Scores

ভুলে যাওয়ার মতো এক সফর লিটনের

নিউজিল্যান্ডে মাটিতে বড় ইনিংস অধরাই থেকে গেল লিটন দাসের কাছে। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে যেভাবে ব্যর্থ হয়েছিলেন এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। এবছরের শুরুটা মোটেও রঙিন হলো না লিটনের। দলে ব্যর্থতা ও সফলতা, উভয় সময়েই ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

ভুলে যাওয়ার মতো এক সফর লিটনের
লিটন দাস

২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে ৩টি ওয়ানডে ম্যাচে ১, ১, ১ করে মোট ৩ রান করেছিলেন লিটন। সেই ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা বজায় রেখেই যেন ২০২১ এ এসেও একই বাজে পারফর্মের পুনরাবৃত্তি করলেন তিনি। বাংলাদেশ দলে যে খুব ভালো খেলেছে তা নয়, তবে এক না একটা ম্যাচে কেউ না কেউ রান করেছেন; সেখানে লিটনের প্রাপ্তির খাতা একেবারে শূন্য। তাছাড়া তাকে নিয়ে আশার পারদটাও ছিল বড়।

এবারের নিউজিল্যান্ড সফরে মোট ৬টি ম্যাচ খেললেন লিটন। ৬ ম্যাচ রান করেছেন ঠিক ৫০। ওয়ানডেতে তিন ম্যাচে করেছিলেন যথাক্রমে ১৯, ০ ও ২১ রান। অর্থাৎ তিন ম্যাচে ৪০ রান৷ প্রত্যাশা যে মোটেও মেটাতে পারেননি তাতো স্পষ্টই!

Also Read - অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত জাতীয় লিগ


টি-টোয়েন্টি সিরিজেও একই অবস্থা। প্রথম দুই ম্যাচে করলেন ৬ ও ৪ রান। এই সিরিজে মোট ৫ ম্যাচ মিলিয়ে কেবল ৫০ রান করা এক ব্যাটসম্যানকেই শেষ ম্যাচে দিয়ে দেওয়া হলো অধিনায়কত্ব। এখানেও চরম হতাশ করলেন লিটন দাস। এবার গোল্ডেন ডাক দিয়েই সফর শেষ করলেন তিনি। পুরো সফরে ৬ ম্যাচে একজন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হয়ে লিটন করেছেন মোট ৫০ রান।

সফরের প্রথম পাঁচ ইনিংসেই ব্যর্থ হয়ে যখন লিটন নিজেকেই হারিয়ে খুঁজছিলেন, সেই চাপের মধ্যেই আবার কাঁধে অধিনায়কত্বের গুরু দায়িত্ব তুলে দেওয়া কতটা যৌক্তিক সেটাও হতে পারে বড় প্রশ্ন। লাল-সবুজের জার্সিতে তার প্রথম অধিনায়কত্বের ম্যাচেই আবার বাংলাদেশ অলআউট হয়েছে মাত্র ৭৪ রানে।

বাংলাদেশ দলই অবশ্য ভালো খেলতে পারেনি, তাই লিটনের একক সমালোচনা কিছুটা কটু লাগতে পারে। তবে শুধু এই নিউজিল্যান্ড সফর নয়, ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করা ওয়ানডে সিরিজেও নিষ্প্রভ ছিলেন তিনি।

জানুয়ারি মাসে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সেই সিরিজে লিটন করেছিলেন যথাক্রমে ১৪, ২২ ও ০ রান। অর্থাৎ রঙিন পোশাকে টানা ৯ ইনিংসে কোনো অর্ধশতক নেই ওপেনারের, এমনকি ৩০ এর কোটাও পেরোতে পারেননি। ওয়ানডে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ইনিংসের মালিক এই ব্যাটসম্যানের ফর্মহীনতা বাংলাদেশের জন্যও অশনি সংকেত।

এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের দক্ষতা ও প্রতিভা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই, কিন্তু জাতীয় দলের ঝান্ডা হাতে তিনি সেটা কতটা কাজে লাগাতে পারছেন সেটাই কথা। লিটনের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তাকালে দেখা যায়, ৪২ ম্যাচে এই ওপেনার করেছেন ১১৫৫ রান। গড় কেবল ২৯.৬১!

 

Related Articles

কোচ-অধিনায়কের ‘প্রিয়পাত্র’ হলেই সুযোগ মেলে পাকিস্তান দলে!

আইসিসির মাসসেরার মনোনয়ন পেয়ে আলোচনায় নেপালের কুশল

বাংলাদেশকে হারানোর পুরস্কার পেলেন মেয়ার্স-বোনাররা

মাতৃত্ব ও পিতৃত্বকালীন ছুটিতে পিসিবির প্রশংসনীয় উদ্যোগ

জাতীয় দল নয়, লিগ খেলাকেই প্রাধান্য দিবেন হোল্ডার