Scores

ভোটে কারচুপির অভিযোগ, রোহিতের ৩ লাখের বিপরীতে এবির ৩ হাজার!

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের কারণে সকল ধরনের খেলাধুলা আপাতত বন্ধ। আইসিসি তাদের বিভিন্ন বাছাইপর্বের খেলা আগামী জুন মাস পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে। আইপিএল পিছিয়েছে অনির্দিষ্টকালের জন্য। নেদারল্যান্ডস ক্রিকেট বোর্ডও তাদের এই সিজনের খেলা বাতিল করে দিয়েছে। লম্বা সময় ক্রিকেট ভক্তদের জন্য থাকছেনা কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ । তবে ভক্তদের জন্য এই নিরুত্তাপ সময়েও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় তুলেই চলেছে ক্রিকইনফোর পোল।

এবির ‘প্রত্যাবর্তন’ ইস্যুতে সুর বদলালেন শোয়েব

 

Also Read - এবার ক্লাবগুলোকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিল বিসিবি


সম্প্রতি জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো সেরা টি টোয়েন্টি খেলোয়াড়ের জন্য একটি পোলের আয়োজন করেছে। এই পোলে ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত হবে কে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা খেলোয়াড়। ভোটের কোহলি বনাম গেইল পোলে কারচুপির অভিযোগ তুলে কোহলি ভক্তরা, প্রতিবাদের মুখে সেই ভোট বাতিল করে ক্রিকইনফো। তবে এবার বিতর্ক উঠেছে আরেক ভোট নিয়ে। কোয়ার্টার ফাইনালের আরেক ভোটে মুখোমুখি হন এবি ডি ভিলিয়ার্স ও রোহিত শর্মা। এই ভোটে যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে তা অনেকে আগে থেকেই ধারণা করেছিলেন। এতে যে এবি ফেভারিট তাতে নিশ্চয়ই কারো সন্দেহ ছিলনা।

ভোটের প্রথম একদিন বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। প্রায় এক লাখ ভোটে এবি ও রোহিত সমান সমান ভোট পান। কিন্তু এরপর যা ঘটে তা অনেকে কল্পনাও করতে পারেনি।

৩ তারিখ দুপুর পর্যন্ত ভোট প্রায় সমান সমান ছিল। প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার ভোটের, ৬০ হাজার রোহিত ও ৬০ হাজার পান এবি। তবে এরপর কয়েক ঘন্টায় যা ঘটে তাতে অনেকের চোখ চড়ক গাছ। একজন ভক্ত টুইটারে প্রমাণসহ দেখান শেষ কয়েক ঘন্টায় ভোট হয়েছে আরো প্রায় ২ লাখ। সেখানে রোহিতের ভোট ১ লাখ ৮০ হাজার ও এবির পক্ষে পড়েছে মাত্র ১ হাজার ভোট!

আরো অবাক করা বিষয় কয়েক মিনিট পর নিমিষেই আরো ১.৫ লাখ ভোট বেড়ে যায়। যার ৯৯ শতাংশ ছিল রোহিতের পক্ষে। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, রোহিতের মোট ভোট সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ ৮৭ হাজার ও এবির ভোট সংখ্যা ৬৩ হাজার।

মাত্র কয়েক ঘন্টা আগেও যেখানে রোহিত ও কোহলির ভোট সমান সমান ছিল ( দুইজনের ৬০ হাজার) সেখানে হঠাৎ এই পরিবর্তন কীভাবে হলো?

দর্শকদের মনে প্রশ্ন পুরো দুইদিনে সবাই ভোট দেওয়ার পর যেখানেদু’জনই ৬০ হাজার করে মোট ভোট প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার সেখানে মাত্র কয়েক ঘন্টার মাঝে কীভাবে আরো ৩.৩ লাখ ভোট হলো যেখানে মাত্র ৩ হাজার ভোট এবির পক্ষে।

এটা কি আদৌ সম্ভব? এমন প্রশ্ন এখন ঘুরপাক খাচ্ছে ভক্তদের মনে। কীভাবে ঘন্টা খানেকে সকল ভোট রোহিতের পক্ষে যায় ও এবির পক্ষে বলতে গেলে কিছুই না। এর উত্তর হয়তো ক্রিকইনফো কতৃপক্ষই ভালো দিতে পারবেন। তবে আপাতত এমন ঘটনাকে একহাত নিচ্ছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।

Related Articles

নিজের ব্যাটিংয়ে চমকে গেছেন ডি ভিলিয়ার্স নিজেই

নাম বদলে ফেললেন এবি ডি ভিলিয়ার্স

ফিলিপের মধ্যে নিজের ছায়া দেখছেন ডি ভিলিয়ার্স

মাশরাফির অধীনে খেলা অনেক মজার ছিল : এবি

সামর্থ্য জেনেই সাকিবকে তিনে খেলতে বলেছিলেন ডি ভিলিয়ার্স