Scores

বিসিবি ও ইউনিসেফের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত

আন্তর্জাতিক শিশু সংস্থা ইউনিসেফের সাথে আন্তর্জাতিক চ্যারিটি অংশীদার হিসেবে দুই বছরের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

বিসিবি ও ইউনিসেফের চুক্তি অনুষ্ঠানের একটি মুহূর্ত।

বুধবার দুপুরে বিসিবি কার্যালয়ে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাউদ্দিন চৌধুরী সুজন ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদার। এসময় অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ।  তাসকিন আহমেদ ও সাকিব আল হাসানের অনুষ্ঠানে থাকার কথা থাকলেও ব্যক্তিগত ব্যস্ততার আসতে পারেননি তারা।

Also Read - বিপিএল মাতাতে আসছেন ক্রিস মরিস!


চুক্তির শর্ত অনুযায়ী এখন থেকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রি‌কেট দলের (পুরুষ, নারী ও অনূর্ধ্ব-১৯) জার্সিতে দেখা যাবে ইউনিসেফের লোগো। এছাড়া সব ছেলে মেয়ের জন্য খেলাধুলার অধিকার প্রতিষ্ঠা করার প্রচেষ্ঠা, বিশেষ করে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে বিসিবি’র ক্রিকেট উন্নয়ন কার্যক্রমেও সহায়তা করবে সংস্থাটি।

বেগবেদার বলেন, “বাংলাদেশ ক্রি‌কেটের জন‌প্রিয়তার কারণে এই অংশীদারিত্বকে ঘিরে আমাদের উচ্চাশা রয়েছে। অতীতে বিভিন্ন সময়ে বিসিবি ও ইউনিসেফের মধ্যকার বেশ কিছু সহযোগিতামূলক কার্যক্রম সফল হয়েছে। তবে এই অংশীদারিত্বের আওতায় আমরা ক্রি‌কেটের মাধ্যমে অনেক বেশি সুবিধাবঞ্চিত শিশুর কাছে পৌঁছাতে এবং তাদের ক্ষমতায়ন করতে পারবো বলে আশা করি। ”

বিসিবির প্রধান নির্বাহী তার বক্তব্যে বলেন, ‘ক্রিকেটের যে ব্যাপক ইতিবাচক ধারা রয়েছে ইউনিসেফের সঙ্গে এই অংশীদারিত্ব সেটাকে আরও বেগবান করবে এবং আনুষ্ঠানিকভাবে শিশুদের খেলাধুলার অধিকারকে জোরালোভাবে সমর্থন করার মাধ্যমে এটা বিসিবির বিদ্যমান কার্যক্রমগুলোকে আরও বেশি মানবিক করে তুলবে।’

এই চুক্তির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো মা ও শিশুর প্রতীক সম্বলিত এই লোগো আন্তর্জাতিক কোনো ক্রি‌কেট দলের জার্সিতে স্থান পেতে যাচ্ছে। যা জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থাটির জন্য নিঃসন্দেহে একটি মাইলফলক হবে। তবে এর আগেও বিসিবির মাধ্যমে সংস্থাটি আইসিসি’র বেশ কিছু আয়োজনেও সম্পৃক্ত ছিল। আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১১, আইসিসি নারী বিশ্বকাপ বাছাই ২০১১, আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০১৪ সহ বেশ কয়েকটি আয়োজনে সংস্থাটির সম্পৃক্ততা লক্ষ্য করা গেছে।

উল্লেখ্য, শিশু অধিকার সম্পর্কিত বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ২০০৬ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রি‌কেট বোর্ডের পাশাপাশি জাতীয় ক্রি‌কেট দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে আসছে ইউনিসেফ।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

খারাপ অবস্থা কাটিয়ে উঠতে বেশিদিন লাগবে না: সাকিব

“কত যে সংগ্রাম করতে হয়েছে জীবনে”

ইউনিসেফের সাথে যুক্ত হলেন মিরাজ

রোহিঙ্গাদের পাশে সাকিব আল হাসান