মায়ের পরামর্শেই বাবাকে দাফন করতে যাননি সিরাজ

অসুস্থতায় ভোগে মাত্র ৫৩ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন ভারতীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ সিরাজের বাবা মোহাম্মদ গাউস। সিরাজ বাবার মৃত্যুসংবাদ পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ায় বসে। নিজের জীবনের নায়ককে শেষবারের মত দেখার জন্য বিসিসিআইয়ের ছাড়পত্রও পেয়েছিলেন। কিন্তু মায়ের পরামর্শেই থেকে যান অস্ট্রেলিয়ায়।মায়ের পরামর্শেই বাবাকে দাফন করতে যাননি সিরাজ

সিরাজের ক্রিকেটার হওয়ার পেছনে বড় অবদান তার বাবার। অটোরিকশা চালিয়ে কষ্ট করে ছেলেকে ক্রিকেটার হওয়ার সুযোগ করে দেন গাউস। তবে বাবাকে শেষবারের মত দেখতে যেতে পারেননি ২৬ বছর বয়সী ডানহাতি পেসার। অস্ট্রেলিয়া থেকে ভারতে ফিরলে ভেঙে যাবে তার কোয়ারেন্টিন। ফের অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে সরকারি বিধি মেনে কোয়ারেন্টিন পালন করলে ভারত বেশ কিছু ম্যাচে পাবে না সিরাজকে। দেশ ও পেশাদারিত্বের টানে সিরাজকে তাই চোখের জলেই বাবাকে বিদায় বলেন।

Advertisment

বাবার স্বপ্ন ছিল, দেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন ছেলে, দেশকে করবেন গর্বিত। মা সেই স্বপ্নপূরণের জন্য সিরাজকে জানান- তোমার এখন দেশে আসার প্রয়োজন নেই, অস্ট্রেলিয়ায় দেশের হয়ে খেলো। সিরাজ বলেন, ‘মায়ের সঙ্গে কথা হয়েছে, মা বলেছেন, ওখানেই থেকে বাবার স্বপ্নকে সফল করো।’

শুধু মা-ই নন, বাবার স্বপ্নপূরণের তাড়নায় সিরাজের পাশে দাঁড়ান টিম ইন্ডিয়া ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলিও। সিরাজ জানান, ‘বিরাট ভাই বলে, টেনশন নিস না। মনকে শক্ত কর। তোর বাবা চাইতেন তুই ভারতের হয়ে মাঠে নাম। সেটাই কর। চাপ নিস না।’

শুক্রবার (২০ নভেম্বর) দলের সাথে প্র্যাকটিস সেশন শেষ করে সিরাজ তার বাবার মৃত্যুসংবাদ পান। সিরাজের বাবা ফুসফুসের সংক্রমণে ভুগছিলেন। ভারতের হয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলা সিরাজ এবারের আইপিএল মাতানোর পর দলে পাকাপোক্ত হওয়ার জোগাড়। দেশ ও ক্রিকেটের টানে সিরাজ তাই বাবার দাফনেও যোগ দেননি।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।