ভিডিওঃ ক্রিকেটের অন্যতম দুর্ভাগ্যজনক আউট

আজকের তামিম ইকবালের আউটটা নিয়েও বেশ আলোচনা চলছে। বিশেষ করে বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকদের মধ্যে। কিন্তু সেই আলোচনার মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রিকেট সমর্থকদের মধ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে আরেকটি অদ্ভূত আউটের ভিডিও। যেটিকে ক্রিকেটের অন্যতম দুর্ভাগ্যজনক আউট বলা হচ্ছে ।

 

Also Read - বিরাট-ধোনিদের বিশ্বকাপের জার্সিতে চমক


ক্রিকেট খেলায় ব্যাটসম্যানরা কত ভাবেই না আউট হন। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের মহিলা ক্রিকেট তারকা কেটি পার্কিন্স যে আউট হয়েছেন সেটি ক্রিকেটের অন্যতম দুর্ভাগ্যজনক আউট বললে মোটেও ভুল বলা হবে না৷ নিউজিল্যান্ডের মহিলা ক্রিকেট তারকা কেটি পার্কিন্স এমনই দুর্ভাগ্যজনক আউটের শিকার হলেন সিডনিতে৷

অস্ট্রেলিয়া গভর্নর জেনারেল একাদশের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ ছিল নিউজিল্যান্ডের নারী ক্রিকেট দলের। ইনিংসের ৪৫তম ওভারে হিথার গ্রাহামের ওভারপিচড বলে স্ট্রেট ড্রাইভ করেন পার্কিন্স। বল সোজা গিয়ে লাগে ননস্ট্রাইক প্রান্তের ব্যাটসম্যান কেটি মার্টিনের ব্যাটে। বলের আঘাতে তার হাতে থাকা ব্যাট ছিটকে পড়ে গেলেও বল উঠে যায় উপরে। হাওয়ায় ভেসে থাকে কিছুক্ষণ। বোলার গ্রাহাম তা অনায়াসে তালুবন্দি করে নেন।

এমন অদ্ভূতভাবে আউট হয়ে পার্কিন্স যতটা না অবাক হলেন, তার চেয়েও বেশি বিস্মিত হলেন বোলার গ্রাহাম। যদিও নিউজিল্যান্ড ১৬৬ রানের বিশাল ব্যবধানে ওই ম্যাচটা জিতে নেয় শেষ পর্যন্ত।

দুর্ভাগ্যজনক ঘটনায় আউট হওয়ার আরো কয়েকটি ঘটনা এর আগেও ঘটেছে, যেমন কয়েকদিন আগেও এমন একটি দুর্ভাগ্যজনক ঘটনায় আউট হয়েছিলেন ব্যাটসম্যান। শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার হিল্টন কার্টরাইট এমনই দুর্ভাগ্যজনকভাবে আউট হয়েছিলেন। নিউ সাউথওয়েলসের জেসন সঙগার বলে পুল করেন কার্টরাইট। শর্ট লেগে ফিল্ডিং করা নিক লার্কিন ডাক করে মাথা বাঁচানোর চেষ্টা করেন। বল ফিল্ডারের হেলমেটে লেগে হাওয়ায় ভেসে থাকলে বোলার জেসনই তা তালুবন্দি করে নেন।

অন্য একটি ঘটনা ঘটে ২০০৬ সালে, মেলবোর্নে শ্রীলঙ্কার জোহান মোবারকের বলে অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের নেওয়া শট ননস্ট্রাইক প্রান্তে মাইকেল ক্লার্কের বুটে লেগে মিডউইকেটে দাঁড়ানো তিলকারত্নে দিলশানের কাছে উড়ে গেলে ক্যাচ ধরেন তিনি। আউট হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় সাইমন্ডসকে।

ভিডিওটি দেখুন এখানেঃ 

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন