Scores

ব্যাটিং ধ্বস বাংলাদেশের, ফাইনালে শ্রীলঙ্কা

আগের তিন ম্যচ জিতে সবার আগে ফাইনাল নিশ্চিত করেছিলো বাংলাদেশ। নিজেদের চতুর্থ ম্যাচ ছিল কেবলই মান রক্ষার ম্যাচ। নিজেদের জন্য মান রক্ষার ম্যাচ হলেও টুর্নামেন্টে টিকে থাকার ম্যাচ ছিল শ্রীলঙ্কার জন্য। কেননা এই ম্যাচ বাংলাদেশের কাছে বড় ব্যবধানে হারলে বাদ পড়তে হতো যে নিজেদেরই। কিন্তু সেই সুযোগ দিবেই বা কেন শ্রীলঙ্কা?

ব্যাটিং ধ্বস বাংলাদেশের, ফাইনাল নিশ্চিত শ্রীলঙ্কার

মান রক্ষার ম্যাচে নিজেদের মানটা আর রাখলোই কই স্বাগতিক বাংলাদেশ? চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কাকে আগের ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারলেও এই ম্যাচে যেন খুঁজেই পাওয়া গেলো না ধারাবাহিক বাংলাদেশকে। মান রক্ষার ম্যাচে লঙ্কানদের কাছে ৮২ রানেই অল-আউট স্বাগতিক বাংলাদেশ!  ম্যাচের শুরু থেকেই ছন্নছাড়া মনে হয়েছে ব্যাটসম্যানদের।

Also Read - রাজ্জাক-তুষারকে মাশরাফিদের সম্মাননা


আগেরদিন বাংলাদেশ দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর তো বলেই দিয়েছিলেন সবকটি ম্যাচ জিততে চায় বাংলাদেশ। তাছাড়া ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা তিন ম্যাচ জিতেও নিজেদের বড় দল ভাবতে নারাজ ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। কারণ হিসেবে দেখিয়েছিলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সাকিব-তামিমের বিদায়ের পর মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দলের হাল না ধরা।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই কথাটাই যেন সত্যি করলো বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানরা। টসে জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা শুরু থেকেই ছিলেন ছন্নছাড়া। আগের ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও কোন রান না করেই সাজঘরে ফিরেন এনামুল হক বিজয়। শুরুটা দারুণ করলেও দুর্ভাগ্যবশত রান আউটের শিকার হয়েছেন সাকিব আল হাসানকে (৮)।

পুরো ত্রিদেশীয় সিরিজে ফর্মে থাকা তামিমও এইদিন ছিলেন নিশ্চুপ। লাকমলের বলে দারুণ এক ক্যাচ ধরে ৫ রান করা তামিমকে সাজঘরে ফিরান গুনাথিলাকা। সাকিব-তামিমের ব্যর্থতার দিনে নিজেদের বড় দল ভাবার সুবর্ণ সুযোগ মিডল অর্ডাররা পেলেও ব্যর্থ হন সবাই। এক মুশফিক  বাদে বাকি সবাই ছিলেন আসা যাওয়ার মিছিলে। দলের বিপদে রান তুলতে ব্যর্থ রিয়াদ, সাব্বির, নাসির, মাশরাফি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ২৬ রান করেন উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিম।

বাংলাদেশের দেওয়া টার্গেট যেন হেসে-খেলেই জিতে গেলো হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কা। অল্প রানের টার্গেটে বেশি বেগ পেতে হয়নি লঙ্কানদের। কোন উইকেট না হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় লঙ্কানরা। শ্রীলঙ্কার হয়ে অপরাজিত ৩৯ রান করেন থারাঙ্গা এবং ৩৫ করেন গুনাথিলাকা।  এই জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করলো শ্রীলঙ্কা এই ক্ষেত্রে বাদ পড়তে হলো জিম্বাবুয়ের। আগামী ২৭ জানুয়ারি বাংলাদেশের বিপক্ষে ফাইনালে লড়বে শ্রীলঙ্কা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বাংলাদেশ ৮২ (ওভার ২৪)

মুশফিক ২৬, সাব্বির ১০ঃ লাকমাল ৩-২১

শ্রীলঙ্কা  ৮৩/০ (ওভার ১১.৫)

থারাঙ্গা ৩৯*, গুনাথিলাকা ৩৫*

ফলাফলঃ ১০ উইকেটে জয়ী শ্রীলঙ্কা।

আরও পড়ুনঃরাজ্জাক-তুষারকে মাশরাফিদের সম্মাননা

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ডায়নামাইটসের হয়ে বিপিএল খেলতে ঢাকায় উপুল থারাঙ্গা

বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের ম্যাচে বৃষ্টির হানা

সানজামুলের জোড়া আঘাতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে শ্রীলঙ্কা

আত্মবিশ্বাসী শ্রীলঙ্কা দল

ত্রিদেশীয় সিরিজের শীর্ষ তিন