Scores

বেতন কাটা হচ্ছে ক্লুজনারদের

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্রীড়াবিশ্ব হয়ে আছে স্থবির। এ সঙ্কটকালে  কোচদের  মে মাসের  বেতন থেকে ২৫ শতাংশ কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আফগানিস্তানের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা এসিবি। জুনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না হলে বেতন কাটার পরিমাণ বেড়ে দাঁড়াবে ৫০ শতাংশে।

 

বেতন কাটা হচ্ছে ক্লুজনারদের
খরচ কমানোর পরিকল্পনা করছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

 

Also Read - যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব নেয়ার প্রশ্নে সাকিবের জবাব


চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ আছেন প্রধান কোচ ল্যান্স ক্লুজনার এবং ব্যাটিং কোচ হিল্টন ডিওন অ্যাকারম্যান। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে  প্রধান কোচের দায়িত্ব নেন। এ বছরের মার্চে নিযুক্ত হয়েছিলেন অ্যাকারম্যান। এ দুই সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার ছাড়াও বেতন কাটা পড়বে সহকারী কোচ ও সাবেক আফগান অধিনায়ক নওরোজ মঙ্গলের।

এ সিদ্ধান্ত নিয়ে  ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে এসিবির প্রধান লুতফুল্লাহ স্টানিকজাই বলেন, “কোভিড-১৯ সঙ্কটের কারণে আমরাও প্রভাবিত হচ্ছি। এটি আমাদের ব্যয় কমানোর পরিকল্পনার অংশ। আমরা মে মাসে তাদের ২৫ শতাংশ বেতন কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং জুনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না শুরু করতে পারলে ৫০ শতাংশ কাটা হবে। ” 

জুনে আফগানদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলতে রাজি হয় জিম্বাবুয়ে যা  আইসিসির ভবিষ্যত সফর সূচির বাইরে। তবে এ সিরিজ নিয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি এসিবি। করোনাভাইরাসের প্রতিরোধে এখন আকাশপথে বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ।  কবে থেকে ফের তা চালু করা হবে তার ওপর নির্ভর করছে আফগানিস্তান-জিম্বাবুয়ে সিরিজ। এরপর সূচিতে রয়েছে এশিয়া কাপ ও তবে টি-২০ বিশ্বকাপ। কিন্তু সেগুলোও অনিশ্চয়তার দোলাচলে।

স্টানিকজাই বলেন, “যেখানেই পারা যায় আমরা ব্যয় কমানোর চেষ্টা করছি। আমাদের  আয়ের ক্ষতি হচ্ছে। আমরা আমাদের ক্লথিং পার্টনার ‘টাইকা’-কে হারিয়েছি। এশিয়া কাপ আয়োজিত হবে এবং সেখান থেকে আমাদের আয় হবে এ ব্যাপারে আমরা শতভাগ নিশ্চিত নই। যদি টি-২০ বিশ্বকাপেও সমস্যা হয় তবে আমাদের আগামী বছর এবং এরপর সামনে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।” 

ভারতের প্রতিষ্ঠান টাইকা ২০২০ সাল পর্যন্ত পোশাকের পৃষ্ঠপোষকতা করার চুক্তি করলেও করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর সেই চুক্তি বাতিল হয়েছে। এছাড়া  সহযোগী দেশ থেকে পূর্ণ সদস্যের মর্যাদা পেলেও আইসিসি থেকে বাড়তি পরিমাণের রাজস্ব পাওয়া যায়নি- বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, “আমরা একই পরিমাণ টাকা পাচ্ছি। পূর্ণ সদস্যের শুধুমাত্র আমাদের কাছ থেকে আমাদের দর্শক এবং অন্যান্য অংশীজনদের প্রত্যাশা বাড়িয়েছে। কিন্তু সেই প্রত্যাশা পূরণের জন্য আমরা বাড়তি কোনো অর্থ পাইনি।”

 

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

‘আমাকে সন্ত্রাসী-সেলে নিয়ে দিনে ১৬-১৭ ঘণ্টা নির্যাতন করা হতো’

আমার সাথে চরম অন্যায় করা হয়েছে : নাফীস

সরে দাঁড়ালেন শশাঙ্ক মনোহর

স্যামির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন ইশান্ত

ফিক্সিং ইস্যুতে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি থারাঙ্গা