Scores

বিশ্বকাপ টিম প্রিভিউ: দক্ষিণ আফ্রিকা

সর্বশেষ ৭টি ওয়ানডে সিরিজের ৬টিতেই জয় নিয়ে ইংল্যান্ডে এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের মিশেলে সাজানো দারুণ ফর্ম বিশ্বকাপ যাত্রা করা এই দলটির সামনে চোকারস অপবাদ ঘোচানোর বড় সুযোগ রয়েছে। টুর্নামেন্ট শুরুর প্রথম দিনেই স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে প্রোটিয়াদের বিশ্বকাপ মিশন।

১৯৯২ সাল থেকে বিশ্বকাপ খেলছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৭টি বিশ্বকাপে মোট ৫৫টি ম্যাচের ৩৫টিতেই জয় তাদের। তবে যে ১৮টিতে হার তার বেশির ভাগই নকআউট পর্বে। প্রতিবার সেমিফাইনালে যেয়েই থেমে যেতে হয়েছে তাদের। ফাইনালের স্বাদ এখনো পাওয়া হয়নি দলটির।

Also Read - বিশ্বকাপ টিম প্রিভিউ: পাকিস্তান


ব্যাটে-বলে সমানে সমান দলটির বড় শক্তি টপ অর্ডার ব্যাটিং ও পেস আক্রমণ। দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা। ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রায় ৮ হাজার রানের মালিক ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের ইংল্যান্ডের মাটিতে গড়টাও দারুণ, ৫৭। এছাড়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস ও ওপেনার কুইন্টন ডি ককও আছেন দারুণ ফর্মে।

মিডল অর্ডারে অভিজ্ঞ জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, ক্রিস মরিসদের ঝড়ো গতিতে  রান তোলার জন্য র‍্যাসি ভ্যান ডার ডুসেন, অ্যান্ডিলে ফেহলুকাইয়োদের মতো তরুণরা আছেন। এইডেন মারক্রামও একজন দারুণ ব্যাটসম্যান।

লুঙ্গি এনগিদি ও কাগিসো রাবাদার পেস আক্রমণ যেকোনো প্রতিপক্ষের মনে ত্রাস সৃষ্টি করতে যথেষ্ট। এছাড়া অভিজ্ঞ ডেল স্টেইন আছেন দলে। ইমরান তাহিরের লেগ স্পিন দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং আক্রমণে অন্য মাত্রা যোগ করেছে।

দলটির তুরুপের তাস হতে পারেন তাবরেজ শামসি ও ফেহলুকাইয়ো। বাঁহাতি লেগ স্পিনার শামসি চমক দেখাতে পারেন বিশ্বকাপে। বামহাতি ব্যাটিং ও ডানহাতি মিডিয়াম পেসে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে পটু ফেহলুকাইয়োও।

দক্ষিণ আফ্রিকার চিন্তার কারণ তাদের লোয়ার অর্ডার ব্যাটিং। রাবাদা, স্টেইন, লুঙ্গি, তাহিররা ৮ থেকে ১১ নং পজিশনগুলোতে ব্যাটিং করে থাকেন। গত ২ বছরে এই পজিশনগুলোতে দক্ষিণ আফ্রিকার গড় রান মাত্র ১২.১৬ করে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ স্কোয়াড: ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক, জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, ডেল স্টেইন,  এইডেন মারক্রাম, অ্যান্ডিলে ফেহলুকাইয়ো, ইমরান তাহির, কাগিসো রাবাদা, ডুয়াইন প্রিটোরিয়াস, লুঙ্গি এনগিদি, ক্রিস মরিস, র‍্যাসি ভ্যান ডার ডুসেন, তাবরেজ শামসি।

বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচের সময়সূচি: 

৩০ মে- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম ইংল্যান্ড- বেলা ৩:৩০
২ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম বাংলাদেশ- বেলা ৩:৩০
৫ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম ভারত- বেলা ৩:৩০
১০ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম উইন্ডিজ- বেলা ৩:৩০
১৫ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম আফগানিস্তান- সন্ধ্যা ৬:৩০
১৯ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম নিউজিল্যান্ড- বেলা ৩:৩০
২৩ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম পাকিস্তান- বেলা ৩:৩০
২৮ জুন- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম শ্রীলঙ্কা- বেলা ৩:৩০
৬ জুলাই- দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া- সন্ধ্যা ৬:৩০।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ড্রেসিংরুমের ভেতরের কথা বাইরে না যাওয়াই ভালো: মুশফিক

উইলিয়ামসনের সেই রান আউট হাতছাড়া নিয়ে মুখ খুললেন মুশফিক

সাকিবও বলছেন— মাশরাফির নিষ্প্রভতায় পিছিয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ

নিজের জন্য নয়, দেশের জন্যই খেলি: সাকিব

নিশামকে একমাস তাড়া করেছে ফাইনালের দুঃস্বপ্ন!