বৃহস্পতিবার ঢাকা আসছেন স্টিভ রোডস

0
2488

অনেক জলঘোলার পর অবশেষে প্রায় চূড়ান্ত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের নাম। দীর্ঘ আট মাস প্রধান কোচবিহীন অবস্থায় থাকার পর চলতি মাসেই নতুন কোচের দেখা পাচ্ছেন সাকিব-তামিমরা- ক্রিকেট অঙ্গনে গুঞ্জন এমনই। সেই কোচ হলেন ইংল্যান্ডের স্টিভ রোডস।

সাকিবের পরিচিত রোডস!
ছবিঃ গেটি ইমেজেস

বিসিবির সাথে আলাপ করতে সেই রোডস বাংলাদেশে আসছেন ৭ জুন। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি পা রাখবেন ঢাকায়, এরপর বিসিবির কার্যালয়ে বৈঠকে বসবেন দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাদের সঙ্গে।

Advertisment

ভারতের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা কোচ গ্যারি কারস্টেন কয়েকদিন আগে বাংলাদেশে কাটিয়ে গেছেন ব্যস্ত সময়। তার সেই সফরের কারণ ছিল সাকিব-তামিমদের নতুন কোচ নিয়োগ। সেই কারস্টেনের সূত্র ধরেই রোডস আসছেন বাংলাদেশে। তাই ইতিপূর্বে বিভিন্ন কোচের নিয়োগের ব্যাপারে অনেকটা নিশ্চিত হয়েও হাতছাড়া হওয়ার ব্যাপারটি এখন ঘটার সম্ভাবনা ক্ষীণই। সেটি হয়ে থাকলে চলমান আফগানিস্তান সিরিজের পর টাইগারদের পরবর্তী মিশন উইন্ডিজ সফরেই বাংলাদেশ দলের হেড কোচের আসনে দেখা যেতে পারে স্টিভ রোডসকে।

খেলোয়াড়ি জীবনে রোডস অবশ্য খুব একটা সফল হতে পারেননি। ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন মাত্র ১১টি টেস্ট ও ৯টি ওয়ানডেতে। ছিলেন মূলত ব্যাটসম্যান, তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কখনও বোলিং করা হয়নি তার। ব্যাটিং পরিসংখ্যানও আহামরি নয়। দুই ফরম্যাট মিলিয়ে অর্ধ-শতক আছে সাকুল্যে দুটি। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি অবশ্য উইকেটরক্ষণটাও পারতেন রোডস। ৫৩ বছর বয়সী এই কোচ খেলেছিলেন উস্টারশায়ার ও ইয়র্কশায়ারের হয়েও। খেলোয়াড়ি জীবন শেষে ২০০৪ সালে উস্টারশায়ারে কোচের ভূমিকায় নিযুক্ত হন। এরপর ‘ডিরেক্টর অব ক্রিকেট’ পদেও কাজ করেছেন দীর্ঘ সময়।

গ্যারি কারস্টেন ভিন্ন ক্যাটাগরিতে বা ফরম্যাটে পৃথক কোচ নিয়োগের যে বিষয়টি উত্থাপন করেছিলেন সেই চিন্তা-ভাবনা থেকে অনেকটাই সরে এসেছে দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড- বিসিবি। বরং স্টিভ রোডসকেই এখন ‘একমাত্র’ প্রধান কোচের আসনে দেখতে চাচ্ছেন বোর্ডের কর্তারা।

আরও পড়ুন: ‘এটা খুবই হতাশাজনক’