Scores

বিশ্বকাপের জন্য ফিট কেদার যাদব

আইপিএলে ফিল্ডিং করতে গিয়ে বাম কাঁধে চোট পেয়েছিলেন কেদার যাদব। সেই চোট কাটিয়ে এখন এ ক্রিকেটার ফিট বলে জানানো হয়েছে। তার বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে রইল না আর কোনো শঙ্কা।

বিশ্বকাপের জন্য ফিট কেদার যাদব
ঘটনা গত ৫ মে এর। আইপিএলে কিংস ইলিভেন পাঞ্জাবের মুখোমুখি হয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংস। ইনিংসের ১৪ তম ওভারে চার বাঁচাতে দিয়েছিলেন ঝাঁপ। তাতে চোট পেয়েছিলেন বাম কাঁধে। চোট পাওয়ার পর সাথে সাথে মাঠ ছাড়েন তিনি। এ চোটের কারণেই আইপিএল শেষ হয়ে যায় তার। এরপর আর কোনো ম্যাচ খেলা হয়নি। অনিশ্চয়তা ছিল বিশ্বকাপ নিয়ে। এবার সেই অনিশ্চয়তা দূর হয়েছে।

প্রায় এক মাস ছিল কেদার যাদবের হাতে। তার জন্য অপেক্ষা করেছে ভারতের নির্বাচকরা। দলের ফিজিওথেরাপিস্ট প্যাট্রিক ফারহার্টেরও কথা ছিল ইতিবাচক। এমএসকে প্রসাদের নেতৃত্বে গঠিত ভারতের নির্বাচক কমিটি অবশ্য কেদার যাদবের বিকল্প রেখে দিয়েছে। রিশাভ পান্ট, আম্বাতি রায়ডু, ইশান্ত শর্মা, অক্ষর প্যাটেল এবং নবদীপ সাইনি-  এ পাঁচ ক্রিকেটারের মধ্যে যেকোনো একজনকে নিতে পারে ভারত।

Also Read - আফ্রিদির টেস্ট ক্রিকেট ও অধিনায়কত্ব ছাড়ার কারণ


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর প্রতিবেদন অনুসারে কোনো সমস্যা ছাড়াই নেটে ব্যাটিং করতে পারছেন কেদার যাদব। তাই ভারতের দলে কোনো পরিবর্তন না আসার সম্ভাবনাই বেশি।

৩৪ বছর বয়সী কেদার যাদবের এটাই প্রথম বিশ্বকাপ। ২০১৪ সালে ওয়ানডে অভিষেক হয় তার। এখন পর্যন্ত ভারতের হয়ে খেলেছেন ৫৯ ওয়ানডে। ডান হাতি ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি দলের প্রয়োজনে অফস্পিন করতেও দেখা যায় তাকে।

৫ জুন নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে ভারত। সাউদাম্পটনে ভারতের বিপক্ষে লড়বে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ভারতের বিশ্বকাপ দল :  বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, বিজয় শঙ্কর, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), কেদার যাদব, দীনেশ কার্তিক, যুযবেন্দ্র চাহাল, কুলদীপ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমার, জাসপ্রিত বুমরাহ, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা ও মোহাম্মদ সামি।


আরো পড়ুন : বোলারদের নৈপুণ্যে আয়ারল্যান্ডের জয়


 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিশ্বকাপে মুশফিকের ভুল নিয়ে কথা বললেন ডমিঙ্গো

আবারো পর্যালোচনা করা হবে ফাইনালের সেই ওভারথ্রো

ইন্টারনেটে রেকর্ড গড়লো বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর

নেতৃত্ব থেকে অব্যহতি দেয়া হচ্ছে ডু প্লেসিকে!

বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের রিপোর্ট এখনও পায়নি বিসিবি