মাঠে ফেরার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত ক্রিকেটাররা

0
436

বাইশ গজে প্রত্যাবর্তন না হলেও আবার মাঠে ফিরছেন ক্রিকেটাররা। আগামীকাল (রোববার) থেকে অফিশিয়াল অনুশীলন শুরু করবেন ৯ জন ক্রিকেটার। নিরাপত্তা শঙ্কার কারণে বাকিরা মাঠে এসে অনুশীলন না করলেও সেই সুযোগ পেয়ে খুশি নুরুল হাসান সোহান, শফিউল ইসলাম ও নাঈম হাসান।

Advertisment

ঢাকা ৪, খুলনা ২, সিলেট ২ ও চট্টগ্রামে ১ জন সহ সর্বমোট ৯ জন ক্রিকেটার মাঠে গিয়ে অনুশীলন করতে রাজি হয়েছেন। অনেকের ইচ্ছে থাকলেও করোনার প্রকোপ আর স্কিল ট্রেনিং না থাকাতে স্টেডিয়ামে যাওয়ার বিষয়ে উৎসাহ দেখাচ্ছেন না। যারা অনুশীলনে ফিরছেন, তাদেরও অনেক নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ে ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাবেন একা।

দীর্ঘদিন পর মাঠে ফেরার ছাড়পত্র পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বিডিক্রিকটাইমকে  সোহান বলেন, ‘যে উদ্যোগটা বিসিবি নিয়েছে তা আমাদের জন্য ভালো হয়ছে। বিসিবি অবশ্য অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করে যাচ্ছে কিভাবে আমরা মাঠে ফিরতে পারি‌। তো অবশেষে আমরা মাঠে ফিরতে পারছি। আমাদের ক্রিকেটারদের জন্য এটা সুখবর।’

মাঠে ফেরা নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের দিকনির্দেশনার বিষয়ে সোহান জানান, ‘দিকনির্দেশনা কথা বলতে আসলে আমাদের রানিং-ফিটনেস নিয়ে যে কাজগুলো, এগুলোর বিষয়ে বলা হয়েছে। আপাতত এগুলো নিয়ে কাজ করা হবে। আর স্কিলটা মনে হয় আরেকটু সময় নিয়ে শুরু হবে‌।’

যেহেতু নিরাপত্তা জনিত কারণে অনুশীলন শুরু করতে দেরি হয়েছে, সেহেতু এই বিষয়টার সর্বোচ্চ গুরুত্ব থাকবে বলে জানা পেসার শফিউল। তিনি বলেন, ‘এখানে কিন্তু আগে নিরাপত্তা। নিরাপত্তার জন্যই আমরা এতদিন মাঠে ফিরতে পাচ্ছিলাম না, অনুশীলন করতে পারছিলাম না। এজন্য এখন এমনভাবে অনুশীলন পর্ব সাজানো হয়েছে, আলাদাভাবে একজন একজন করে অনুশীলন করতে হবে আমাদের।’

দীর্ঘদিন পর অনুশীলন শুরু হলেও এখনই দলগত অনুশীলনের সুযোগ পাচ্ছেন না ক্রিকেটাররা। নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী একাই রানিং বা জিম করতে হবে তাদের। ক্রিকেটারদের সাথে কথা বলে জানা গেল, যেহেতু স্কিল ট্রেনিং শুরু হয়নি, সেকারণেই অনেকেই আগ্রহ হারাচ্ছেন। ফিটনেস নিয়ে বাড়িতেই কাজ করতে চাচ্ছেন তারা।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রামে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে অনুশীলন করতে যাওয়া স্পিনার নাঈম হাসান জানান, ‘আমাদেরকে আসলে আপাতত অনুশীলন করার কথা বলা হয়েছে। এর জন্য এক ঘণ্টা করে সময় দিয়েছে। যেহেতু এখন আপাতত স্কিল ট্রেনিং নাই, শুধু রানিং আর ফিটনেস, সবাই বলতেছে এখন মাঠে না গিয়ে বাসাতেই অনুশীলন করবে।’

মিরপুরে অনুশীলন করতে রাজি হওয়া চার ক্রিকেটারের একজন শফিউল। তিনি বলেন, ‘আসলে এটা সবার ব্যক্তিগত ব্যাপার। যাদের সুযোগ আছে তারা বাসাতেই অনুশীলন করছে। আমি চিন্তা করেছি জিমের যে প্রপার সরঞ্জামাদি এটা মাঠে গেলে পাওয়া যাবে। এই কারণে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

খুলনায় অনুশীলন করতে চাওয়া সোহান অবশ্য আশা রাখছেন ঈদের পর স্কিল ট্রেনিং শুরু করা গেলে বাকিরাও মাঠে ফিরতে চাইবেন, ‘আশা রাখি আস্তে আস্তে এভাবে আর কিছুদিন পর আমরা দলগত অনুশীলনে নামতে পারবো।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।