Scores

বড় জয়ে সিরিজ শুরু করল বাংলাদেশ

উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম একদিনের ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। উইন্ডিজের দেয়া ১৯৬ রানের টার্গেট ৫ উইকেট আর ৮৯ বল হাতে রেখেই জিতে যায় টাইগাররা। 

 

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিবা-রাত্রির ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন উইন্ডিজের নতুন অধিনায়ক রভম্যান পাওয়েল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ একদিনের ম্যাচ থেকে বাংলাদেশ একাদশে ৫টি পরিবর্তন হয়েছে। ফিরেছেন-সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং রুবেল হোসেন। অন্যদিকে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, আবু হায়দার রনি ও আরিফুল হক।  এদিকে ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ একদিনের ম্যাচ থেকে উইন্ডিজ একাদশে হয়েছে দুইটি পরিবর্তন। জেসন হোল্ডার ও  ফাবিয়ান অ্যালেনের জায়গায় ফিরেছেন ড্যারেন ব্রাভো আর রস্টন চেজ।

Also Read - স্বাগতিক পাকিস্তানকে উড়িয়ে সেমিতে বাংলাদেশ


আগে ব্যটিং নেয়া উইন্ডিজ অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে যথার্থ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হোন ব্যাটসম্যানরা। শুরু থেকেই চাপে থাকে উইন্ডিজ। দলীয় ২৯ রানে প্রথম আঘাত হানেন দলে ফেরা সাকিব আল হাসান। এরপর ধীরে ব্যাটিং করে সফরকারীরা। রানের গতি কমে যাওয়ায় চাপ বেড়ে যায় ব্যাটসম্যানদের উপর। শট খেলতে গিয়ে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় উইন্ডিজ। সর্বোচ্চ জুটি ছিল সপ্তম উইকেটে। রস্টন চেজ আর কেমো পল মিলে ৫১ রানের জুটি গড়েন। এছাড়া তেমন বলার মতো জুটি গড়তে ব্যর্থ হয় উইন্ডিজের ব্যাটসম্যানের। যার ফলে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৯৫ রান তোলে উইন্ডিজ।

 

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ওপেনার শাই হোপ। এছাড়া শেষের দিকে কেমো পল ৩৬ ও রস্টন চেজ ৩২ রান করেন। বাংলাদেশের পক্ষে অধিনায়ক মাশরাফি ১০ ওভার বোলিং করে ৩০ রানে নেন তিনটি উইকেট। এছাড়া মুস্তাফিজ ৩৫ রানে তিনটি, সাকিব,মিরাজ ও রুবেল একটি করে উইকেট নেন।

মাঝারি টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৩৭ রানে ইনজুরি থেকে ফেরা তামিম ইকবালকে হারায় বাংলাদেশ। ২৪ বলে ১২ রান করেন তামিম। জিম্বাবুয়ে সিরিজের নায়ক ইমরুল কায়েস দ্রুতই বিদায় নেন। ২ বলে ৪ রান করেন কায়েস। এরপর আরেক ওপেনার লিটনের সাথে ৪৭ রানের জুটি গড়ে তোলেন ভরসার প্রতিক মুশফিকুর রহিম।

৫৭ বলে ৫ চারে ৪১ রানে লিটনের আউটের পর মুশফিকুর রহিমের সাথে জুটি বাঁধেন সাকিব আল হাসান। উইকেটে এসে সময় নষ্ট না করে দ্রুত রান করতে থাকেন সাকিব। পাশাপাশি মুশফিকের সাথে ম্যাচের সবচেয়ে বড় ৫৭ রানের জুটি গড়ে তোলেন। ২৬ বলে ৪ চারে ৩০ রান করে অধিনায়ক পাওয়েলের বলে উইকেট রক্ষক শাই হোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন সাকিব। তবে মুশফিক তুলে নেন অর্ধশতক। ৫৯ বলে একদিনের ক্যারিয়ারের ৩১তম অর্ধশতকের দেখা পান মুশফিক।

৩৫.১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। মুশফিক ৭০ বলে ৫৫ ও রিয়াদ ২১ বলে ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন।  টেস্টে সিরিজে ২-০ তে জয়ের পরে ওয়ানডেতে ১-০ তে এগিয়ে গেলো বাংলাদেশ। সিরিজের পরবর্তি ম্যাচে ১১ ডিসেম্বর।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
উইন্ডিজঃ ১৯৫/৯ (৫০ ওভার)
শাই হোপ ৪৩, পল ৩৬, চেজ ৩২
মাশরাফি ৩/৩০, মুস্তাফিজ ৩/৩৫
বাংলাদেশঃ ১৯৬/৫ (৩৫.১ ওভার)
মুশফিক ৫৫*, লিটন ৪১, সাকিব ৩০, সৌম্য ১৯, রিয়াদ ১৪*, তামিম ১২, কায়েস ৪
চেজ ২/৪৭

ফলাফলঃ বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরাঃ মাশরাফি বিন মুর্তজা। 

[আরও পড়ুনঃ স্বাগতিক পাকিস্তানকে উড়িয়ে সেমিতে বাংলাদেশ]

 

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

লাইভ: সৌম্য-তামিমে শুভ সূচনা বাংলাদেশের

টস জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

মুশফিককে নিয়ে দুর্ভাবনা নেই

“ধারাভাষ্যকারদের কথা শুনে উইকেট বোঝা সহজ নয়”

নিজেদের আন্ডারডগ ভাবতে আপত্তি নেই হোল্ডারের