Scores

মাশরাফির সাথে ‘যুদ্ধ’ নিয়ে মুখ খুললেন আশরাফুল

মাশরাফি বিন মুর্তজা নাকি মোহাম্মদ আশরাফুলকে দেখলেই নিজের সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে বল ডেলিভারি করতেন- সম্প্রতি তামিম ইকবাল তার ফেসবুক লাইভে মাশরাফিকে এই কথাটি স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন। তামিমের কথার সূত্র ধরে মাশরাফিও জানিয়েছিলেন, জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আশরাফুলের সাথে তার মধুর স্মৃতি। এবার এই ইস্যুতে মুখ খুললেন আশরাফুলও। 

আশরাফুলকে সামনে পেলেই জ্বলে উঠতেন মাশরাফি



মাশরাফি জানিয়েছিলেন- আশরাফুলের বিরুদ্ধে বোলিং করে আউট করা তখন অন্যরকম অর্জন ছিল। মাশরাফির ভাষায়- ‘তখন আশরাফুলকে আউট করাই অনেক প্রাধান্য পাওয়ার মত ব্যাপার ছিল। কেন জানি আশরাফুলের সাথে মাঠের ভেতর ঐ যুদ্ধটা ছিলই। ঐ সময় সে আমার বেস্ট ফ্রেন্ডও ছিল। ও ব্যাটিংয়ে আসলে দ্বৈরথটা অটোমেটিক কাজ করত।’

Also Read - ক্রিকইনফোর 'ড্রিম টিম' এ সাকিব আল হাসান





যুদ্ধ হোক বা দ্বৈরথ- তা আসলে কেমন ছিল? মূলত দুজন ছিলেন কাছের বন্ধু। সেই বন্ধুত্বই নিজেদের সেরাটা বের করে আনতে সহায়তা করত। এ বিষয়ে বিডিক্রিকটাইমকে বিস্তারিত জানিয়েছেন খোদ আশরাফুল।

তামিমের লাইভে মাশরাফির কথামালা শুনেছেন জানিয়ে আশরাফুল বলেন, ‘নেটে বলুন বা ম্যাচে, আমরা যখনই একসাথে খেলতাম, একটা দ্বৈরথ হত। ঘরোয়া ক্রিকেট বা নেটে সবসময় আমি ওর সেরা বোলিং পেয়েছি, যখন আমি স্ট্রাইকে থাকতাম। এতে আমারও ভালো অনুশীলন হত। আমিও ওকে বলতাম- কীরে, আমি বোলিং এলেই তোর লাইন-লেন্থ সব ঠিক হয়ে যায়, অন্যরা আসলে তো আস্তে বল করিস! ও বলত- অন্যদের আস্তে বল করে বেঁচে যাওয়া যায়, তোর কাছ থেকে বেঁচে নাও যেতে পারি… এজন্য আমার বিরুদ্ধে বল করলেই ও নিজের শতভাগ দিত।’ 






মাশরাফির আগেই অবশ্য আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন আশরাফুল। জ্যেষ্ঠ ক্রিকেটারদের ভিড়ে তাদের বন্ধুত্ব অল্প দিনেই জমে ওঠে।

আশরাফুলের স্মৃতিচারণ, ‘আমরা একসাথেই খেলা শুরু করেছি। অনূর্ধ্ব-১৭ এশিয়া কাপে আমরা দুজন সতীর্থ ছিলাম, এরপর ‘এ’ দলের হয়ে ভারতে গিয়েছিলাম, ঐ সফরে রুমমেট ছিলাম। বাংলাদেশ দলে আমি সুযোগ পাই ২০০১ সালের এপ্রিলে, মাশরাফি সুযোগ পায় ৬ মাস পর নভেম্বরে। তখন থেকেই আমার খুব ভালো সম্পর্ক, বন্ধু বলতে পারেন।’ 

‘দলে তখন আমরা মাত্র তিনজন কনিষ্ঠ ক্রিকেটার ছিলাম- আমি, মাশরাফি, মোহাম্মদ শরীফ। পরে নাফিস, রানা, তুষার ভাই, আফতাবরা এসেছে। তখন মাশরাফি আর আমি একসাথেই থাকতাম। ও বল করার সময় মিড অফ বা মিড অনে থাকতাম। মাশরাফিকে যেভাবে বল করতে বলা হত, বোলিং মেশিনের মত ঠিক সেটাই করত। শুরুর দিকে ১৪৫ কিমি.র বেশি গতিতে বল করত, অসাধারণ গতিতে।’– বলেন আশরাফুল।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 


Related Articles

বাংলাদেশকে কাবু করার মন্ত্র জানেন রোচ

ইঞ্জুরি ‘কপালের ওপর’ ছেড়ে দিয়েছেন সাইফউদ্দিন

‘অসাধারণ, প্রকাশ করার মতো না’- তামিমের নেতৃত্ব নিয়ে সাইফ

আগের চেয়ে অবস্থার উন্নতি সাকিবের

মুমিনুলকে আউট করতে পারলেন না ডমিঙ্গো