Scores

মালিকের ব্যাটিং নৈপুণ্যে সিরিজে এগিয়ে গেলো পাকিস্তান

লাহোরে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। ব্যাট হাতে অপরাজিত ৫৮ রান করেন শোয়েব মালিক।

দলের জয়ে ব্যাট হাতে অবদান রাখেব মালিক। ছবিঃ এএফপি

আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪১ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। টাইগারদের দেওয়া সে লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি পাকিস্তানের। শুরুতেই দলের অধিনায়ক বাবর আজমকে হারায় পাকিস্তান। বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু এনে দেন শফিউল। বাংলাদেশের মতো ধীরগতিতে শুরু করেন পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরাও। দলীয় ৩৫ রানে মুস্তাফিজের কাটারে সাজঘরে ফিরে যান মোহাম্মদ হাফিজ (১৭)।

অবশ্য তৃতীয় উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। শোয়েব মালিক ও আহসান আলীর দায়িত্বশীল ব্যাটিং পাকিস্তানকে ধীরে ধীরে জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকে। উইকেট থেকে তেমন সুবিধা পাচ্ছিলেন না ব্যাটসম্যানরা। সিঙ্গেল-ডাবল নিয়ে দলীয় রানের চাকা সচল রাখেন দুই ব্যাটসম্যান। তবে দলীয় ৮১ রানে আমিনুলের বলে আহসান আউট হলে ম্যাচ কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ।

Also Read - কিউইদের গড়া রান পাহাড় টপকে জিতল ভারত


তবে সেখান থেকে আর ম্যাচ বের করে আনতে পারেননি বাংলাদেশের বোলাররা। উইকেট পড়তে ততক্ষণে ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেয় পাকিস্তান। শেষদিকে আরও দুই উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের তবে ততক্ষণে ম্যাচ পুরোপুরি পাকিস্তানের হাতেই ছিল। ফিফটি হাঁকান মালিক। শেষ ওভারে পাঁচ রানের প্রয়োজন হলে তিন বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় পাকিস্তান।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ব্যাটিং নিয়ে শুরুটা ভালোই করেন দুই ওপেনার নাঈম শেখ ও তামিম ইকবাল। তবে শুরুতে কিছুটা ধীরগতিতে ব্যাট করেন তামিম। তার সঙ্গে ধীরগতির ব্যাট করেন নাঈমও। পাওয়ার-প্লে’তে যথেষ্ট রান তুলতে ব্যর্থ হন এই দুই ওপেনার। দুই জনের স্লো ইনিংসের কারণে ভুগতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

দুই ব্যাটসম্যান মিলে ৬৬ বলে ৭১ রানের জুটি গড়েন। দুই জনের জুটি ভাঙে রান আউটের মাধ্যমে। তবে এ দুই ব্যাটসম্যানের স্লো ব্যাটিংয়ের কারণে ততক্ষণে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। তামিমের বিদায়ের পর কিছুটা আগ্রাসী ব্যাটিং করেন নাঈম। দ্বিতীয় উইকেটটিও আসে রান আউটে। সাদাব খানের অসাধারণ থ্রোতে রান আউটের শিকার হন লিটন।

লিটনের বিদায়ের পর আউট হন নাঈমও। ব্যক্তিগত ৪১ বলে ৪৩ রান করে সাদাবের বলে আউট হন তিনি। তারপর থেকে কেউই ঠিকমত ক্রিজে দাঁড়াতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহর অপরাজিত ১৯ রানে ১৪১ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বাংলাদেশ ১৪১-৫ (ওভার ২০)

নাঈম ৪১, তামিম ৩৯: আফ্রিদি ১-২৩

পাকিস্তান ১৪২-৫ (ওভার ১৯.৩)

মালিক ৫৮*, আহসান ৩৬: আল-আমিন ১-১৮

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সিরিজ খেলতে ভারতকে আর জোর করবে না পাকিস্তান!

‘আফ্রিদি না পারে ব্যাটিং, না পারে বোলিং’

দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের বাবা হলেন আমির

ক্রিকেটে করোনার থাবা: আক্রান্ত-মৃত্যু

‘আফ্রিদি আমার সাথে ধর্মের কারণে বৈষম্য করতো’