কেন্দ্রীয় চুক্তির পাশাপাশি এন্ডর্সমেন্ট ছাড়াও আছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট, যা তাদের রাতারাতি কোটিপতি বানিয়ে দেয়। আগামী মাসে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ৮ অধিনায়কের মোট সম্পদ নিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে সিএ নলেজ। সেই প্রতিবেদন সবচেয়ে বেশি সম্পদ ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মার, দ্বিতীয় স্থানেই আছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান
রোহিত-সাকিবদের এই তালিকায় অনেকটাই পিছিয়ে বাবর আজম।
আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বিশ্বকাপের মূল পর্বে সরাসরি জায়গা করে নেওয়া ৮ দেশের অধিনায়কদের মধ্যে রোহিত শর্মাই সবচেয়ে ধনী। ভারতের তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক মোট ২৪৩ কোটি টাকার মালিক। দ্বিতীয় স্থানে আছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের অধিনায়কের মোট সম্পদের পরিমাণ ২২২ কোটি টাকা বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে। এক্ষেত্রে সাকিব পেছনে ফেলেছে ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার ও অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চকে।
রোহিত ও সাকিবের মতো বাটলারের মোট সম্পদের পরিমাণও একশ কোটি টাকার বেশি। কয়েকদিন আগে ইংল্যান্ডের সীমিত ওভারের অধিনায়কত্ব পাওয়া বাটলার মোট ১০১ কোটি টাকার মালিক। তার পরের অবস্থানে থাকা অ্যারন ফিঞ্চের মোট সম্পদ ৮১ কোটি টাকার।
এই তালিকায় অনেকটাই পিছিয়ে বাবর আজম। তার আগে আছেন নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন ও দক্ষিণ আফ্রিকার টেম্বা বাভুমা। কিইউ দলপতি উইলিয়ামসন ৬৫ কোটি টাকার মালিক, সেদিক থেকে তার অবস্থান পঞ্চম স্থানে। ৫০ কোটি টাকার সম্পদ নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছেন টেম্বা বাভুমা। বাবর আজম আছেন সপ্তম স্থানে। পাকিস্তানের কাপ্তানের মোট সম্পদ ৪০ কোটি টাকার।
অনুমিতভাবেই এই তালিকায় সবার শেষের নামটি মোহাম্মদ নবীর। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তানের দলপতির মোট সম্পদ ১২ কোটি টাকার সমপরিমাণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।
আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি সাকিবের সম্পদ আন্তর্জাতিক মুদ্রামানে ২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বেশ কয়েক বছর ধরে বড় অঙ্কের টাকা আয় করেন তিনি। সাথে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে নামডাক থাকায় সেখানেও আছে আকাশচুম্বী চাহিদা। বহু দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের পণ্যদূত হিসেবে বিশাল অঙ্কের টাকা আয় করেন, এছাড়াও ব্যবসায় হাত পাকানো এই অলরাউন্ডার আরও বিভিন্ন ক্ষেত্র থেকে অর্থ উপার্জন করেন। 
বাংলাদেশের ক্রিকেটসহ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ধরনের খবর সবার আগে পেতে এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন BDCricTime Videos চ্যানেলটি।
বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।
সম্পর্কিত খবর