Scores

মিঠুনের অর্ধশতক, কাপালির ব্যাটিং ঝড়ে প্রাইম ব্যাংকের লড়াকু পুঁজি

ঢাকা প্রিমিয়ার টি-টোয়েন্টি লিগে নিজেদের ৬ষ্ঠ মাচে মোহাম্মদ মিঠুনের ৫৫ রানের সুবাধে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবকে রানের টার্গেট ছুঁড়ে দিয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব।

দলীয় সর্বোচ্চ রান ৫৫ করেন মিঠুন।

টস জিতে প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন প্রাইম ব্যাংকের অধিনায়ক এনামুল হক বিজয় । তবে ইনিংসের শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি প্রাইম ব্যাংকের। প্রথম ওভারে এনামুল হক জুনিয়রের বলে বোল্ড হন রনি তালুকদার (০)। এই ম্যাচে রান পাননি দলের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। শামিম হোসেনের বলে ১২ বলে মাত্র ৮ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি। দলীয় ১৯ রানে দুই উইকেটের পতনের পর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন দলীয় অধিনায়ক এনামুল ও মিঠুন।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে এই ব্যাটসম্যান থেকে আসে ৪১ রান। ব্যক্তিগত ১৮ বলে ২৯ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরেন এনামুল হক। তাঁর বিদায়ের পর দ্রুত সাজঘরে ফিরেন আরাফাত সানি জুনিয়রও। দলীয় ৬৯ রানে চার উইকেট পড়লে সেখান থেকে দলের হাল ধরেন মিঠুন ও নাহিদুল। দোলেশ্বর বোলারদের বিপক্ষে দায়িত্ব নিয়েই ব্যাটিং করেছেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

Also Read - জয়ের বিধ্বংসী ব্যাটিং, ওল্ড ডিওএইচএসের লড়াকু সংগ্রহ


এই দুই ব্যাটসম্যান মিলে জুটি গড়েন ৩৮ রানের। দলীয় ১০৭ রানে রেজাউরের স্লোয়ারে ক্যাচ আউটের শিকার হন ১৮ বলে ২০ রান করা নাহিদুল। একপাশ থেকে উইকেট হারালেও দায়িত্ব নিয়েই ব্যাটিং করেন মিঠুন। ব্যক্তিগত ৪৬ রানে অর্ধশতক তুলে নেন মিঠুন।

শেষ পর্যন্ত ৫৫ রান করেই থামে মিঠুনের ইনিংস। শেষ দিকে কাপালির ১৪ বলে ২৬ রানের বিধ্বংসী ইনিংসের উপর  ভর করে রানের স্কোরবোর্ড়ে ১৫১ রানের লড়াকু পুঁজি দাঁড় করিয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। দোলেশ্বরের বোলারদের মধ্যে একটি উইকেট করে পেয়েছেন এনামুল জুনিয়র, শামিম, তাইজুল, রেজাউর ও কামরুল রাব্বি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

প্রাইম ব্যাংক ১৫১/৭ (ওভার ২০)

মিঠুন ৫৫, বিজয় ২৯, কাপালি ২৬*

এনামুল ১/১৭ (৪), তাইবুর ১/২১ (২)

Related Articles

মুমিনুল-নাসুম-মেহেদীর বোলিং নৈপুণ্যে গাজী গ্রুপের সহজ লক্ষ্য

মুনিমের ব্যাটিং ঝড়ে তামিমদের সামনে পাহাড়সম লক্ষ্য

শুক্কুরের ব্যাটে ঝড়, সাকিবকে ছাড়াই জিতল মোহামেডান

ফজলের ব্যাটে পঞ্চম জয় দোলেশ্বরের

নিষেধাজ্ঞা ও জরিমানা দুই-ই পেলেন সাকিব