ব্যাক-আপ পরিকল্পনাতেই প্রাথমিক দলে ছিলেন ইমরুল

ইমরুল কায়েসকে ওয়ানডের মূল স্কোয়াডে না রাখায় বারংবার প্রশ্ন শুনতে হচ্ছে নির্বাচক প্যানেলকে। এতে কিছুটা বিরক্ত জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। ইমরুলকে প্রাথমিক স্কোয়াডে রাখার কারণও খোলাসা করেছেন তিনি।

ইমরুলকে নিয়ে এত প্রশ্ন কেন- পাল্টা প্রশ্ন নান্নুর

Advertisment

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রাথমিক স্কোয়াডে ছিলেন ইমরুল। মূল স্কোয়াডে অবশ্য আর জায়গা হয়নি। বাংলাদেশের জার্সিতে ইমরুল সর্বশেষ খেলেছেন ২০১৯ সালের নভেম্বরে, ভারতের বিপক্ষে টেস্টে। সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে।

ইমরুলের মত সিনিয়র ক্রিকেটারের সুযোগ না পাওয়ার কারণ জানতে চাইলে নান্নু বিডিক্রিকটাইমকে বলেন, “ইমরুলকে নিয়ে আপনারা কী ভাবছেন? এত প্রশ্ন, এত আলোচনা কেন? ও তো ২০১৮ সালের পর থেকেই নেই।”

‘এ’ দলের ব্যস্ততা না থাকায় পরিকল্পনায় ইমরুলকে প্রাথমিক দলে নেওয়া হয়েছিল, সরাসরি না বললেও এমনই আভাস নান্নুর।

তিনি বলেন, “দলের লিস্ট লম্বা আমি তো করতেই পারি। ৩০ জনের তালিকা আমি করি সবসময়ই। যেহেতু আমাদের ‘এ’ দলের কোনো খেলা নেই, তাই আমাদের কিছু খেলোয়াড় তৈরি রাখতে হবে। সামনে তো অনেক খেলা, পর্যাপ্ত খেলোয়াড় না থাকলে অসুবিধা।”

প্রাথমিক স্কোয়াড যখন ঘোষণা করা হয় তখন টেস্ট দল ছিল শ্রীলঙ্কা সফরে। টেস্ট ও ওয়ানডে উভয় দলে যারা আছেন, তাদের ছাড়াই শুরু হয় অনানুষ্ঠানিক প্রস্তুতি। প্রধান নির্বাচক জানান ব্যাক-আপ পরিকল্পনাতেই তাই করা হয় লম্বা লিস্ট।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “এই কোভিড সিচুয়েশনে বায়োবাবলে রেখে খেলোয়াড়দের খেলানো অনেক কষ্টকর। আল্লাহ না করুক, কেউ অসুস্থ হলে কী করবো? তখন এই লম্বা তালিকা কাজে লাগবে। কারণ বলা যায় না কাকে কখন দরকার হয়। সেজন্য এরকম করছি আমরা।”