মাথাব্যথার কারণ হতে যাচ্ছে সাইফউদ্দিনের চোট!

0
387

টানা ক্রিকেট খেলতে খেলতে বড় ধরণের চোটই বাঁধিয়ে বসেছেন জাতীয় দলের পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। আর এই চোট সারাতে তাকে দীর্ঘদিন থাকতে হতে পারে মাঠের বাইরে।

মাথাব্যথার কারণ হতে যাচ্ছে সাইফউদ্দিনের চোট!

Advertisment

তরুণ এই ক্রিকেটারের পিঠের ইঞ্জুরি সারানোর উপায় আছে তিনটি। একটি হল বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করা, আরেকটি ইনজেকশন নিয়ে খেলা চালিয়ে যাওয়া, তৃতীয়টি ‘রেডিও ফ্রিকুয়েন্সি অ্যাবলেশন’- যে চিকিৎসা বাংলাদেশে সম্ভব নয়।

সাইফউদ্দিন পিঠের এই চোটের সাথে লড়াই করে খেলে চলেছেন ২০১০ সাল থেকে। বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন, চোটকে তোয়াক্কা না করে টানা ক্রিকেট খেলে যাওয়াই কাল হয়েছে সাইফউদ্দিনের জন্য।

তিনি বলেন, ‘১৩-১৪ বছরের কিশোর দ্রুতগতিতে বল করতে পারলে সবাই তার প্রশংসা করে, উৎসাহ দেয়। কিন্তু সেই সময়ে পেশিগুলো পরিণত হয় না, তাই এত জোরে বল করাও উচিৎ নয়। ইনজেকশন দিয়ে খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব। তবে দীর্ঘদিন ধরে এটি প্রয়োগ করা উচিৎ নয়। এভাবে তার সেরে উঠতে সাত দিন লাগবে নাকি সাত মাস- আমরা জানি না। বিশ্বকাপের সময় দেওয়া ঠিক ছিল, কারণ তখন ব্যথা কমাটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

শিরদাঁড়ার দুই কশেরুকার মাঝখানে তীব্র ব্যথাকে বলা হয় ‘ফ্যাসেট জয়েন্ট সিনড্রোম’। সাইফউদ্দিনের তাই হয়েছে। তার এই সমস্যা দূর করা যেতে পারে ‘রেডিও ফ্রিকুয়েন্সি অ্যাবলেশনে’র মাধ্যমে, যার চিকিৎসা করাতে দীর্ঘ সময় থাকা লাগবে ইংল্যান্ড বা অস্ট্রেলিয়ায়; যেখানে এই চিকিৎসার সুব্যবস্থা রয়েছে। তা না হলে বদলাতে হবে বোলিং অ্যাকশন।

দেবাশীষ মনে করেন, দীর্ঘ সময় ধরে একই বোলিং অ্যাকশনে মাঠ কাঁপিয়ে, ক্রিকেট অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত হয়ে, চোট কাটাতে গিয়ে অ্যাকশন পাল্টে ফেলা সহজ হবে না সাইফউদ্দিনের জন্য।

চোটের কারণে শ্রীলঙ্কা সফরের দল থেকে বাদ পড়া সাইফউদ্দিন আপাতত তিন সপ্তাহের বিশ্রামে রয়েছেন। তার এই বিশ্রামের সময়েই নেওয়া হবে চোট সারানোর ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। তবে এটুকু নিশ্চিতভাবে বলা যেতে পারে- বারবার বাধা হয়ে ওঠা পিঠের ব্যথাটাকে দূর করতে হলে লম্বা সময়ই মাঠের বাইরে থাকতে হবে ২২ বছর বয়সী ক্রিকেটারকে।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।