বড় ছক্কা মারতে কি লাগে?

0
532

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাট টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দলের পরিসংখ্যান পক্ষে কথা বলে না। মারকাটারি ব্যাটিংয়ে অন্যদের থেকে ঢের পিছিয়ে টাইগাররা। যেখানে অন্যান্য দেশের ক্রিকেটাররা টেকনিক আর স্কিলকে গুরুত্ব দিচ্ছেন, সেখানে শুধু পারফর্ম করাকে মোক্ষম মনে করছেন লিটন দাসরা। সাথে অনেকেই দুষছেন শারীরিক গঠনকে।

Advertisment

বিপিএলের চলতি মৌসুমে নিজের প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের অধিনায়ক দাসুন শানাকা। মাত্র ৩৫ বলে খেলেছিলেন হার না মানা ৭৫ রানের দানবীয় ইনিংস। যেখানে ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন ৯টি। যার দুইটি আবার আছড়ে পড়েছিলো স্টেডিয়ামের বাইরে। ম্যাচ শেষে শ্রীলঙ্কান এই ব্যাটসম্যান বলেছিলেন, ‘এটা শুধু পাওয়ার নয়, টেকনিকের উপরও নির্ভর করে। দেখুন আমি কিন্তু শারীরিকভাবে খুব বড়সড় নই (হাসি)। স্কিল আর টেকনিক লাগে ছক্কা মারতে।’

অথচ দিন কয়েক আগে বাংলাদেশ দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দুষলেন নিজেদের ফিটনেসকে। বড় শটস খেলার জন্য নিজেদের শারীরিক গঠন ক্রিস গেইল বা আন্দ্রে রাসেলদের মত নয় বলে জানালেন তিনি। এবার বাংলাদেশ জাতীয় দলের আরেক ক্রিকেটার যেন আরো এক কাঠি সরেস। রান করার বা বড় শটস খেলার জন্য টেকনিক বা স্কিলকে গুরুত্ব দিতে একেবারে নারাজ লিটন।

নিয়মিত রান করে একদশে জায়গা ধরে রাখাটাই এখন ক্রিকেটাদের চ্যালেঞ্জ বলে জানান তিনি। বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্ব শুরুর আগে আজ (সোমবার) অনুশীলন শেষে লিটন বলেন, ‘টেকনিক আসলে এতো কিছু না, পারফর্ম করলে সব ঠিক। পারফর্ম না করতে পারলে কী আমার টেকনিক থাকলে খেলবো! খেলবো তো না।’

‘টেকনিক নিয়ে কেউ প্রত্যাশা করে না। আপনি কি করেন? লিটনের টেকনিক ভালো হবে প্রতি ম্যাচ খেলাবো। এমন চিন্তা তো করেন না। চিন্তা করেন পারফর্ম কবে করবে। আমি চিন্তা করি টেকনিকটা একটা জায়গায় থাকবে, তবে পারফর্মটা হবে মূল।’ সাথে যোগ করেন তিনি।

গতবার বিপিএলে ব্যাট হাতে খুব বেশি ছন্দে ছিলেন না লিটন। এবার রাজশাহী রয়্যালসের জার্সি গায়ে চাপিয়ে শুরুর দুই ম্যাচে করেছেন ৮৩ রান। টুর্নামেন্ট শেষে গতবার রান না পাওয়ার আক্ষেপ এবার ভুলাতে পারবেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান? গণমাধ্যমকে চাঁচাছোলা জবাব লিটনের, ‘আমিতো পিছনের জিনিস নিয়ে চিন্তা করতেছি না। আপনারাই পিছনের জিনিস চিন্তা করাইতেছেন।’