Scores

বোলারদের নৈপুণ্যে দিল্লীর দুর্দান্ত জয়

আইপিএলে নিজেদের পঞ্চম জয় পেয়েছে দিল্লী ক্যাপিটালস। ব্যাটসম্যানরা গড়ে দেওয়া ১৫৫ রানের মাঝারি পুঁজি নিয়েই দলকে ৩৯ রানের জয় এনে দিয়েছে দিল্লী ক্যাপিটালসের বোলাররা। ক্রিস মরিস, কাগিসো রাবাদা আর কিমো পলের তোপে পড়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ অলআউট হয়েছে ১১৬ রানে।  

বোলারদের নৈপুণ্যে দিল্লীর জয়

শুরু থেকে দ্রুত উইকেট তুলতে না পারলেও নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ব্যাটসম্যানদের আটকে রাখে দিল্লী ক্যাপিটালসের বোলাররা। তাদের দারুণ বোলিংয়ে ধীরে ধীরে বেড়ে যায় রান আর বলের ব্যবধান।

Also Read - ত্রিদেশীয় সিরিজের পর চূড়ান্ত হবে বিশ্বকাপ স্কোয়াড


১৫৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দুই ওপেনার জনি বেয়ারস্টো আর ডেভিড ওয়ার্নার খেলছিলেন দৃঢ়তার সাথে। পাওয়ারপ্লের ছয় ওভারে রান হয় বিনা উইকেটে ৪০। এ উদ্বোধনী জুটি সংগ্রহ করে ৭২ রান। দশম ওভারে উইন্ডিজ বোলার কিমো পলের বলে চড়াও হতে গিয়ে কাগিসো রাবাদার হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান জনি বেয়ারস্টো। ৫ চার আর ১ ছক্কা হাঁকানো জনি বেয়ারস্টো করেন ৩১ বলে ৪১ রান।

নিজের পরের ওভারে ফের আঘাত হানেন কিমো পল। উড়িয়ে মারতে গিয়ে ৩ রান করে ক্যাচ আউট হন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। এবারও ক্যাচ ধরেন কাগিসো রাবাদা। কিমো পলের দুই ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে আরো চেপে ধরে দিল্লী ক্যাপিটালসের বোলাররা।

ডেভিড ওয়ার্নারকে বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারেননি রিকি ভুই। ১২ বলে ৭ রান করে কিমো পলের তৃতীয় শিকার হন তিনি। তখন দলীয় সংগ্রহ ১০১। পরের ওভারে সানরাইজার্স হায়দরবাদের আশার আলো হয়ে টিকে থাকা ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারও বিদায় নেন। অর্ধশতক তোলা ওয়ার্নার ৫১ করেন ৪৭ বল থেকে। কাগিসো রাবাদার বলে আউট হন তিনি। পরের বলে বিজয় শঙ্করের উইকেট নিয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন কাগিসো রাবাদা। ইনিংসের ১৭তম ওভারটিতে রান হয় মাত্র ৪।

শেষ তিন ওভারে প্রয়োজন ছিল ৪৮ রান। যে বিধ্বংসী ব্যাটিং এ ধরণের পরিস্থিতিতে প্রয়োজন তা কেউ দেখাতে পারেনি। ক্রিস মরিস এক ওভারে চার রান দিয়ে তিন উইকেট নিলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের পরাজয় সময়ের ব্যাপার হয়ে উঠে। দীপক হুদা ও রশিদ খানকে যথাক্রমে ওভারের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে ফিরিয়ে দেন ক্রিস মরিস। শেষ বলে তুলে নেন অভিষেক শর্মার উইকেট।

পরের ওভারেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ইনিংসের ইতি টানেন কাগিসো রাবাদা। চতুর্থ বলে নিজেই ক্যাচ নিয়ে ফেরান ভুবনেশ্বর কুমারকে। পরের বলে ইয়োর্কার দিয়ে বোল্ড করেন খলিল আহমেদকে। সেটি ছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কফিনে শেষ পেরেক।  শেষ ১০ রানে ৭ উইকেট হারিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ২২ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে দিল্লী ক্যাপিটালসের সেরা বোলার কাগিসো রাবাদা।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করে দিল্লী ক্যাপিটালস। শুরুটা তেমন ভালো হয়নি তাদের। দ্বিতীয় ওভারেই বিদায় নিয়েছিলেন ওপেনার পৃথ্বী শ্ব। মাত্র ৪ রান করে ফিরে যান খলিল আহমেদের বলে। নিজের পরের ওভারে এসে শিখর ধাওয়ানের উইকেটও তুলে নেন এ পেসার। দ্রুত দুই ওপেনারকে হারানোর পর দিল্লী ক্যাপিটালস ঘুরে দাঁড়ায় কলিন মানরো আর শ্রেয়াস আইয়ারের ব্যাটে। শ্রেয়াস আইয়ারের সাথে ৪৯ রানের জুটি গড়েন কলিন মানরো। ২৪ বলে ৪০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অভিষেক শর্মার বলে আউট হন তিনি।

এরপর শ্রেয়াস আইয়ার হাল ধরেন রিশাভ পান্টকে নিয়ে। যোগ করেন ৫৬ রান। ৪৫ রান করে ভুবনেশ্বর কুমারের শিকার হন শ্রেয়াস আইয়ার। পরের ওভার রিশাভ পান্টকে নিজের তৃতীয় শিকারে পরিণত করেন খলিল আহমেদ। ১৯ বলে ২৩ রান করেন তিনি। এরপর রশিদ খানের বলে বোল্ড হন ক্রিস মরিস (৪)। অক্ষর প্যাটলের অপরাজিত ১১ বলে ১৪ রান ছাড়া শেষে অন্যরা তেমন অবদান রাখতে পারেনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : দিল্লী ক্যাপিটালস ১৫৫/৬, ২০ ওভার
শ্রেয়াস ৪৫, মানরো ৪০, রিশাভ ২৩, অক্ষর ১৪*
খলিল ৩/৩০, ভুবনেশ্বর ২/৩৩

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ১১৬/১০, ১৮.৫ ওভার
ওয়ার্নার ৫১, বেয়ারস্টো ৪১,  রিকি ৭
রাবাদা ৪/২২, পল ৩/১৭, মরিস ৩/২২


আরো পড়ুন: সুপার লিগ মাতাতে আসলেন ওঝা


 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

টম মুডির কপাল পোড়ালেন ট্রেভর বেইলিস

বিশ্বকাপজয়ী কোচকে এবার দেখা যাবে ভারতে!

ক্যালিস-কেকেআরের ৯ বছরের সম্পর্ক বিচ্ছেদ

বিশ্বকাপ সেমিফাইনালের থেকে আইপিএল ফাইনাল বড়!

আন্তর্জাতিক ও আইপিএল থেকে অবসর নিলেন যুবরাজ