Scores

বেয়ারস্টোর ‘নকল’ প্রচেষ্টা, বোকা বনে গেলেন স্মিথ!

চলমান অ্যাশেজে স্টিভেন স্মিথের রানের ঘোড়া চলছে লাগামহীনভাবে। তাকে থামানো যাচ্ছে না একেবারেই। তবে ব্যাট হাতে ইংল্যাল্ডের বোলারদের শাসন করা এই ব্যাটসম্যান বোকা বনে গেলেন বাইশ গজে, বেয়ারস্টোর ‘নকল’ প্রচেষ্টায় উইকেটেই গাড়াগড়ি খেলেন স্মিথ।

কিংস্টন ওভালে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছিলো অস্ট্রেলিয়া। উইকেটে ছিলেন দুই ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েড ও স্টিভেন স্মিথ। ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চারের বলে রান নেওয়ার সময় স্মিথ যখন ক্রিজের অন্যপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছেন, তখন ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টো ফিল্ডারের কাছ থেকে বল তালুবন্দি করে উইকেট লাগানোর অভিনয় করেছিলেন।

Also Read - জিম্বাবুয়েকে হেসেখেলে হারালো আফগানিস্তান


এতেই বোকা বনে গেলেন স্নিথ। সরাসরি ঝাঁপিয়ে পড়েন নিজেকে রান আউট হওয়া থেকে বাঁচানোর জন্য। তবে এর পর দেখা যায়, স্মিথকে আউট করার ‘শ্যাডো’ করলেও আদতে বেয়ারস্টোর হাতে বলই ছিলো না! এতে ক্রিজে গড়াগড়ির পর উঠে দাঁড়িয়ে কিংকর্তব্যবিমুঢ় হয়ে বেয়ারস্টোর দিকে তাকালেন স্মিথ।

এরপর দিনের খেলা শেষ হলে তাঁর ‘ঝাঁপিয়ে পড়া’ নিয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে অনেকটা মজার ছলে স্মিথ বলেন, ‘বেয়ারস্টো আমাকে কিছু বলেনি। বল কোথায় তা জানতাম না আমি। বল ধরার ভঙ্গি করে আমাকে মাটিতে ফেলল। আমার পোশাকেও ময়লা লাগাল।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এর নিয়মে বলা আছে, নকল ফিল্ডিং করলে প্রতিপক্ষ দলকে পাঁচ রান অতিরিক্ত দেওয়া হবে। যদিও বেয়ারস্টোর করা এমন কাণ্ডে দুই আম্পায়ার মরিস এরাসমাস ও কুমার ধর্মসেনা অতিরিক্ত রান দেননি অস্ট্রেলিয়াকে।

স্মিথকে এভাবে বোকা বানালেও তার অনবদ্য ব্যাটিংকে বেঁধে ফেলতে ব্যর্থ স্বাগতিক ইংল্যান্ড। আরও একবার তিনি অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের সেরা ব্যাটসম্যান। চলমান টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে স্মিথ শতরান না পেলেও খেলেছেন ৮০ রানের অনবদ্য এক ইনিংস। স্মিথের ব্যাটের উপর ভর করেই অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে স্কোরবোর্ডে তুলছে ২৯৪ রান।

[ভিডিও দেখুন এখানে]

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

তিন বিভাগে টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের সেরা ৫ ক্রিকেটার

ফুটবলারদের ‘ক্রিকেটের’ গল্প শুনিয়ে অনুপ্রাণিত করছেন জেমি ডে

ওয়েডের ‘মাথার খুলি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিল’ আর্চার!

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ

সমতায় শেষ হলো অ্যাশেজ, ট্রফি গেল অস্ট্রেলিয়ায়