মাঠে উইলিয়ামস-এবাদতের মধ্যে কী হয়েছিল, জানালেন সৈকত

0
1139

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের সপ্তম আসর বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ১০ম ম্যাচ। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে স্বাগতিক চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের মুখোমুখি সিলেট থান্ডার। স্বল্প পূঁজি নিয়েও চট্টগ্রামকে চেপে ধরা সিলেট থান্ডার দেখছিল প্রথম জয়ের স্বপ্ন।

মাঠে উইলিয়ামস-এবাদতের মধ্যে কী হয়েছিল, জানালেন সৈকত

Advertisment

লেন্ডল সিমন্সের ৪৪ রানের ইনিংসের পর নুরুল হাসান সোহান ও কেসরিক উইলিয়ামসের দৃঢ়তা শেষপর্যন্ত স্বাগতিকদেরই জয়ী করেছে। তবে ম্যাচের শেষদিকে বেঁধে গেল গণ্ডগোল। চট্টগ্রামের ইনিংসের ১৭তম ওভারে হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে পড়লেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের কেসরিক উইলিয়ামস ও সিলেট থান্ডারের এবাদত হোসেন।






দুজনের মধ্যে এতই গোল বেঁধে গেল যে খেলাই বন্ধ হয়ে গেল। অন ফিল্ড আম্পায়ারের সাথে নুরুল হাসান সোহান ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত এগিয়ে এসে ঝামেলা চুকানোর চেষ্টা করলেন।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনের সামনে আসতেই সিলেটের অধিনায়ক মোসাদ্দেককে প্রশ্ন করা হল ঘটনা সম্পর্কে।





মোসাদ্দেক বলেন, ‘আসলে কী হয়েছিল আমি ভালো করে দেখিনি। প্রথমে দেখলাম ওরা একটু সংঘর্ষের মত জড়িয়ে পড়ল। সামাল দেওয়ার জন্য আমিও জড়িয়ে গেলাম আরকি। এটা তেমন বড় কিছু ছিল না।’ 

এবাদত ও উইলিয়ামসের ‘ঝগড়া’-র রহস্য শেষপর্যন্ত জানা যাবে না হয়ত। যেখানে খোদ সিলেটের অধিনায়কের কণ্ঠেই রাখঢাক। তবে ‘কিছু একটা’ হয়েছিল- এটুকু নিশ্চিত। এমন ধারণা করা যেতেও পারে- ম্যাচের উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্তে বোধহয় ‘স্লেজিং’ চলেছিল বোলার ও ব্যাটসম্যানের মধ্যে!

প্রসঙ্গত, ম্যাচে ৪ উইকেটের জয় পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে এটি দলটির তৃতীয় জয়। চারটি ম্যাচ খেলেছে সিলেট থান্ডারও, তবে জিতেনি একটি ম্যাচেও।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।