ভারত ছাড়া আর্থিকভাবে অচল আইসিসি!

0
521

সদস্য দেশগুলোর জন্য বরাদ্দ অর্থের পরিমাণ কমানোয় আইসিসির ওপর চটেছে ভারত। ক্রিকেট বিশ্বে সবচেয়ে ধনী বোর্ড বিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি অনুরাগ ঠাকুর দাবি করেছেন, বিসিসিআই ছাড়া ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কোনো প্রাসঙ্গিকতায় নেই।

Advertisment

ভারতের সাথে অর্থ নিয়ে আইসিসির বিরোধ এই প্রথম নেই। এর আগে ২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতের মাঠে হয়েছিল। সেই আসরে আইসিসির পাওনা অর্থ সংস্থাটিকে বুঝিয়ে দিয়েছিল না বিসিসিআই। ফলে পূর্বনির্ধারিত ২০২৩ সালের বিশ্বকাপের ত্রয়োদশ আসর ভারতের মাটিতে আয়োজন করতে না দেয়ার হুমকিও দিয়েছিল আইসিসি। শেষ পর্যন্ত সেই সমস্যা মিটেছে।

কিন্তু এবার চিত্রটা উল্টে গেছে। আইসিসির কাছে থেকে প্রাপ্য অর্থ না পাওয়ার শঙ্কায় খেপেছেন বিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি অনুরাগ। তিনি দাবি করেছেন আইসিসির সিংহভাগ মঞ্জুরিই দিয়ে থাকে ভারত। অঙ্কের হিসাবে যা ৭৫ শতাংশ। কিন্তু সেই অনুযায়ী রাজস্ব থেকে তারা বঞ্চিত হচ্ছে।

অনুরাগের ভাষায়, ‘বিসিসিআই ছাড়া আইসিসির কোনো প্রাসঙ্গিকতায় নেই। কারণ আইসিসির কার্যক্রম চালানোর মোট খরচের ৭৫ শতাংশই ভারত দিয়ে থাকে।’

আইসিসির খরচ এখন বৃদ্ধি পাওয়ায় দলগুলোকে দেয়া রাজস্বের পরিমাণ কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নতুন দুইটি দেশকে সদস্যপদ দেয়া, বিভিন্ন কার্যক্রমের খরচ, আগের তুলনায় বেশি সংখ্যক টুর্নামেন্ট আয়োজন করায় এখন আইসিসির ব্যয়ের পরিমাণ বেড়েছে। আয়-ব্যয়ের সমতা রক্ষা করতে দেশগুলোকে দেয়া রাজস্বের পরিমাণই কমিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। আর এই রাজস্বের পরিমাণ কমানোর ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে ভারতের। তাইতো ক্ষোভটা চেপে রাখতে পারেননি অনুরাগ।

বিসিসিআইয়ের নতুন সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব নেয়া সৌরভ গাঙ্গুলি ইতোমধ্যে জানিয়েছেন, প্রাপ্য অর্থ সঠিকভাবে বুঝে পেতে লড়বে তার বোর্ড। অনুরাগও আশা করছেন সৌরভের নেতৃত্বে আইসিসির সাথে বোঝাপড়া করবে বিসিসিআই।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।