Scores

‘ব্যাকআপের’ ভাবনা থেকেই স্কোয়াডে তাসকিনরা

আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে যুক্ত হলেও তাসকিন আহমেদ, ফরহাদ রেজাদের জন্য বিশ্বকাপের দরজা প্রশস্ত হয়নি এখনো। কেননা স্কোয়াডের অনাকাঙ্ক্ষিত বিপদ তথা চোট হানা দিলে সেই সমাধানের জন্যই তাদের রাখা হয়েছে দলের সাথে।

‘ব্যাকআপের’ ভাবনা থেকেই স্কোয়াডে তাসকিনরা
মুস্তাফিজ-রুবেল-সাইফউদ্দিনরা ফিট থাকলে ত্রিদেশীয় সিরিজে একাদশে থাকার সুযোগ না-ও পেতে পারেন তাসকিনরা। ফাইল ছবি

বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে ৪ থেকে ৫টি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। তিন পেসার রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ফিটনেস নেই পুরোপুরি। তাছাড়া বিশ্বকাপের আগে বড় একটি সিরিজ খেললে থাকছে চোটে পড়ার আশঙ্কা। এসব ভাবনা থেকেই আয়ারল্যান্ড সফরে যাবে ১৯ সদস্যের বিশাল বহর।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফির ভাষ্য, ‘আমার এই সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই। কোচ যেটা বললেন- অতিরিক্ত পেসার সাথে রাখা যাতে ওরকম কন্ডিশনে ওদের অভ্যাস হয়। আল্লাহ না করুক, যদি কোনো সমস্যা হয় (কেউ ইনজুরিতে পড়ে) তাহলে ওরা এখানে (বাংলাদেশে) কী অনুশীলন করবে, বা ইংল্যান্ডের কন্ডিশনের সাথে খাপ খাওয়ানোর সময়ও তো পাবে না।’

Also Read - বোর্ড সভাপতির ফোন পেয়েও আসেননি সাকিব


ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে থাকলে আয়ারল্যান্ডে ম্যাচ না খেললেও অনুশীলনের সুযোগ অন্তত পাওয়া যাবে। তাতে ইংল্যান্ডের কন্ডিশন সম্পর্কে খানিক ধারণা লাভের সুযোগও আছে। যদি ব্যাকআপ হিসেবে কাউকে ইংল্যান্ডে যেতেই হয়, তাহলে অনভ্যস্ততা যেন খুব বেশি কাবু না করে ফেলে এজন্যই টিম ম্যানেজমেন্টের এই বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত বলে জানালেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’।

‘বিশ্বকাপ স্কোয়াডের কারও সমস্যা হলে সে যাতে সরাসরি দলে যেতে পারে এসব চিন্তা করেই হয়ত ২-১ জন খেলোয়াড় আয়ারল্যান্ড সিরিজে অতিরিক্ত নেওয়া হয়েছে। যেহেতু পেস বোলারের ব্যাকআপ নেই… ফাইনাল খেললে মোট ৫টা ম্যাচ খেলতে হবে। এত ম্যাচ খেললে যেকোনো অঘটন (ইনজুরি) ক্রিকেটে ঘটতেই পারে।’

‘আমাদের এটা নিশ্চিত করতে হবে- আমাদের ব্যাকআপ আছে এবং ওরকম কন্ডিশনে প্র্যাকটিস করে প্রস্তুত আছে। তাই আমি মনে করি আয়ারল্যান্ড সফরে অতিরিক্ত খেলোয়াড় নেওয়া খারাপ কিছু না। এ কারণে অন্যান্য পেস বোলারদের ধাঁধায় পড়ার কারণও দেখছি না।’- বলেন তিনি।

মাশরাফির মতে, বাংলাদেশে অনুশীলন করে সোজা ইংল্যান্ডে গিয়ে বিশ্বকাপ খেলা কঠিনই হবে। তাই আয়ারল্যান্ড সফরে গেলে টাইগারদের ইংল্যান্ড কন্ডিশনের জড়তাও কেটে যেতে পারে অনেকটা। মাশরাফির মতে, ‘আমাদের কন্ডিশন, প্র্যাকটিস সুবিধাদি থেকে হুট করে গিয়ে ইংল্যান্ডে খাপ খাওয়ানো যে কারও জন্যই কঠিন হবে।’

ইয়াসির আলী। ফাইল ছবি

এদিকে বিশ্বকাপ দলে নেই কিন্তু আয়ারল্যান্ড সফরের দলে আছেন এমন ক্রিকেটার মোট চারজন। দুজন হলেন স্কোয়াডে প্রথম থেকেই থাকা অফ স্পিনার নাঈম ইসলাম ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী এবং অপর দুজন হলেও শেষদিকে এসে অন্তর্ভুক্ত হওয়া পেসার তাসকিন আহমেদ ও পেস বোলিং অলরাউন্ডার ফরহাদ রেজা। তাদের প্রশংসা করে মাশরাফি জানিয়েছেন বিশ্বকাপের বাইরে থাকা এই ক্রিকেটারদের উপর নিজের আস্থা।

মাশরাফি বলেন, ‘তারা স্কোয়াডে এসেছে মানে তাদের প্রতি সবার আস্থা আছে। ইয়াসির বেশ কিছুদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলছে। বিপিএলে ভালো বোলিং অ্যাটাকের বিরুদ্ধে ভালো ব্যাট করেছে, দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেছে, ঢাকা লিগে ভালো শুরু করেছিল। ফরহাদ রেজাও ভালো করেছে। তাসকিন চোটের কারণে আগের সিরিজ খেলেনি, নিউজিল্যান্ড গেলে এখন পথটা এত কঠিন হতো না। নাঈমও আছে।’

তরুণ ক্রিকেটার নাঈম হাসান। ফাইল ছবি: বিডিক্রিকটাইম
তরুণ ক্রিকেটার নাঈম হাসান। ফাইল ছবি: বিডিক্রিকটাইম

দুই তরুণ ক্রিকেটার নাঈম ও ইয়াসিরকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ আখ্যা দিয়ে মাশরাফি আরও বলেন, ‘এরা সবাই বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ। একসময় দেশের ক্রিকেটকে নেতৃত্ব দেবে। প্রক্রিয়াটা কেবল শুরু হল, নাঈম-ইয়াসির ওরা তো নতুন। আশা করি আয়ারল্যান্ডের কন্ডিশন তাদের ক্রিকেটীয় ক্যারিয়ারে বড় অভিজ্ঞতা হবে।’

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সুপার ওভারের কথা জানাই ছিল না বোল্টের!

ক্রিকইনফোর বিশ্বকাপ-সেরা মুহূর্তে ‘সুপারম্যান সাকিব’

দুই ফাইনালিস্ট থেকে তিনজন করে রেখে ক্রিকইনফোর বিশ্বকাপ একাদশ

ফাইনালে বিতর্কিত ‘৬’ রান নিয়ে মুখ খুলল আইসিসি

ফাইনালের পর একসাথে মদ পান করেছেন মরগান ও উইলিয়ামসন