Scores

মিঠুনের উপলব্ধিতে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের পার্থক্য

ঘরোয়া ক্রিকেটে দীর্ঘ সময় খেলে এসেছেন আন্তর্জাতিক আঙিনায়। সবচেয়ে বেশি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে টেস্ট অভিষেকের রেকর্ডও হয়েছে। টেস্ট আঙিনায় নতুন হলেও আন্তর্জাতিক আঙিনায় নতুন নন মোহাম্মদ মিঠুন। ইতোমধ্যে তিনি বুঝে গেছেন লঙ্গার ভার্সনের আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের পার্থক্যও।

আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেট কাঠামোর প্রশংসায় মিঠুন
মোহাম্মদ মিঠুন। ছবি: বিডিক্রিকটাইম

সোমবার (২৬ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে মিঠুন ফুটিয়ে তুললেন সেই পার্থক্যই। টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাট করা কতটা কঠিন- সেই প্রসঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, টেস্টে বোলার অনেক মানসম্পন্ন থাকেতাছাড়া যে কন্ডিশনে খেলা হচ্ছে, এখানে অবশ্যই ব্যাটিংটা কঠিনআমরা তো ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে খেলছি নাঘরোয়া ক্রিকেটে আমাদের উইকেট নিষ্প্রাণ থাকে এখানে বোলাররা তুলনামূলক ভালোসবকিছু মিলিয়ে ব্যাটিং করাটা অবশ্যই কঠিন।’

চট্টগ্রাম টেস্টে ব্যাটিং ছিল দুরূহ কাজ, যা বোঝা গেছে ব্যাটসম্যানদের অসহায়ত্ব দেখেই। মিঠুনের মতে, এমন উইকেটে সেট হতে হলে গড়তে হবে আগে বড় ইনিংস!

তার ভাষ্য, যদি এমন কন্ডিশন হয়, তাহলে আপনি যে কোনো সময় আউট হয়ে যেতে পারেনকারণ বোলারদের অনেক সহায়তা ছিলবল একেক সময় একেকরকম আচরণ করছিলযে কোনো কন্ডিশনে ব্যাটসম্যান রান না করা পর্যন্ত সেট নয়যখনই সে রান করতে পারবে, তখনই তার কাছে ব্যাটিংটা অনেক স্বাভাবিক হবে।’

Also Read - গ্যাব্রিয়েল না থাকায় অ্যাডভান্টেজ পাবে বাংলাদেশ!


তারপরও যেভাবেই হোক, যত কঠিনই হোক, ব্যাটসম্যান হিসেবে আমাকে মেনে নিতে হবে এবং ওখান থেকে বেরিয়ে আসতে হবেযেটা আশা করেছিলাম সেটা হয়নিসামনে আরেকটা টেস্ট আছেসুযোগ হলে ওখানে ভালো করার চেষ্টা করব।’– বলেন মিঠুন।

এদিকে চট্টগ্রাম টেস্ট আড়াই দিনে শেষ হলেও ঢাকা টেস্টে শেষপর্যন্ত লড়াই চান মিঠুন। কন্ডিশন বা উইকেট কেমন হতে পারে এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ঐধরনের কোনো কিছু চিন্তায় নাই পাঁচ দিনের ম্যাচ, অবশ্যই টার্গেট থাকবে পাঁচ দিনই খেলারএরপরও কন্ডিশনের কারণে তেমন কিছু হলে সেটা পরের বিষয়।’

আরও পড়ুন: চারে ব্যাটিং উপভোগ করেন মিঠুন

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

সাঙ্গাকারাকে সাজঘরে ফেরানোর যে স্মৃতি রাসেলের ‘স্মরণীয়’

রঙিন পোশাক সাদমানের কাছে ‘অফ সিজনের ভাবনা’

মুস্তাফিজের পাশে নাম লেখালেন ফোকস

১০ বছর পর পাকিস্তানে টেস্ট ক্রিকেট

টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ভারত