Scores

মারুফ-মুমিনুল-নাইমের ব্যাটিং কল্যাণে জিতল রূপগঞ্জ

ডিপিএলে জিতে চলেছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে রূপগঞ্জ। ব্যাট হাতে ফিফটি করেছেন মেহেদি মারুফ ও মোহাম্মদ নাইম। ৪৭ রান করে অপরাজিত ছিলেন মুমিনুল হক।

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ

১১ ম্যাচে ১০ জয় পয়েন্ট টেবিলের সবার উপরে মুমিনুল-নাঈমদের লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। শুধু পয়েন্ট টেবিলই নয় শিরোপা জয়ের দৌড়েও এগিয়ে রয়েছে মুমিনুলরা।

বুধবার আরও একধাপ এগিয়ে গেলো লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবকে তো পাত্তাই দেয়নি রূপগঞ্জ। টস জিতে আগেই ফিল্ডিং নেয় রূপগঞ্জ অধিনায়ক নাঈম ইসলাম।

Also Read - শেখ জামালকে জেতালেন নাসির-তানভীর


৯ রানে এক উইকেট পড়লে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাব। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আনিসুল ও শাহনাজ আহমেদ মিলে গড়েন ৮১ রানের জুটি। সেই জুটি ভাঙেন নাবিল সামাদ। ৯৪ রানে ৪ উইকেট পড়লে সেখান থেকে টেনে তুলেন মিনহাজুল আবেদিন ও সাকির হোসেন। দুইজন মিলে ৬৯ রান যোগ করে ব্যক্তিগত ৩৭ রানে আউট হন মিনজানুল।

তার বিদায়ের একটু পরেই আউট হন সাকির। এই দুইজনের জুটিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ১৮০ রান করে উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাব। সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট লাভ করেন নাবিল সামাদ। ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফেরা তাসকিন পাননি কোন উইকেট। উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে খুব একটা কষ্ট করতে হয়নি লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জকে।

দলকে দারুণ শুরু এনে দেন মেহেদি মারুফ ও মোহাম্মদ নাইম। প্রথম উইকেট জুটিতে তোলেন ৯৬ রান। ফিফটি তুলে নেন মেহেদি মারুফ। ১১৪ বলে ৬২ রান করে আউট হন মেহেদি মারুফ। তারপর যেন আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি রূপগঞ্জকে। দলের হয়ে বাকি কাজটা করে দেন মুমিনুল ও নাইম। মেহেদি মারুফের পর ফিফটি তুলে নেন মোহাম্মদ নাইমও। তবে ফিফটি পাননি মুমিনুল।

নাইমের অপরাজিত ৬৩ রান ও মুমিনুলের অপরাজিত ৪৭ রানে ভর করে ৯ উইকেটের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সুপার লিগ মাতাতে আসলেন ওঝা

শেখ জামালকে জেতালেন নাসির-তানভীর

মুমিনুল-নাইমের ব্যাটে সহজ জয় রূপগঞ্জের

মানকাডিংয়ের সুযোগ ছাড়লেন আরাফাত সানি

সানজামুলের বোলিং তোপে উড়ে গেলো খেলাঘর