Score

মাশরাফিই আমার শিক্ষক, মোটিভেশনাল স্পিকার

আপনার নেতৃত্ব, আত্মোৎসর্গ, কঠোর পরিশ্রম থেকে আমরা প্রতিনিয়ত শিখছি৷ জীবনকে নতুনভাবে আবিষ্কার করছি। ভয়াবহ দৈহিক যাতনায় থেকেও আপনি যেভাবে লড়ে যাচ্ছেন দেশের হয়ে, তার তুলনা হয় না। আপনার কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পেয়ে আমরা দেশের প্রতি আরো নিবেদিত হই। নিজ জায়গা থেকে দেশের জন্য কন্ট্রিবিউট করারা চেতনা খুঁজে পাই। সাহস পাই। দেশকে নিয়ে আমাদের সকল দুঃশ্চিন্তা ধুলোয় মিশে যায়। আশার আলো আমাদের ঝলসে দেয়।

নিজেকে একজন সাধারণ মানুষ ভেবে আপনাকে ঘিরে এই জাতির আবেগ, ভালোবাসাকে স্রেফ পাগলামি বলে আখ্যায়িত করতে পারেন আপনিই শুধু। কারণ আপনিই বিশ্বাস করেন, আমরা সবাই সবার জায়গা থেকে দেশের জন্য কাজ করছি৷ লড়ছি। দেশ বিনির্মাণে আমাদের সবার অবদানই সমান। আমি মাশরাফি ‘বাংলাদেশ’ লেখা জার্সি গায়ে খেলি, হয়তো এইজন্য একটু বেশিই আমাকে আপনাদের চোখে পড়ে। তবে আমি আট দশজনের মতোই দেশের জন্য কাজ করা একজন সৈনিক। বরং দেশ বিনির্মাণে শ্রমিকরাই আমার থেকে বেশি পরিশ্রম করছে। তারাই আসল তারকা। আমি তো সাধারণ একজন খেলোয়াড় মাত্র!

Also Read - যে কারণে এনওসি পাননি সৌম্য-মিথুনরা

একজন অসাধারণ মানুষ হয়েও সাধারণের মতো আপনার কথা বলা, লাইফস্টাইল, জীবনকে যাপন করতে শেখা এর থেকেই আমরা অনেক বেশি শিখছি। জীবনের আসল মায়া, অর্থ আবিষ্কার করছি। আপনি স্বীকার না করলেও আপনি আমাদের তারকা। অনুপ্রেরণার সম্ভার। ডিপ্রেশনে ডুবে থাকা এই প্রজন্ম আপনার কাছ থেকেই শিখে যাচ্ছে কিভাবে শত প্রতিকূল পরিবেশ মাড়িয়ে জীবনকে সার্থক করা যায়। এগিয়ে যাওয়া যায় আপনার শক্তিতে। এই তরুণ প্রজন্মের আপনিই সেরা মোটিভেশনাল স্পিকার! মাঠে যখন আপনি লড়েন, আপনার শরীর থেকে তখন সবথেকে সেরা মোটিভেশনাল বাণী ঝরে, বিশ্বাস করুন! আমরা সেগুলো কুড়িয়ে নিতে শিখেছি!!

বাংলাদেশের আকাশে তারকা কিংবা সেলেব্রেটির অভাব নেই। ছড়াছড়ি। এতো এতো তারকাদের যেমন বিশাল এক ভক্ত শ্রেণী রয়েছে, ঠিক তেমন তাদের বিশাল একটা সমালোচক শ্রেণিও রয়েছে। তারা তাদের ভীষণরকম অপছন্দ করে৷ সমালোচনার ফেনা তুলে। সেসব তারকা থেকেই আপনিই ভিন্ন, স্বতন্ত্র। বাংলার আকাশে আপনি এমন একজন তারকা যাকে সবাই ভালোবাসে। পাগলের মতো ভালোবাসে। যার কোনো সমালোচক শ্রেণি নেই। এই জায়গায় আপনি অনন্য, আলাদা। স্বয়ং দেশের চৌকস প্রধানমন্ত্রী আপনাকে দেশের সবথেকে মূল্যবান সম্পদ কিন্তু এমনিই এমনিই বলেনি।

আপনাকে একজন শিক্ষক হিসেবে পেয়ে গর্বিত আমি এবং আমরা৷ সত্যিই এই জাতির সবথেকে বড় সম্পদ আপনিই। আপনার জায়গায় এসে আমরা গ্রুপিং এই জাতি এক হয়ে যাই। এক কাতারে সামিল হই, আবেগ- ভালোবাসার বুলি ছুড়ি। শিক্ষা, অনুপ্রেরণা, সাহস নিই। আপনাকে ঘিরে আমাদের এই আবেগ-ভালোবাসা মিথ্যে নয়, পাগলামি নয়; হে শিক্ষক। এই জাতি কাউকে কারণ ছাড়াই কিন্তু ভালোবাসে না!

জন্মদিন ও শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা নিবেন প্রিয় শিক্ষক।

লেখা,

আপনার ছাত্র মাসুদ আনসারী

 

Related Articles

বাংলাদেশের বিজয় দিবসে বাংলাদেশকেই উপেক্ষা করলেন শেবাগ!

সেমি-ফাইনালে আগে ব্যাট করছে বাংলাদেশ

ইমার্জিং এশিয়া কাপের সেমিফাইনাল লাইন-আপ চূড়ান্ত

আফগানিস্তান পারলেও পারছে না বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা!

লিটনের এক্স-রে রিপোর্টে সুখবর