ভারতে হচ্ছে না টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, নিশ্চিত করল বিসিসিআই

0
575

গুঞ্জন সত্যি করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজিত হতে যাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। বোর্ড অব ক্রিকেট ফর কন্ট্রোল ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) তরফ থেকে সোমবার (২৮ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

Advertisment
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ট্রফি উন্মোচন, খেলবে '১৬' দেশ
এ বছর অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত। ফাইল ছবি

 

এর আগে গত ২৫ জুন ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো ভারত থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সরিয়ে নেওয়ার তথ্য দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেই সময় অবশ্য ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) বা বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে কোনো বিবৃতি দেওয়া হয়নি।

গত ১জুন আইসিসির বার্ষিক সভায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের ব্যাপারে ভারতকে ২৮ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল আইসিসি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ভারত থেকে আমিরাতে বিশ্বকাপ স্থানান্তরের কথা জানিয়ে দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। মূলত, ভারতে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ পরিস্থিতির কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে বিসিসিআই।

এই প্রসঙ্গে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি বলেন, “আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে আইসিসিকে জানিয়ে দিয়েছি, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সংযুক্ত আরব আমিরাতে স্থানান্তরিত হতে যাচ্ছে। এই ব্যাপারে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।”

“সবার স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” যোগ করেন সৌরভ।

এদিকে ক্রিকইনফোর ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে হতে শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তবে বিসিসিআই সচিব অমিত শাহ জানালেন, টুর্নামেন্টের সূচি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

অমিত শাহ জানান, “সূচি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এই মুহূর্তে ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব নয়। আরব আমিরাতে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। খুব শিগগিরই আপনাদের জানানো হবে।”

সূচি চূড়ান্ত না হলেও আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হবে সেটা আগেই জানিয়েছে আইসিসি। মূল পর্বের আগে প্রথম রাউন্ডে আট দল মোট ১২টি ম্যাচ খেলবে। বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড, নামিবিয়া, ওমান, পাপুয়া নিউগিনি- এই আট দল থেকে ৪টি দল খেলবে মূল পর্বে।

প্রথম পর্বের বাঁধা পেরিয়ে আসা ৪টি দলের সাথে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা ৮টি দল সরাসরি খেলবে সুপার টুয়েলভে। সুপার টুয়েলেভে ৬টি করে দল নিয়ে গঠন করে দুইটি গ্রুপ। প্রত্যেক গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুই করে দল খেলবে সেমিফাইনালে এবং এরপর ফাইনালের মধ্য দিয়ে আসরের চ্যাম্পিয়ন নির্ধারিত হবে।