SCORE

সর্বশেষ

ভুল শুধরেই নিজেকে প্রমাণ করতে চান সৌম্য

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তার আগমনের পর অনেকেই আশায় বুক বেঁধেছিলেন- তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ্‌ রিয়াদ বা সাকিব আল হাসানের মতো বুঝি আরও একজন সীমিত ওভারের কার্যকরী ব্যাটসম্যান পেল বাংলাদেশ। ক্যারিয়ারের শুরুতে খেলছিলেনও বেশ।

অনুশীলনের সময় সৌম্য সরকার।

২০১৫ সালকে বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা সময় হিসেবে তৈরি করার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল সৌম্যর। যদিও গত এক-দেড় বছর ধরে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না এই বাঁহাতি ওপেনার। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সিরিজে টি-২০’তে ভালো পারফর্ম করে অবশ্য আবারও জ্বালিয়েছেন সমর্থকদের আশার আলো।

Also Read - আবারও দলে জায়গা পোক্ত করতে চান তাসকিন

নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশের সবচেয়ে কঠিন প্রতিপক্ষ ভারত। যদিও ভারতের হয়ে আসরে নেই বিরাট কোহলি ও মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো তারকা ক্রিকেটাররা। তবে তার পরও চ্যালেঞ্জ গ্রহণে কোনো কমতি নেই সৌম্যর, ‘বিরাট নেই বা ধোনি নেই তাতে কি? ওদের সেরা ক্রিকেটারেরতো অভাব নেই। আর শ্রীলঙ্কাও আছে ফুল ফর্মে। দু’টি দলের সঙ্গে আমাদের কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে।’

সৌম্যর মতে, ভয়-ডরহীন ক্রিকেটই বাংলাদেশকে এনে দেবে সাফল্য। তিনি বলেন, ‘ওদের পেসার বলেন, স্পিনার বলেন সবাই বিশ্বসেরা। তাই আমাদেরও খেলতে হবে সেরাটা দিয়ে। সবচেয়ে বড় কথা হলো- আগে থেকেই ভয় নিয়ে মাঠে নামলে হবে না। সাহসটাই বড় বিষয়। আর আমি মনে করি জীবনে চ্যালেঞ্জ আছে বলেই ভালো করার ক্ষুধা আছে। চ্যালেঞ্জ না থাকলেই ভালো করা কঠিন।’

পারফরমেন্সে ত্রুটি মেনে নিয়ে সৌম্যও বুঝতে পারছেন তার সমাধানযোগ্য জায়গাটুকু। আর তাই ভুল শুধরেই নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ রাখতে চান তিনি, ‘আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি, দলও আমাকে সুযোগ দিচ্ছে। বিশ্বের অনেক ক্রিকেটারই শুরুতে স্ট্রাগল করেছে, আমিও করছি। আশা করি নিজের ভুলগুলো শুধরে ধীরে ধীরে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবো। সবচেয়ে বড় কথা হলো নিজের উপর বিশ্বাস রাখা ও নিজের কাজটি করে যাওয়া। আমি তাই করার চেষ্টা করছি।’

আরও পড়ুনঃ সাব্বির-ইমরুলের অন্তর্ভূক্তি কতোটা যুক্তিপূর্ণ?

Related Articles

রুবেল হোসেনের সমস্যা কোথায়?

নিদাহাস ট্রফি থেকে ৪৮২ শতাংশ লাভ!

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

যেখান থেকে শুরু ‘নাগিন ড্যান্স’ উদযাপনের

‘খারাপ করছি দেখেই বেশি চোখে পড়ছে’