Scores

বিশ্বকাপে তিনে ব্যাট করতে দলের সঙ্গে লড়েছিলেন সাকিব

২০১৯ বিশ্বকাপ খুব ভালো যায়নি বাংলাদেশ দলের। শুরুর ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারালেও ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেনি টাইগাররা। তবে সেই টুর্নামেন্টে প্রাপ্তি ছিল সাকিব আল হাসানের ব্যাটিং। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে রীতিমত তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এই জায়গায় ব্যাটিং করতে দলের সঙ্গে লড়তে হয়েছিল তাকে।

তিন শতাধিক পরিবারের পাশে দাঁড়াল সাকিবের ফাউন্ডেশন

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে প্রায় ৮৭ গড়ে ৬০৬ রান করেছিলেন সাকিব। ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় তৃতীয় স্থানে। যেখানে টুর্নামেন্ট সর্বোচ্চ ৫টি ফিফটির সাথে ২টি সেঞ্চুরিও করেন সাকিব। যেই ব্যাটিং পজিশনে নেমে এমন সফলতা কুঁড়িয়েছেন, সেই তিন নম্বরে খেলাটা সাকিবের জন্য একেবারেই সহজ ছিল না।

Also Read - আবারো নিজ জেলার দুস্থদের পাশে রুবেল






সাকিব ছাড়া আর কেউই মনে করেননি তিন নম্বরের জন্য উপযুক্ত হবেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার। সাকিবের তিনে খেলার প্রসঙ্গে কয়েকদিন আগে কথা বলেছিলেন টাইগারদের তখনকার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তামিম ইকবালের সাথে সরাসরি ভিডিও আড্ডায় তুলে ধরেছিলেন সেই সময়ের ঘটনা।

তামিমকে উদ্দেশ্য করে মাশরাফি বলেন, ‘সাকিব যখন বিশ্বকাপে তিনে খেলে, ওকে তিনে খেলানো নিয়ে কিন্তু তোর অনেক কথা আছে। আমরা প্রায় সবাই, তুইও দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিলি। কোচ বিপক্ষে ছিল, সবাই বিপক্ষে ছিল। সাকিব সবচেয়ে বেশি আত্মবিশ্বাসী ছিল, যে ও পারবে।’






সোমবার (১১মে) সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করে জনপ্রিয় সাংবাদ সংস্থা ডয়েচ ভেলের বাংলা সংস্করণকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাকিব বলেন, ‘যেহেতু আমি টি-টোয়েন্টিতে ওপরে ব্যাটিং করেছি, আমি মনে করেছি আমি দলের জন্য আরও অবদান রাখতে পারি ব্যাটিং দিয়ে। যেটা আমি করতে পারছি না। এরপরেই আমি সিদ্ধান্ত নিলাম যে উপরে ব্যাটিং করবো। এই জায়গায় আমাদের নির্দিষ্ট কেউ ছিল না, তাই ভাবলাম একটা চেষ্টা করে দেখি।’

‘যেহেতু বিশ্বকাপ ছিল চ্যালেঞ্জটা অনেক বড় ছিল। এমনকি ম্যাচের আগের দিন রাতেও ফোন এসেছে, নিশ্চিত? আমি করবো কি করবো না? জিনিসগুলো অনেক সংকটপূর্ণ এবং চাপও বলতে পারেন।’ সাথে যোগ করেন তিনি।

নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন সাকিব, ‘আপনার যখন আসলেই ফোন আসে এবং জিজ্ঞেস করে, করবো কি করবো না? করাটা ঠিক হবে কীনা, মনে হচ্ছে না ঠিক হবে। সবাই যেভাবে বলেছে বা চিন্তা করেছে আসলে ঠিক হচ্ছে না বা ঠিক হবে না। সবাই যখন দ্বিধাদ্বন্দ্বে থাকে তখন আপনার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়াটা আরও কঠিন হয়ে যায়।’

শুরু থেকে সবাই সাথে থাকলে কাজটা আরও বেশি সহজ হতো বলে জানান সাকিব, ‘সবাই আপনার সাথে থাকলে, তখন একটা আলাদা বিষয়। আমার জন্য অনেক বড় একটা চ্যালেঞ্জ ছিল, তাদের কষ্ট, অবদান, ত্যাগ, সবার বিশ্বাস এই সময় অনেক বেশি কাজে এসেছে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

বিশ্বকাপের ম্যাচ ‘ইচ্ছা করে হেরেছিল’ ধোনি

হাইলাইটসঃ বাংলাদেশ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব জয়ার, তবে ব্যর্থ হলেন ব্যাট হাতে

বাকিংহাম প্যালেসে রাণীর সাথে দেখা করলেন বিশ্বকাপের অধিনায়কেরা