ভারতকে রুখে দিল আফগানরা

আফগানিস্তানের আরো একটি রোমাঞ্চকর ম্যাচ। গত দুই ম্যাচের মতো ভারতের বিপক্ষেও শেষ ওভার পর্যন্ত লড়াই করল আফগানিস্তান। পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বিপক্ষে হারলেও ভারতকে রুখে দিয়েছে তারা। ম্যাচ শেষ হয়েছে টাই হয়ে।

ভারতকে রুখে দিল আফগানরা।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ঝড় তুলেন আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ।  এক প্রান্তে মোহাম্মদ শাহজাদ ঝড় তুললেও অপর প্রান্তে মন্থর গতিতে ব্যাটিং করছিলেন ইহসানউল্লাহ জানাতের বদলে সুযোগ পাওয়া আরেক ওপেনার জাভেদ আহমাদি। শুরু থেকেই ভারতের বোলারদের ওপর শাহজাদ চড়াও হলেও জাভেদ আহমাদি ছিলেন খোলসবন্দী।

Also Read - দারুণ লড়াইয়ের অপেক্ষায় রোডস

দলীয় ৬৫ রানের মাথায় রবিন্দ্র জাদেজার শিকার হন জাভেদ আহমাদি। ৩০ বলে ৫ রান করে স্টাম্পিং হন জাভেদ। এসেই বিদায় নেন রহমত শাহ। নিজের পরের ওভারে রহমত শাহকে বোল্ড করেন জাদেজা। ৩ রনা করে সাজঘরে ফিরে যান রহমত। পরের ওভারে হাসমতউল্লাহ শাহিদী ফিরে যান রানের খাতা খোলার আগেই। কুলদীপ যাদবের বলে স্টাম্পিং হয়ে যান গত তিন ম্যাচে টানা তিন অর্ধশতক হাঁকানো ব্যাটসম্যান।

৮২ রানে চার উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারায় চলে যায় আফগানিস্তান। একাকী সৈনিকের মতো লড়ছিলেন শাহজাদ। প্র। চতুর্থ উইকেটে নাইবকে নিয়ে ৫০ রান যোগ করেন শাহজাদ। এক পাশ আগলে রাখেন নাইব। অন্য পাশে রানের চাকা সচল রাখেন শাহজাদ। মাত্র ৮৮ বলেই শাহজাদ তুলে নেন শতক। গুলদাবিন নাইবও রান তুলেন ধীরলয়ে। দীপক চাহারের শিকার হওয়া নাইব ৪৬ বল খেলে করেন মাত্র ১৫।

এরপর মোহাম্মদ নবীকে নিয়ে ৪৮ রান যোগ করেন শাহজাদ। দলীয় ১৮০ রানের মাথায় কেদার যাদবের শিকার হন শাহজাদ। সমাপ্তি ঘটে তার ১১৬ বলে ১২৪ রানের ইনিংসের। দলের ১৮০ রানের মধ্যে ১২৪ রানই ছিল তার। ১২৪ রানের মধ্যে ৮৬ রানই নেন বাউন্ডারি থেকে। ১১ টি চার ও ৭ টি ছক্কা হাঁকান শাহজাদ।

শেষদিকে ঝড় তুলেন মোহাম্মদ নবি। নাজিবুল্লাহ জাদরানকে নিয়ে তুলেন ৪৬ রান। ২০ বলে ২০ রানের ইনিংস খেলে জাদেজার শিকার হন নাজিবুল্লাহ। ৬৪ রানের ইনিংস খেলে খলিল আহমেদের বলে বিদায় নেন নবি। ৩ চার ও ৪ ছক্কায় সাজানো এ ইনিংস খেলতে তিনি মোকাবেলা করেন ৫৬ বল। শেষদিকে রশিদ খান করেন ১৯ বলে ১২। ৮ উইকেটে ২৫২ রান করতে সক্ষম হয় আফগানিস্তান।

জবাবে শুরুটা ভালোই হয় ভারতের। দুই নিয়মিত ওপেনার রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়নাকে দেওয়া হয় বিশ্রাম। ইনিংস সূচনা করেন লোকেশ রাহুল আর আম্বাতি রাইডু। উদ্বোধনী জুটিতেই ১১০ রান তুলে ফেলে ভারত। তাদের এ জুটিতে লক্ষ্য সহজ হয়ে যায় ভারতের জন্য। মোহাম্মদ নবিকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বিদায় নেন রাইডু। ৪ চার আর ৪ ছক্কায় ৪৯ বলে ৫৭ রানের মারকুটে ইনিংস খেলে বিদায় নেন তিনি।

প্রথম উইকেটের পতনের পর রানের চাকার গতিও কমে আসে। রাইডুর বিদায়ের পর বেশিক্ষণ টিকেননি লোকেশ রাহুল।  রশিদ খানের বলে ১২৭ রানের সময় এলবিডব্লিউ হন লোকেশ। ৬৬ বলে ৬০ রান করেন তিনি।

নিস্প্রভ ছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। অধিনায়ক হিসেবে ২০০ তম ওয়ানডে খেলতে নামা ধোনি ৮ রান করে শিকার হন জাভেদ আহমাদির। তবে অ্যাকশন রিপ্লাইতে দেখা গিয়েছে বলটি লেগ স্টাম্প মিস করেছে। লোকেশ রাহুল রিভিউ নষ্ট করায় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ধোনিকে।  ৮ রান করে ফিরে যান মনিশ পান্ডেও। আফতাব আলমের বলে মনিশ ক্যাচ দেন উইকেটরক্ষককে।  কেদার যাদব থিতু হলেও ২৬ বলে ১৯ রান করে বিদায় নেন রান আউট হয়ে। পরের ওভারে দীনেশ কার্তিককে ফিরিয়ে দেন মোহাম্মদ নবি।

৬৬ বলে ৪৪ রান করে বিদায় নেন কার্তিক। ২০৫ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় ভারত। এরপর দীপক চাহারকে নিয়ে হাল ধরেন রবিন্দ্র জাদেজা। ঠান্ডা মাথায় ব্যাটিং করেন জাদেজা। ২২৬ রানের মাথায় চাহারকে বোল্ড করেন আফতাব। ১৪ বলে ১২ রান করেন চাহার। এরপর জাদেজাকে সঙ্গ দেন কুলদীপ যাদব। দুজন মিলে যোগ করেন ১৬ রান।

শেষ দুই ওভারে ভারতের প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। তিন রান নিতে গিয়ে রান আউট হন কুলদীপ। স্ট্রাইকে থাকেন জাদেজা। পরের বলে দুই রান নেন তিনি। তৃতীয় বলে বাউন্সারে ক্যাচ তুলে দিলেও বল রশিদ খানের কাছে পৌঁছানোর আগেই পড়ে যায়। পরের বলে এক রান নিয়ে জাদেজা স্ট্রাইক দেন সিদ্ধার্থ কাউলকে। দ্রুত রনা তুলতে গিয়ে রান আউট হয়ে যান কাউল। দারুণ থ্রোতে স্টাম্প ভাঙেন শাহিদি। পরের বলে এক রান নিয়ে শট্রাইক রেখে দেন জাদেজা।

শেষ ওভারে ৭ রান প্রয়োজন ছিল ভারতের। রশিদ খানের প্রথম বলে সিঙ্গেল নেওয়ার সুযোগ থাকলেও জাদেজা নেননি। সঙ্গে ছিলেন শেষ ব্যাটসম্যান খলিল আহমেদ। পরের বলেই দারুণ শটে চার মেরে ম্যাচ ভারতের জন্য সহজ করে তুলেন জাদেজা। পরের দুই বলে এক করে দুই রান নেয় ভারত।

শেষ দুই বলে দরকার ছিল এক রান। জাদেজা হাওয়ায় ভাসিয়ে মারলে বল চলে যায় নাজিবুল্লাহ জাদরানের হাতে। অলআউট হয়ে যায় ভারত। ম্যাচ হয়ে যায় টাই।

এবারের এশিয়া কাপ এখানেই শেষ আফগানদের। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হারিয়ে সুপার ফোরে উঠে আফগানিস্তান। সুপার ফোরে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের বিপক্ষে দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করলেও পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। অবশেষে ভারতকে রুখে দিয়ে সুপার ফোর থেকে এক পয়েন্ট নিয়ে ফিরল আসগররা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
আফগানিস্তান ২৫২/৮, ৫০ ওভার
শাহজাদ ১২৪, নবি ৬৪, জাদরান ২০
জাদেজা ৩/৪৬, যাদব ২/৩৮

ভারত ২৫২/১০, ৪৯.৫ ওভার
লোকেশ ৬০, রাইডু ৫৭, কার্তিক ৪৪
নবি ২/৪০, রশিদ ২/৪১, আফতাব ২/৫৩


আরো পড়ুনঃ


 

Related Articles

আফগান ক্রিকেটার মুজিবকে নিয়ে বোমা ফাটালেন সাবেক কোচ

যুব এশিয়া কাপের সেমিফাইনাল লাইন-আপ চূড়ান্ত

রেটিং বাড়ল আফগানিস্তান-ভারতের, কমলো পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার

আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগে খেলবেন তাসকিন

ভিডিও: ভারত-আফগান ম্যাচের শেষ বলের রোমাঞ্চ